বুধবার ৭ আশ্বিন ১৪২৮, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা আপাতত বাড়ছে না

  • সংসদে প্রতিমন্ত্রী

সংসদ রিপোর্টার ॥ সরকারী চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়ানোর কোন পরিকল্পনা আপাতত সরকারের নেই বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। তিনি সংসদকে জানান, কোভিড-১৯ পরিস্থিতির জন্য বিসিএস বাদে যেসব মন্ত্রণালয় ও বিভাগ বিভিন্ন ক্যাটাগরির সরকারী চাকরিতে সরাসরি নিয়োগের ক্ষেত্রে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে পারেনি, সেসব প্রতিষ্ঠানকে আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রকাশিতব্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে প্রার্থীদের সর্বোচ্চ বয়সসীমা ২৫ মার্চ ২০২০ তারিখ নির্ধারণ করার অনুরোধ করা হয়েছে।

স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে মঙ্গলবার সংসদ অধিবেশনে টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নোত্তর পর্বে বিএনপির সদস্য মোশাররফ হোসেনের প্রশ্নের লিখিত জবাবে প্রতিমন্ত্রী আরও জানান, সম্প্রতি চাকরি থেকে অবসরের বয়স সীমা ৫৭ থেকে ৫৯ বছরে উন্নীত হওয়ায় বর্তমানে শূন্য পদের সংখ্যা কমেছে। এই প্রেক্ষাপটে চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বৃদ্ধি করা হলে বিভিন্ন পদের বিপরীতে চাকরিপ্রার্থীদের সংখ্যা ব্যাপকহারে বৃদ্ধি পাবে। ফলে নিয়োগের ক্ষেত্রে বেশি প্রতিযোগিতার সৃষ্টি হবে। এতে করে যাদের বয়স ৩০ বছরের বেশি তারা চাকরিতে আবেদন করার সুযোগ পেলেও ৩০ বছরের কম বয়সী প্রার্থীদের মধ্যে হতাশার সৃষ্টি হতে পারে।

প্রতিমন্ত্রী জানান, আগে বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বড় ধরনের সেশনজট থাকলেও বর্তমানে উল্লেখযোগ্য সেশনজট নেই। ফলে শিক্ষার্থীরা সাধারণত ১৬ বছরে এসএসসি, ১৮ বছরে এইচএসসি এবং ২৩-২৪ বছরে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করে। সাধারণ প্রার্থীদের জন্য চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৩০ বছর বিধায় স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জনের পরও তারা চাকরিতে আবেদনের জন্য কমপক্ষে ছয়-সাত বছর সময় পেয়ে থাকে।

এ প্রসঙ্গে লিখিত জবাবে প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ৩০ বছর বয়সসীমার মধ্যে একজন প্রার্থী চাকরির জন্য আবেদন করলে নিয়োগপ্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে দু-এক বছর সময় লাগলেও তা গণনা করা হয় না। চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বৃদ্ধি না হলেও করোনা পরিস্থিতির জন্য বিসিএস বাদে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগ বিভিন্ন ক্যাটাগরির সরকারী চাকরিতে সরাসরি নিয়োগের ক্ষেত্রে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে পারেনি, সেসব প্রতিষ্ঠানকে আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রকাশিতব্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে প্রার্থীদের সর্বোচ্চ বয়সসীমা ২৫ মার্চ ২০২০ তারিখ নির্ধারণ করার অনুরোধ করা হয়েছে।

ওই এমপির অপর এক প্রশ্নের জবাবে ফরহাদ হোসেন জানান, দেশে বর্তমানে ১৭০ জন কর্মকর্তা চুক্তিভিত্তিক কর্মরত আছেন। অবসরপ্রাপ্ত চিকিৎসক, প্রকৌশলী, বিজ্ঞানী, সশস্ত্র বাহিনীর সদস্য, জনপ্রশাসনের কর্মকর্তা এবং জনসাধারণের মধ্যে বিশেষ যোগ্যতাসম্পন্ন ব্যক্তিরা চুক্তিভিত্তিক নিয়োগে আছেন।

শীর্ষ সংবাদ:
শেখ হাসিনা ‘মুকুট মণি’ আখ্যায়িত         শিশুদের কাছে আকর্ষণীয় মানসিক বিকাশে সহায়ক         বঙ্গবন্ধুর নামে বেঞ্চ উৎসর্গ ঐতিহাসিক ঘটনা ॥ প্রধানমন্ত্রী         জাতিসংঘ ৭৬তম সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের উদ্বোধনী সেশনে প্রধানমন্ত্রী         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ২৬         ঈশ্বরদী রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্প পরিদর্শনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         বাংলাদেশে প্রতিমাসে এক কোটি ভ্যাকসিন আসছে, অক্টোবরে ভারত থেকেও আসবে॥ নৌ প্রতিমন্ত্রী         জাতিসংঘে করোনা টিকা নিশ্চিতে জোর দেবেন প্রধানমন্ত্রী         কমলো সঞ্চয়পত্রের মুনাফার হার         স্বাস্থ্য-র গাড়িচালক মালেক ও স্ত্রীর বিরুদ্ধে চার্জশিট অনুমোদন         নামিদামি অফিসই ছিল তাদের টার্গেট         এহসান গ্রুপ ॥ ৭ দিনের রিমান্ড শেষে রাগীব ও তার ৩ ভাই কারাগারে         প্রতারণা মামলা : দুই মামলায় জামিন পেলেন হেলেনা জাহাঙ্গীর         টঙ্গীতে ৭ ঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক         জাতিসংঘের এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার পেলেন প্রধানমন্ত্রী         স্থানীয় সরকার নির্বাচন তৃণমূলে গণতন্ত্রের ভিত্তি মজবুত করে ॥ কাদের         ডেঙ্গু : গত ২৪ ঘন্টায় ২৪৬ জন হাসপাতালে         করোনার র‍্যাপিড টেস্টের যন্ত্র দেশে নেই : প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী         রৌমারী সীমান্তে ‘বাংলাদেশী ভেবে’ ভারতীয়কে গুলি করে হত্যা করল বিএসএফ         শূন্য পদে কারা চিকিৎসক নিয়োগ দিতে হাইকোর্টের নির্দেশ