শনিবার ১১ আশ্বিন ১৪২৭, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

আজম ও তার সহযোগী ডায়মন্ডের আদালতে স্বীকারোক্তি

আজম ও তার সহযোগী ডায়মন্ডের আদালতে স্বীকারোক্তি
  • ২০ থেকে ২২ বছর বয়সী মেয়েদের মাসে ৫০ হাজার টাকা বেতনের কথা বলে প্রলুব্ধ করা হতো

নিয়াজ আহমেদ লাবু ॥ দুবাই ড্যান্স ক্লাবে আন্তর্জাতিক নারী পাচার চক্রের গডফাদার আজম খান (৪৫) ও তার সহযোগী আলামিন হোসেন ওরফে ডায়মন্ড (৩৪) আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে। জবানবন্দীতে তারা বলেছে, চাকরির প্রলোভনে গত আট বছরে সহস্রাধিক বাংলাদেশী ২০-২২ বছর বয়সী তরুণীকে দুবাই পাচার করে। সেখানে তার ড্যান্সবারে তাদের নাচতে বাধ্য করা হতো। একপর্যায়ে যৌন ব্যবসা করানো হতো তাদের দিয়ে। রাজি না হলে আটকে রেখে বৈদ্যুতিক শকসহ নানা নির্যাতন চলত তরুণীদের ওপর। খেতে দেয়া হতো না। নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে তারা বাধ্য হতো পাচারকারীদের কথামতো কাজ করতে।

নারী পাচারকারী চক্রের হোতা আজম ও তার সহযোগী জানায়, বাংলাদেশে অর্ধশত দালালের মাধ্যমে অল্প বয়সী তরুণী, বিশেষ করে ২০ থেকে ২২ বছর বয়সী মেয়েদের মাসে ৫০ হাজার টাকা বেতনের কথা বলে আজম খানের দুবাইয়ে তার হোটেলে চাকরির জন্য প্রলুব্ধ করা হতো। দালালরা মেয়েদের প্রলুব্ধ করে নির্ধারিত দুটি বিদেশী এয়ারলাইন্স এজেন্সির মাধ্যমে দুবাইতে পাঠাত। সেখানে যাবার পর তাদের প্রথমে ছোটখাটো কাজ দেয়া হতো। এরপর জোর করে ড্যান্স বারে নাচতে বাধ্য করা হতো। যৌনপেশায় কাজ করতে বাধ্য করা হতো। না করতে চাইলে আটক রাখা হতো, তাদের খাবার দেয়া হতো না, শারীরিকভাবে নির্যাতন করা হতো। বৈদ্যুতিক শক পর্যন্ত দেয়া হতো। দুবাইতে আজম খানের মালিকানাধীন হোটেল- ফরচুন পার্ল হোটেল এ্যান্ড ড্যান্স ক্লাব, হোটেল রয়েল ফরচুনে পাচারকারী মেয়েদের ড্যান্সবারে নাচতে বাধ্য করা হতো। একপর্যায়ে যৌন ব্যবসায় তাদের বাধ্য করা হতো। তার টর্চারসেলে আটকে রেখে দিনের পর দিন মারধর ও বৈদ্যুতিক শক দেয়া হতো। চট্টগ্রামের বাসিন্দা আজম খানের দেশে রয়েছে অর্ধশতাধিক দালাল। নির্যাতনের হাত থেকে রক্ষা পেতে অনেক মেয়ে বাংলাদেশে দালালদের মোবাইল ফোনে জানাত। তাদের যেন বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনে।

চট্টগ্রাম ফটিকছড়িতে এক সময় ছাত্র শিবির নেতা আজম খান ও তার সহযোগী আলামিন আদালতে সহস্রাধিক নারী পাচার করে তাদের ওপর নানা নির্যাতনের দায় স্বীকার করেন। তারা জানান, নারী পাচারের কাজে তাদের সহযোগিতা করেছে একাধিক ট্রাভেল এজেন্সি ও বিদেশী কিছু বিমান সংস্থা। আদালতে স্বীকারোক্তিতে আজম খান জানায়, তার বিরুদ্ধে দেশে ছয়টি হত্যা মামলাসহ ১৫টি মামলা রয়েছে। তিনি ছাড়াও এ কাজে দুবাইয়ে তার সঙ্গে আরও দুই ভাই যুক্ত ছিলেন। এই দলে ভারত ও পাকিস্তানের দলগুলোও যুক্ত আছে। দুবাইতে বাংলাদেশ দূতাবাস পাসপোর্ট রেখে তাকে (আজম খানকে) দেশে পাঠায়। এর আগে সেখানে এক মাস জেলও খাটেন। অন্য পাসপোর্টে দেশে ফিরে তিনি পালিয়ে থাকেন। এই সুযোগে তিনি নতুন পাসপোর্ট করে দেশ ছাড়ার চেষ্টা করছিলেন।

শীর্ষ সংবাদ:
পাবনা-৪ আসনে উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে         অতিরিক্ত সচিবে পদোন্নতি করা হল ৯৮ যুগ্ম-সচিবকে         নারায়ণগঞ্জে ফের ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে যোগাযোগ বন্ধ         এমসি কলেজে গৃহবধূকে গণধর্ষণের ঘটনায় ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা         আগামী ৩ দিন ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা         ইউক্রেনে সামরিক বিমান বিধ্বস্ত হয়ে নিহত ২৫         করোনা ভাইরাসের টিকা মিললেও বিশ্বজুড়ে মৃত্যু ২০ লাখ ছাড়াতে পারে         মার্কিন বিচারপতির মনোনয়ন পেলেন অ্যামি কোনি ব্যারেট         শিনজিয়াংয়ে হাজারো মসজিদ গুঁড়িয়ে দিয়েছে চীন         কালো সোনার হাতছানি ॥ অমিত সম্ভাবনার ব্লু ইকোনমি         দীর্ঘদিন ক্ষমতায় আছি বলেই সুফল পাচ্ছে জনগণ         উত্তরাঞ্চলে অকালবন্যা, পানিবন্দী কয়েক লাখ মানুষ         ক্ষমতায় আসার জন্য বিএনপি ষড়যন্ত্রের অলিগলি খুঁজছে         বিশ্বব্যাংক গ্রুপ ২০ হাজার কোটি টাকার বাজেট সহায়তা দিচ্ছে         চাঞ্চল্যকর নিলা হত্যা মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার         এবার ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ভাতিজির প্রতারণার মামলা         সঙ্কট মেটাতে ১১ দেশ থেকে দ্রুত পেঁয়াজ আসছে         মালেকের উত্থানের নেপথ্যে         করোনা টেস্টের রিপোর্ট নিয়ে দুশ্চিন্তায় প্রবাসীরা         জাতিসংঘে বঙ্গবন্ধুর বাংলায় ভাষণের ৪৬ বছর পূর্তিতে স্মারক ডাকটিকেট