মঙ্গলবার ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৪ নভেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ভেনেজুয়েলা ছাড়লেন ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানের নেতা লোপেজ

ভেনেজুয়েলা ছাড়লেন ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানের নেতা লোপেজ

অনলাইন ডেস্ক ॥ ভেনেজুয়েলার সরকারবিরোধী অ্যাকটিভিস্ট লিওপোলদো লোপেজ দেশ ছেড়েছেন। শনিবার কারাকাসে স্প্যানিশ রাষ্ট্রদূতের বাসভবন থেকে বের হয়ে ভিনদেশে পাড়ি জমান তিনি। ২০১৯ সালে ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর বিরুদ্ধে সামরিক অভুত্থান প্রচেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পর স্প্যানিশ রাষ্ট্রদূতের আশ্রয়ে ছিলেন তিনি। লোপেজের দল পপুলার উইল পার্টি জানিয়েছে, বিদেশের মাটিতে বসেই কাজ চালিয়ে যাবেন তাদের নেতা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। পারিবারিক সূত্রকে উদ্ধৃত করে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, লোপেজ শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) সীমান্ত পাড়ি দিয়ে কলম্বিয়ায় চলে গেছেন।

কয়েক বছর ধরেই সোশ্যালিস্ট প্রেসিডেন্ট মাদুরোকে উৎখাতে ব্যর্থ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন কারাকাসের সাবেক মেয়র লিওপোলদো লোপেজ। আর তা করতে গিয়ে প্রায় সাত বছর ধরে কখনও কারাবাস, কখনও গৃহবন্দিত্ব আবার কখনও বিদেশি দূতাবাসের আশ্রয়ে থাকতে হয়েছে ৪৯ বছর বয়সী এ নেতাকে। দেশত্যাগের পর শনিবার রাতে এক বিবৃতিতে লোপেজ লিখেছেন, ‘আমরা থেমে যাব না। ভেনেজুয়েলার নাগরিক হিসেবে আমাদের সবার স্বাধীনতা নিশ্চিত করার জন্য দিন-রাত কাজ করে যাব।’ তিনি আরও জানান, সামনের দিনগুলোতে ভেনেজুয়েলায় গণতান্ত্রিক পরিবর্তন আনতে যে পরিকল্পনা করা হয়েছে তার বিস্তারিত ঘোষণা করা হবে।

পপুলার উইল পার্টি জানিয়েছে, দেশের কল্যাণে এবং ভেনেজুয়েলার স্বাধীনতার জন্য লড়াই করতে দেশত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন লোপেজ। এক বিবৃতিতে তারা লিখেছে, ‘সাত বছর ধরে ভেনেজুয়েলায় নিপীড়নের শিকার হওয়া ও অন্যায়ভাবে কারারুদ্ধ জীবন কাটানোর পরও সব ভেনেজুয়েলানের মতো করেই লোপেজও পুরোপুরি মুক্ত হতে পারেননি। যতক্ষণ পর্যন্ত দেশে একনায়কতন্ত্র থাকবে, ততক্ষণ পর্যন্ত মানবাধিকার লঙ্ঘিত হবে।’

লোপেজের দেশত্যাগের ব্যাপারে ভেনেজুয়েলা কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। স্প্যানিশ রাষ্ট্রদূতের বাসভবনের বাইরে মোতায়েনকৃত কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা ভেদ করে কিভাবে এ নেতা দেশ ছাড়লেন তাও স্পষ্ট হওয়া যায়নি।

ভেনেজুয়েলার যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত বিরোধী নেতা জুয়ান গুইদোর সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা রয়েছে লোপেজের। সহিংস রাজনৈতিক বিক্ষোভ প্ররোচিত করার অভিযোগে ২০১৪ সালে লোপেজ গ্রেফতার হয়েছিলেন। তবে তিনি বারবার ওই অভিযোগ অস্বীকার করলেও তাকে সামরিক কারাগারে ১৪ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। ২০১৭ সালে লোপেজকে গৃহবন্দী করা হয়। বিরোধী দলের সমর্থনপুষ্ট নিরাপত্তা এজেন্টেরা গত বছর তাকে মুক্ত করলেও তিনি গৃহবন্দী ছিলেন।

পরে ভেনেজুয়েলার একটি আদালত লোপেজের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে। বলা হয়, গৃহবন্দীর শর্ত লঙ্ঘন করায় তাকে ১৪ বছর কারাদণ্ডের বাকি সময় জেলে কাটাতে হবে। এমন অবস্থায় লোপেজ স্প্যানিশ রাষ্ট্রদূতের বাসভবনে আশ্রয় নেন।

শীর্ষ সংবাদ:
সালমান-নেতানিয়াহু বৈঠকের কথা অস্বীকার সৌদির         জনসংখ্যা বাড়াতে আর্থিক সহায়তা দেবে চীন         যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্ক নষ্ট হয়ে গেছে ॥ পুতিন         বাইডেনকে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে রাজি ট্রাম্প         অপকর্ম থামছে না ॥ সহস্রাধিক অবৈধ বিদেশীর         আমরা আর দানের ওপর নির্ভরশীল নই         শঙ্কায় গার্মেন্টস খাত, রফতানি অর্ডার কমেছে ৩০ শতাংশ         কানাডার ‘বেগমপাড়ায়’ ২৮ বাড়ির বিষয়ে খোঁজ নিচ্ছে দুদক         স্বপ্নের বঙ্গবন্ধু টানেল নির্মাণ কাজ ৬০ ভাগ সম্পন্ন         পরাজয় মেনে নিতে ট্রাম্পকে মিত্রদের অনুরোধ         করোনায় দেশে আরও ২৮ জনের মৃত্যু         ‘ভ্যাকসিন না পেলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা কঠিন’         মনির ২৫ এ্যাকাউন্টে ৯৩০ কোটি টাকা লেনদেন করেছে         রাস্তার মোড়ে মোড়ে বসানো ট্যাঙ্কে আর পানি দেয় না ওয়াসা         প্রাইমারীতেও অটো প্রমোশন, থাকছে একই রোল নম্বর         সাগরে নিম্নচাপ সৃষ্টি, ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে আজ         শপিংমল থেকে ফুটপাথে শীতের কাপড়ের পসরা         জাতীয় নদী রক্ষা কমিশন কার্যকর করতে আইন কমিশনের সুপারিশ         ‘হাসিনা-মোদি ভার্চুয়াল বৈঠকে ৪টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হতে পারে’         আগামী ৪ বছরের মধ্যে রাজধানীর বৈদ্যুতিক তার ভূগর্ভস্থ করা হবে