সোমবার ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ নভেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

পদ্মা সেতুর ৩৫তম স্প্যান আজ বসানো সম্ভব নাও হতে পারে

  • নাব্য সঙ্কট

নিজস্ব সংবাদদাতা, মাদারীপুর, ২৯ অক্টোবর ॥ শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তের ৮ ও ৯ নম্বর পিয়ার পিলারের ওপর ৩৫তম স্প্যান ২-বি বসানোর পূর্ব সিদ্ধান্ত থাকলেও নাব্য সঙ্কটের কারণে তা হয় তো সম্ভব নাও হতে পারে। তবে নাব্য সঙ্কট নিরসন হলে এবং আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে শনিবার (৩১ অক্টোবর) বা রবিবার (১ নবেম্বর) বসতে পারে পদ্মা সেতুর ৩৫তম স্প্যান। মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তের ৮ ও ৯ নম্বর পিয়ার পিলারের ওপর সফলভাবে স্প্যান ২-বি বসানো গেলে দৃশ্যমান হবে সেতুর সোয়া ৫ কিলোমিটার। বৃহস্পতিবার দুপুরে পদ্মা সেতুর প্রকৌশল সূত্র এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ৩৫তম স্প্যান বসানো গেলে বাকি থাকবে ৬টি স্প্যান। ৩৪তম স্প্যান বসানোর ৬ দিনের মাথায় বসতে যাচ্ছে স্প্যান ২-বি। চলতি মাসে তিনটি স্প্যান বসানো হয়েছে। এটি নিয়ে সংখ্যা দাঁড়াবে চারটি। তবে প্রাকৃতিক কারণ বাধা হয়ে দাঁড়ালে সিডিউল পরিবর্তন হতে পারে। ওই দুই পিলারের কাছে নাব্য সঙ্কট দেখা দেয়ায় কিছুটা দুশ্চিন্তায় রয়েছেন প্রকৌশলীরা।

পদ্মা সেতুর প্রকৌশল সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) ৩৫তম স্প্যান বসানোর কথা ছিল। সম্প্রতি পদ্মায় পানি কমে পলি জমে যাওয়ায় দেখা দেয় নাব্য সঙ্কট। অথচ, কয়েকদিন আগেও ৮ ও ৯ নম্বর পিলারের কাছে পানির গভীরতা ছিল প্রায় ৭০ ফুট। বর্তমানে পানি আছে প্রায় ৭ ফুট। এমন পরিস্থিতি থাকলে ভাসমান ক্রেনটি স্প্যান বহন করে নিয়ে যেতে পারবে না। এজন্য সেখানে ড্রেজিং কার্যক্রম চলছে। ড্রেজিং শেষে পর্যাপ্ত গভীরতা আসলে স্প্যান রওনা দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী ও প্রকল্প ব্যবস্থাপক (মূল সেতু) দেওয়ান আবদুল কাদের সাংবাদিকদের জানান, যেখানে স্প্যান বসবে সেখানে নাব্য সঙ্কট। এজন্য ড্রেজিং চলছে। এখনও তারিখ নির্ধারণ হয়নি। তবে নাব্য সঙ্কট নিরসন হলে ৩১ অক্টোবর ও ১ নবেম্বরের মধ্যে বসিয়ে দেয়ার পরিকল্পনা আছে।

পদ্মা সেতুর প্রধান প্রকৌশলী জানান, সেতুর ৮ ও ৯ নম্বর পিলারের অবস্থান লৌহজং উপজেলার পদ্মা নদীতে। মূল নদীতে স্প্যান বসানোর জন্য খুব সতর্কতার সঙ্গে কাজ করতে হয়। মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের মাওয়ায় অবস্থিত কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে ধূসর রঙের ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যরে স্প্যানটি বহন করে নিয়ে যাবে ৩ হাজার ৬০০ টন ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন ভাসমান ক্রেন ‘তিয়ান-ই’। এখনও স্প্যান রওনা দেয়ার কোন সময় নির্ধারণ করেনি সেতু কর্তৃপক্ষ। কেননা স্প্যান রওনা দেয়ার জন পদ্মা নদীর অনুকূল পরিস্থিতি থাকা জরুরী। শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) অথবা শনিবার (৩১ অক্টোবর) যে কোন দিন স্প্যান বহন করে নিয়ে যাওয়া হবে। পিলারের ওপর স্প্যান বসানোর জন্য দুই দিন সময় নেয়া হয়ে থাকে।

শীর্ষ সংবাদ:
দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে         ব্যাটিং ব্যর্থতায় ম্লান বোলিং সাফল্য         মিল্কি ওয়ের প্রথম ‘পালক’         সরকারী কাস্টডিতে নেই খালেদা, তিনি মুক্ত         ঢাকায় বিশ্ব শান্তি সম্মেলন ৪ ডিসেম্বর শুরু         ওমিক্রন প্রতিরোধে সতর্ক অবস্থায় সারাদেশ         সাদা পোশাকে দেশে সবার ওপরে মুশফিক         সাগরে জলদস্যুতায় যাবজ্জীবন দন্ড         গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন, ৪১ বছর পূর্তির আয়োজন         কুয়েতে পাপুলের সাত বছরের কারাদন্ড         পাকি প্রেম দূরে রাখুন         বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তৈরিতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ         ‘মোকাবেলা করে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে ’         তৃতীয় ধাপের সহিংসতাহীন নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে দাবি ইসির         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৩         করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সতর্কবার্তা         পরিবহন সেক্টর কার নিয়ন্ত্রণে : জি এম কাদের         সংসদে নির্বাচন কমিশন গঠনে আইন আনা হচ্ছে শিগগিরই ॥ আইনমন্ত্রী         বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী সৌদির ৩০ কোম্পানি         আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে নগর পরিবহন চালু সম্ভব নয় : মেয়র তাপস