বৃহস্পতিবার ৭ মাঘ ১৪২৮, ২০ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

সাধ্যমতো চেষ্টায় মেহেদী ও আরিফুলের সাফল্য

সাধ্যমতো চেষ্টায় মেহেদী ও আরিফুলের সাফল্য

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বঙ্গবন্ধু টি২০ কাপে মঙ্গলবার প্রথমদিনে নায়ক হয়েছেন স্পিন অলরাউন্ডার শেখ মেহেদী হাসান ও হার্ডহিটার আরিফুল হক। দুইজনই শেষ ওভারে দলকে জিতিয়েছেন। মেহেদী দুর্দান্ত ব্যাটিং (৩২ বলে ৫০ রান) করার পর বল (১/২২) হাতে অসাধারণ নৈপুণ্য দেখিয়ে ঢাকার বিরুদ্ধে নিজ দল খুলনাকে ২ রানে জেতান। আরিফুল হকত চমক জাগান। শেষ ওভারে বরিশালের বিরুদ্ধে খুলনার জিততে ২২ রান লাগে। অপরাজিত ৪৮ রান করা আরিফুল চার ছক্কা হাঁকিয়ে খুলনাকে জেতান। এমন সাফল্য কিভাবে মিলল? মেহেদী বিশ্বাস থেকেই মিলেছে বলে জানান। আর আরিফুল বলেন, সাধ্যমতো চেষ্টা করায় এমন সাফল্য মিলেছে।

টুর্নামেন্টের প্রথম দুটি ম্যাচই জমজমাট হয়েছে। নাটকীয়তায় ভরপুর থাকে। প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হয়। উত্তেজনায় ঠাসা থাকে। শেষমুহূর্তে এই সবকিছুরই দেখা মিলে। শেষদিকে একবার মনে হয় একদল জিতবে, আবার মুহূর্তেই আরেকদলের জেতার সম্ভাবনা জাগে। শেষ ওভারে যেমন ঢাকার জিততে ৯ রান দরকার থাকে। টি২০তে খুব স্বাভাবিকভাবে নেয়া যায়। কিন্তু বোলিং করতে এসে ঢাকার ব্যাটসম্যানদের তা নিতে দেননি মেহেদী। প্রথম তিন বলে কোন রানই নিতে দেননি। ইয়র্কারগুলো হয় দুর্দান্ত। চতুর্থ বলে বাউন্ডারি হয়। জিততে ২ বলে ৫ রান লাগে। একটি বাউন্ডারি যে কোন বলে হলেও টাই হবে। এমন মুহূর্তে লাইনের বাইরে পা থাকায় ‘নো’ বলও হয়। জিততে তখন ২ বলে ৪ রান লাগে। দুর্দান্ত ব্যাটিং করে ঢাকাকে জয়ের এত কাছে নিয়ে যাওয়া মুক্তার আলী উইকেটে থাকেন। ঢাকা জয়ের আশায় থাকে। আবার পঞ্চম বলটিতে ফ্রি হিটও পাওয়া যায়। কিন্তু পঞ্চম বলে আবার এক ইয়র্কার দেন মেহেদী। এক বলে জিততে লাগে ৪ রান। শেষ বলে ব্যাটসম্যানকে এক রানের বেশি নিতে দেননি মেহেদী। জিতে যায় রাজশাহী। দ্বিতীয় ম্যাচেও শেষ ওভারে আরিফুল চমকে দেন সবাইকে। শেষ ওভারে বরিশালের বিরুদ্ধে খুলনার জিততে ২২ রান দরকার থাকে। ২৯ বলে ২৪ রানে থাকা আরিফুল পাঁচ বলে চার ছক্কা হাকিয়ে ম্যাচ জিতিয়ে দেবেন, তা কেউই ভাবতে পারেননি! মেহেদী হাসান মিরাজের করা শেষ ওভারের প্রথম দুই বলে ছক্কা, তৃতীয় বলে কোন রান না নিয়ে আবার চতুর্থ ও পঞ্চম বলে ছক্কা হাঁকিয়ে ম্যাচ জিতিয়ে দেন আরিফুল। ৩৪ বলে ২ চার ও ৪ ছক্কায় অপরাজিত ৪৮ রান করে ম্যাচ জেতান।

শীর্ষ সংবাদ:
‘শহীদ আসাদের আত্মত্যাগ সবসময় প্রেরণা জোগাবে’         বিধিনিষেধে তোয়াক্কা নেই ॥ করোনা সংক্রমণ বেড়েই চলেছে         অগ্রযাত্রা কেউ থামিয়ে দিতে পারবে না         চিকিৎসার নামে অপচিকিৎসা         ঢাকা, রাঙ্গামাটির পর ঝুঁকিপূর্ণ আরও ১০ জেলা         বিএনপি-জামায়াতের লবিস্ট নিয়োগ তদন্তে গোয়েন্দারা         লাভজনক থেকে রুগ্ন ॥ গাজী ওয়্যারসের আধুনিকায়ন প্রকল্পে ২০ কোটি টাকা লোপাট         বিএনপি জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির পাঁয়তারা চালাচ্ছে ॥ কাদের         ওমক্রিন প্রতেিরাধে ডসিদিরে র্সবােচ্চ সর্তক থাকার নর্দিশে         শিমুকে সরিয়ে দেয়ার সুযোগ খুঁজতে থাকে ঘাতক স্বামী         দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত অনশন চলবে         কেটে গেছে শৈত্যপ্রবাহ তিনদিনের মধ্যে বৃষ্টি হতে পারে         অস্ট্রেলিয়ায় চাকরির নামে বিপুল অর্থ আত্মসাত         খাস জমির অর্ধেক উদ্ধার করে ১০ লাখ ভূমিহীনকে আশ্রয় দেয়া সম্ভব         ‘বাংলাদেশের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রা কেউ থামাতে পারবে না’         একদিনে করোনায় ১২ মৃত্যু, শনাক্ত ৯৫০০         ‘মাসুদ রানা’খ্যাত কাজী আনোয়ার হোসেন আর নেই         গ্যাসের দাম বাড়ানোর বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীরা         বাংলাদেশ ব্যাংকের ৪ কর্মকর্তাকে দুদকে তলব         ই-কমার্সে আস্থা ফেরাতে ফেব্রুয়ারিতে চালু হচ্ছে নিবন্ধন : পলক