ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯

দুস্থ মাতাদের টাকা নিয়ে এনজিও কর্মী উধাও

প্রকাশিত: ১১:৫২, ৩১ জানুয়ারি ২০১৯

দুস্থ মাতাদের টাকা নিয়ে এনজিও কর্মী উধাও

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ দুস্থ মাতাদের সঞ্চয়ের লাখ লাখ টাকা ব্যাংকে জমা না দিয়ে কিছু এনজিও কর্মী ওই টাকা হাতিয়ে নিয়ে উধাও হয়েছে। নীলফামারীর কিশোরীগঞ্জ উপজেলায় এ ঘটনা নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি করেছে। সঞ্চয়ের ওই টাকা ফেরত পেতে এখন প্রতিদিন উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদফতর ধর্ণা দিচ্ছে দুস্থ মাতারা। মঙ্গলবার সরেজমিনে গেলে জানা যায়, উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ২০১৭-১৮ বছরের দুস্থ মাতার ভিজিডি কার্ডের আওতায় তিন হাজার ৪৪৭ জন সুবিধাভোগী ছিল। এসব নারীরা ২৪ মাস ওই কার্ডের মাধ্যমে সরকারীভাবে ৩০ কেজি করে বিনামূল্যে চালের সুবিধা ভোগের সময় নিয়ম অনুযায়ী প্রতি মাস ২৪০ টাকা করে সঞ্চয়ের জন্য জমা দেন। সূত্র মতে, আলোর পথে ও প্রতীক প্রগতি সংঘ নামে দুটি এনজিও দুস্থ মাতা কার্ডধারীদের নিকট হতে সঞ্চয়ের টাকা উত্তোলন করে ব্যাংকে জমা দিবে। কিন্তু এনজিও কর্মকর্তা ও কর্মীরা ব্যাংকে আংশিক টাকা জমা করে। অভিযোগ উঠেছে এনজিও প্রতীক প্রগতি সংঘের পরিচালক বীরেন চন্দ্র উপজেলার বড়ভিটা, পুটিমারী ও রণচন্ডি ইউনিয়নের দুস্থ নারীদের সঞ্চয়ের ৭ লাখ ১৩ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। অপর দিকে গাড়াগ্রাম ইউনিয়নের আলোর পথে এনজিও কর্মী সেলিনা পারভীন ৬ লাখ ৭৯ হাজার টাকা উত্তোলন করে ব্যাংকে জমাও করেননি। আলোর পথে এনজিওর কনসালটেন্ট সুলতান মাহমুদ জানান, আলোর পথে এনজিওর মাধ্যমে ৬টি ইউনিয়নের সুবিধাভোগীদের টাকা ব্যাংকে জমা করার চুক্তি হয়েছিল আমাদের।