মঙ্গলবার ১২ কার্তিক ১৪২৭, ২৭ অক্টোবর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বাইরের জেলা থেকে আসা লোকজন হোম কোয়ারেন্টাইন মানছেনা

বাইরের জেলা থেকে আসা লোকজন হোম কোয়ারেন্টাইন মানছেনা
  • ঘুরছে ফ্রি-স্টাইলে, মাস্কও পড়ছে না

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, পটুয়াখালী ॥ একজন আক্রান্ত রোগী (সুস্থ) ছাড়া বলতে গেলে করোনামুক্ত কলাপাড়ার জনপদ। কিন্তু ঈদকে কেন্দ্র করে করোনা সংক্রমনের ঝুকি বেড়ে গেছে। ঢাকা নারায়নগঞ্জসহ করোনাসংক্রমিত এলাকা থেকে বাড়িতে ফেরা লোকজনের ফ্রি-স্টাইল বিচরনে এ শঙ্কা এখানকার মানুষকে শঙ্কিত করে তুলেছে। এ শঙ্কা ক্রমশ বাড়ছে। স্বাস্থ্য বিভাগের কোয়ারেন্টাইন থাকার পরামর্শ উপেক্ষা করে এসব মানুষ হাট-বাজারে ফ্রিস্টাইলে ঘোরাফেরা করছে। শপিংমল থেকে শুরু করে সর্বত্র ফ্রিস্টাইলে ঘুরছে। কেউ কেউ আড্ডা জমিয়ে তুলেছে বন্ধুমহলে। একারণে কলাপাড়া এলাকায় করোনার প্রাদুর্ভাব ব্যাপকভাবে ছড়ানোর শঙ্কা দেখা দিয়েছে। শুক্রবার থেকে এসব দৃশ্য দেখা গেছে। এমনকি পৌরশহরের নাচনাপাড়ার লকডাউন ভেঙ্গে মানুষ বাজাওে ঘুরছে। এছাড়া শহরে শপিং করতে আসা বহু লোকজনকে মাস্কবিহীন বাজারে ঘুরতে দেখা গেছে। যেন এরা সবাই করোনার চেয়ে শক্তিশালী মনে করছেন নিজেদেরকে। বাড়িতে ফেরা মানুষের জন্য হোম কোয়ারেন্টাইন বাধ্যবাধকতা নেই।

নীলগঞ্জের খলিলপুর, মকিমপুর গ্রামের লোকজনের অভিযোগ এক ব্যক্তি তিনজনসহ ভারত থেকে কয়েকদিন আগে বাড়ি ফিরেছেন। এরমধ্যে একজন করোনার উপসর্গ নিয়ে বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছেন। অন্যরাসহ ওই বাড়ির সবাই বাইরে বাজারে ঘোরাফেরা করছে। স্থানীয়দের চাপে স্বাস্থ্যবিভাগ শুক্রবার ওই ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করেছে স্বাস্থ্যবিভাগ। অন্তত ২০ এর অধিক মোবাইলফোন করে গ্রামের কিংবা শহরের মানুষ গণমাধ্যম কর্মীদের জানিয়েছেন ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলা থেকে আসা লোকজন সংলগ্ন বাজারে ঘুরছে। আড্ডা দিচ্ছে চায়ের দোকানে। মিশে যাচ্ছে এরা সুস্থ ও স্বাভাবিক নিরোগ মানুষের সঙ্গে। শনিবার সকাল থেকে কলাপাড়া পৌরশহরের বাজারে হাজারো নারী-পুরুষ-শিশুকে কেনাকাটা করতে দেখা গেছে। এরা এক তৃতীয়াংশ মাস্ক পর্যন্ত ব্যবহার করছে না। ফলে করোনা সংক্রমন ভয়াবহ আকার দেখা দেয়ার শঙ্কা করছেন সচেতনমহল। আর কলাপাড়া পৌরশহরসহ প্রশাসনের এসব নিয়ন্ত্রণে নেই কার্যকর কোন পদক্ষেপ। তবে থানা পুলিশকে খবর দিলে তারা কয়েকজনকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করেছে।

শীর্ষ সংবাদ:
বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্ক সুদৃঢ় হবে ॥ আইনমন্ত্রী         কাউন্সিলর পদ থেকে বরখাস্ত হবেন কাউন্সিলর ইরফান সেলিম         পাকিস্তানে মাদ্রাসায় বিস্ফোরণ ॥ নিহত অন্তত ৭, আহত ৭০         হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান কারাগারে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে         ১০ ঘন্টা পর খুলনার সাথে সারাদেশের ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক         ফরাসি দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচিতে পুলিশের বাধা         সুপ্রিম কোর্টের বিচারক হিসেবে শপথ নিলেন ট্রাম্পের পছন্দের ব্যারেট         দুবাই থেকে ফিরেছেন রাষ্ট্রপতি         হাজী সেলিমের প্রটোকল কর্মকর্তা দিপু গ্রেফতার         ফ্রান্স ‘উগ্রবাদ’কে উস্কে দিচ্ছে ॥ ইরান         এমপি আবু জাহির করোনায় আক্রান্ত         সিরিয়ায় রুশ বিমান হামলা ॥ অর্ধ শতাধিক নিহত         ইরানের তেলমন্ত্রীর বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা         ফ্রান্সের বিতর্কিত কাটুনের নিন্দা সৌদি আরবের         পাকিস্তানে প্রথম মেট্রোরেল চালু         সাদ্দামের ‘ডানহাত’ ইবরাহিম আল-দৌরির মৃত্যু         যুক্তরাষ্ট্রে বৈষম্যের পরিবর্তন চায় কৃষ্ণাঙ্গরা         হাজী সেলিমের ছেলের বাড়িতে অভিযান ॥ নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর         নিয়ন্ত্রণহীন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম- গুজব বন্ধ হচ্ছে না         বঙ্গবন্ধু টানেলের দ্বিতীয় টিউব প্রতিস্থাপনের প্রস্তুতি