শুক্রবার ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৯ মে ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বিদ্যুত উৎপাদনে কর অবকাশ কমে ৫ বছর হতে পারে

  • বেসরকারী নীতিমালায় পরিবর্তন আসছে

রশিদ মামুন ॥ বেসরকারী বিদ্যুত উৎপাদন নীতিমালায় পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে সরকার। ঢালাওভাবে দেয়া বিভিন্ন প্রণোদনা কাটছাঁট করতে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এরপর পরিবর্তিত নীতির আলোকেই বেসরকারী উদ্যোক্তাদের সঙ্গে বিদ্যুত ক্রয় (পিপিএ) এবং কেন্দ্র স্থাপন চুক্তি (আইএ) সই করা হবে। ইতোমধ্যে মার্কিন কোম্পানি ডেলয়েটকে দিয়ে পিপিএ এবং আইএ সংশোধনের উদ্যোগ নিয়েছে পাওয়ার বিদ্যুত বিভাগের নীতি এবং গবেষণা প্রতিষ্ঠান পাওয়ার সেল। প্রতিষ্ঠানটি বলছে ডেলয়েট এর খসড়া প্রতিবেদন তাদের হাতে এসেছে।

বিদ্যুত বিভাগ সূত্র জানায়, বেসরকারী বিদ্যুত উৎপাদন নীতিমালা-১৯৯৬ অনুযায়ী ১৫ বছরের কর অবকাশ সুবিধা ভোগ করে থাকে উদ্যোক্তা। এখন তা কমিয়ে আনার চিন্তা করা হচ্ছে। বিদ্যুত বিভাগের নীতি এবং গবেষণা প্রতিষ্ঠান পাওয়ার সেল বলছে তারা ১৫ বছরের কর অবকাশ সুবিধা কমিয়ে পাঁচ বছর করার প্রস্তাব করেছে। নীতিমালা চূড়ান্ত করার পর একটি এটি উদ্যোক্তাদের মতামতের জন্য পাঠানো হবে। এরপর চূড়ান্ত করা হবে।

জানা গেছে, বেসরকারী বিদ্যুত উৎপাদনকারীদের দেয়া এই বিশেষ সুবিধার বিষয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড প্রথম আপত্তি তোলে। রাজস্ব বোর্ডের তরফ থেকে বলা হয়, বিদ্যুত খাতের উদ্যোক্তারা কর্পোরেট ট্যাক্সের বাইরে থাকার বিষয়টি নিয়ে চিন্তা করা উচিত। অনন্ত সময় ধরে কারও এ ধরনের সুবিধা ভোগ করা উচিত নয়। এরপর সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকেও বিষয়টি নিয়ে চিন্তা শুরু হয়।

বিদ্যুত বিভাগ সূত্র জানায়, বিদ্যুত সচিবের নেতৃত্বে বেসরকারী বিদ্যুত উৎপাদন নীতিমালা-১৯৯৬ এর পরিবর্তনের জন্য একটি কমিটি করা হয়েছে। ইতোমধ্যে এই কমিটি বৈঠক করেছে। আশা করা হচ্ছে আগামী তিন মাসের মধ্যে নীতিমালা সংশোধনের কাজ শেষ হবে।

পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসাইন বলেন, বিদ্যুতের চরম সঙ্কটের সময় নীতিমালাটি প্রণয়ন করে বেসরকারী উদ্যোক্তাদের সুযোগ দেয়া হয়েছিল। এককভাবে সরকারের পক্ষে তখন বিদ্যুত খাতে বিনিয়োগ সম্ভব হচ্ছিল না। এই নীতিমালা প্রণয়নের ফলে দেশে বেসরকারী উৎপাদনের সুযোগ তৈরি হয়েছিল। কিন্তু এখন আমাদের চাহিদা কত উৎপাদন কত আমাদের কতটা বেসরকারী বিনিয়োগ প্রয়োজন তা দেখা হচ্ছে। তিনি বলেন, ঢালাওভাবে আগে যেসব প্রণোদনা দেয়া হতো এখন সেসব প্রণোদনা কমানোর চিন্তা করা হচ্ছে।

বেসরকারী বিদ্যুত উৎপাদন নীতিমালা-১৯৯৬ নীতিমালায় দেখা যায়, তখন বিদ্যুত খাতে চার দশমিক চার বিলিয়ন ডলারের বিনিয়োগ প্রয়োজন ছিল যা সরকারের একার পক্ষে দ্রুততম সময়ে করা কঠিন ছিল। এজন্য নীতিমালাটি করা হয় এতে বেসরকারী উদ্যোক্তারা কেন্দ্র নির্মাণের সুযোগ পায়। এর আগে বিদ্যুতের উৎপাদন, সঞ্চালন এবং বিতরণ এককভাবে সরকারী প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ বিদ্যুত উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) করত। তবে এখনও সকল বিদ্যুত এককভাবে পিডিবি কিনে নিয়ে তা বিতরণ কোম্পানির কাছে বিক্রি করে। মূলত উৎপাদন পর্যায়ে সরকারের ভর্তুকি ঠিক রাখতে এই উদ্যোগ। এর বাইরে সঞ্চালন এবং বিতরণের পুরোটা সরকারী প্রতিষ্ঠানের হাতেই রয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা         প্রধানমন্ত্রীকে প্রিন্স চার্লসের চিঠি         সোনারগাঁয়ে করোনায় মৃত্যু ৭ ॥ লাশ দাফনে ইউএনও         যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাসে আরও ১২৯৭ জনের মৃত্যু         করোনা ভাইরাস ॥ এবার মৃত্যুতেও চীনকে ছাড়িয়ে গেল ভারত         মোদির সঙ্গে কথা হয়েছে, তার মন ভালো নেই         দ. কোরিয়ায় করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বাড়ায় ফের বন্ধ হল স্কুল         মহামারির মধ্যে কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার জেরে উত্তাল যুক্তরাষ্ট্র         ব্রাজিলে করোনা ভাইরাসে একদিনে আক্রান্ত ২৬৪১৭         নোবেলের বিরুদ্ধে ভারতে মামলা দায়ের         অর্থনীতি সচলের চেষ্টা ॥ সকল কর্মকাণ্ড স্বাভাবিক করার উদ্যোগ         আয় রোজগারের পথ অনির্দিষ্টকাল বন্ধ রাখা সম্ভব নয়         ইউনাইটেডের আইসোলেশন সেন্টারে আগুনে পুড়ে ৫ করোনা রোগীর মৃত্যু         শেয়ারবাজারে লেনদেন রবিবার শুরু         করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪০ হাজার ছাড়িয়েছে         যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃত্যু লাখ ছাড়িয়েছে, স্পেনে রাষ্ট্রীয় শোক         অফিসে মাস্ক পরা, স্বাস্থ্য বিধির ১৩ দফা মানা বাধ্যতামূলক         ঢাকায় ফেরার প্রতিযোগিতা         লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ॥ বিশ্বে শীর্ষ ২৫ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ         ঈদের ছুটিতে যাদের হারিয়েছি        
//--BID Records