বুধবার ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

কেসিসির কাউন্সিলররা পাবেন স্থায়ী ঠিকানা

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা অফিস ॥ খুলনা সিটি কর্পোরেশনের (কেসিসি) ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের অনেকের বসার জন্য স্থায়ী কোন ঠিকানা নেই। তাদের নিজস্ব ঠিকানা প্রদানসহ নগরবাসীর সেবার মান আরও উন্নত করার লক্ষ্যে ‘ওয়ার্ড অফিস কাম কমিউনিটি সেন্টার, আরবান সার্ভিস সেন্টার এবং গেস্ট হাউস নির্মাণ’ প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। চার বছর মেয়াদী এ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ১৯৩ কোটি ৪৭ লাখ ৫৫ হাজার টাকা। গত মে মাসের প্রথম সপ্তাহে প্রকল্পটির ডিপিপি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

কেসিসি সূত্র জানায়, সম্পূর্ণ সরকারী অর্থায়নে ‘ওয়ার্ড অফিস কাম কমিউনিটি সেন্টার, আরবান সার্ভিস সেন্টার এবং গেস্ট হাউস নির্মাণ’ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। এ প্রকল্পের বাস্তবায়নের উদ্দেশ্য হচ্ছে খুলনা মহানগরীর বাসিন্দাদের দ্রুততার সঙ্গে নাগরিক সেবা প্রদান, ওয়ার্ড পর্যায়ে অবকাঠামো সুবিধাদি উন্নয়ন করা। যাতে নগরবাসী ওয়ার্ড অফিস থেকেই জন্ম-মৃত্যু ও নাগরিক সনদসহ অন্যান্য সেবা নিতে পারে। এছাড়া অবকাঠোমো তৈরি করে কেসিসির আয়ের উৎস বৃদ্ধি ও কেসিসির গেস্ট হাউস নির্মাণ করা। ২০১৯ সালের জুলাই মাস থেকে ২০১৩ সালের জুন মাস পর্যন্ত প্রকল্পটি বাস্তবায়নের মেয়াদ কাল ধরা হয়েছে। সূত্র জানায়, ‘ওয়ার্ড অফিস কাম কমিউনিটি সেন্টার, আরবান সার্ভিস সেন্টার এবং গেস্ট হাউস নির্মাণ’ প্রকল্পের আওতায় কেসিসির খালিশপুর জোনাল অফিস বর্ধিতকরণ, সোনাডাঙ্গা সোলার পাকের পাশে কেসিসির গেস্ট হাউস নির্মাণ, যে সকল ওয়ার্ডে অফিস ভবন আছে সেগুলোকে চার তলাকরণ, ২, ৩, ৪, ৭, ১৩, ১৫ ও ২২নং ওয়ার্ড অফিসের জন্য কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণ করা। সূত্র জানায়, ৫ ও ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে কেসিসির দুটি বাণিজ্যিক প্লট রয়েছে। ওই প্লটে ১০ তলা ফাউন্ডেশন বিশিষ্ট ৯ তলা ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা করা হয়েছে। ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে ৭ তলা ফাউন্ডেশনে ৬ তলা ভবন নির্মাণ করা হবে। এছাড়া ১১, ১২, ২৪ ও ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে শুধু কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণ হবে। একাধিক ওয়ার্ড অফিস কাম কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণের জন্য জমি অধিগ্রহণের প্রয়োজন হবে। এ ছাড়া প্রকল্পের পরামর্শক ব্যয়, অফিস স্টেশনারি, কম্পিউটার প্রভৃতি খাতে ব্যয় রয়েছে। কেসিসির চিফ প্লানিং অফিসার আবির-উল জব্বার জানান, ‘ওয়ার্ড অফিস কাম কমিউনিটি সেন্টার, আরবান সার্ভিস সেন্টার এবং গেস্ট হাউস নির্মাণ’ প্রকল্পের ডিপিপি মে মাসের প্রথম সপ্তাহে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। প্রতিটি ওয়ার্ড অফিস ভবনে সাধারণ ও সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলরের নিজস্ব কার্যালয় থাকবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে নাগরিক সেবার মান উন্নত হবে।

শীর্ষ সংবাদ:
নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুন, কেউ ভোটের অধিকার কেড়ে নেবে না : প্রধানমন্ত্রী         সিলেটে বন্যায় পানিবন্দি ১৫ লাখ মানুষ         বন্যায় সিলেটবাসীকে সহযোগিতা দেয়া হবে         আগামী ৩১ মে হজ ফ্লাইট শুরু নিয়ে ফের অনিশ্চয়তা         নন-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে শৃঙ্খলার মধ্যে আনতে হবে : শিল্পমন্ত্রী         হজযাত্রী নিবন্ধনের সময় বাড়লো         আগামী ৫ জুন বাজেট অধিবেশন শুরু         বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ বাতিল         বন্যার্তদের পাশে রয়েছে সরকার ॥ ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী         নতুন সচিব ৮ মন্ত্রণালয়ে         বিদ্যুতের দাম ৫৮ শতাংশ বাড়ানোর সুপারিশ         ‘নিত্যপণ্যের দাম বাড়ার জন্য দায়ী আন্তর্জাতিক বাজার’         বঙ্গবন্ধু টানেলের টোল আদায় করবে চায়না কমিউনিকেশনস         খোলা বাজারে ডলারের দাম আজ ৯৯ টাকা         ঢাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী রোজেন বাহিনীর সেকেন্ড-ইন কমান্ড গ্রেফতার         দেশে আরও ২২ জনের করোনা শনাক্ত         করোনা নিয়ন্ত্রণে যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী         দেশে খাদ্যের কোনো ঘাটতি নেই ॥ খাদ্যমন্ত্রী         ১৯৮২ সালের পর যুক্তরাজ্যে সর্বোচ্চ মুদ্রাস্ফীতি