রবিবার ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ নভেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

মারাত্মক অপরাধ

  • রেশমা খানম

সমাজে একশ্রেণীর অশিক্ষিত, মূর্খ ব্যবসায়ী দেশে ভেজাল ও নকল ওষুধ তৈরির সঙ্গে জড়িত। এটি একটি মারাত্মক অপরাধ। এই অপরাধপ্রবণতাকে রোধ করতে হবে। এই ধরনের ওষুধ সেবনে রোগী সুস্থ হওয়ার বদলে মৃত্যুবরণ করে। শিক্ষিত লোকজন সমাজের অশিক্ষিত লোকজন দিয়ে ভেজাল ওষুধ তৈরি করে থাকে। কারণ তারা এটা কি ওষুধ তা বুঝতে পারে না। সমাজের শিক্ষিত মানুষরাই অসাধু ব্যবসায়ীদের দিয়ে অল্প খরচে বেশি লাভ করার জন্য মানুষ হত্যায় পিছপা হয় না। এ বিষয়ে দেশবাসী সরকারের কাছে আশু দৃষ্টি কামনা করছে। সরকার পদক্ষেপ নিলেই দেশবাসী সুফল পাবে।

এ ছাড়াও অনেক ওষুধ বিক্রেতা মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রি করে থাকে। বলাবাহুল্য এ ধরনের ওষুধ রোগ প্রতিরোধে কোন ভূমিকা রাখতে পারে না। উল্টা এ ধরনের ওষুধ সেবনে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় মানুষ মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়তে থাকে। জীবন রক্ষাকারী ওষুধ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সমাজে তথা দেশবাসীকে উপহার দেয়ার জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।

অন্যদিকে দেশে তৈরি বহু ওষুধের মূল্য সাধারণ মানুষের ক্রয়ের নাগালের বাইরে। তাদের পক্ষে দেশে তৈরি অসাধারণ মূল্যমানের ওষুধ ক্রয় করে সেবন করা সম্ভব নয়। তাই দেশে তৈরি ওষুধের মূল্য কম রাখার জন্য সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। বিত্ত-বৈভবের মালিকগণ উচ্চ মূল্যের ওষুধ ক্রয় করতে পারে এবং বিদেশী ওষুধও ক্রয় করে খেতে পারে। এই দুটি দিক বিচার করলে দেখা যায়, সাধারণ মানুষ ওষুধ সেবনের অভাবে মৃত্যুবরণ করে। আর অধিক সম্পদের অধিকারী লোকজন দামী দামী ওষুধ সেবন করে ভালভাবে বেঁচে থাকে। অথচ গরিব লোকজন ওষুধের অভাবে অকালে মৃত্যুবরণ করে। যা একটি স্বাধীন, সার্বভৌম দেশে অনাকাক্সিক্ষত।প্রতিটি নাগরিকের কাছে স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে হলে এসব বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নিতেই হবে। দেশের প্রতিটি নাগরিককে কাজে লাগিয়ে ভেজালমুক্ত ওষুধ প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব। তা ছাড়াও দেশের সার্বিক উন্নতির জন্যও জনগণ একমাত্র চালিকাশক্তি।

প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারসহ জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে যে ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছেন, এ ধরনের পদক্ষেপ নিলে আমার বিশ্বাস এ দেশ ভেজাল ওষুধসহ সব ধরনের খাদ্যদ্রব্য ভেজালমুক্ত হবে। আমরা সবাই ওষুধ ক্রয় করার সময় ওষুধের মেয়াদ আছে কিনা তা পরীক্ষা করে ও জেনেশুনে ব্যবহার করি এবং মানুষের জীবন বাঁচাই, তাহলে এ দেশ একদিন উন্নত দেশের কাতারে আসবে এবং পরবর্তী প্রজন্ম এর সুফল জন্ম থেকে জন্মান্তরে ভোগ করবে। পাশাপাশি ওষুধসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দামও সহনীয় পর্যায়ে রাখা যাবে।

উত্তর বাসাবো, ঢাকা থেকে

শীর্ষ সংবাদ:
ওমিক্রন ঠেকাতে হবে ॥ করোনার আফ্রিকান ধরনে নতুন আতঙ্ক         বিশ্বকাপের মূলপর্বে বাংলাদেশের নারী ক্রিকেট দল         শিক্ষার্থীদের অবরোধ যানজট, ভোগান্তি         তেল চুরির নেশায় তারা ময়লাবাহী গাড়ি চালাত         এক হাজার ইউপি’তে আজ ভোট ॥ সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন         অর্থপাচার নিয়ে সংসদে ক্ষোভ, কমিশন দাবি         পারিবারিক আদালত অবমাননা ॥ কঠিন শাস্তি দিতে হবে         জাল রুপী তৈরি হয় পাকিস্তানে, পাচার হয় ভারতে         বরাদ্দ পেয়েও বাসায় উঠতে পারছেন না পুলিশ সদস্যরা         খালেদা জিয়ার মূল সমস্যা পরিপাকতন্ত্রে রক্তক্ষরণ ॥ ফখরুল         ২৭শ’ বছরের প্রাচীন প্রতœতাত্ত্বিক নিদর্শনের সন্ধান         অবৈধ দখলদারদের কবলে চট্টগ্রামের সড়ক ও ফুটপাথ         হেফাজতের নির্দোষ নেতাদের ছেড়ে দেয়া হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         ওমিক্রন ঠেকাতে সরকারকে যে পরামর্শ দেবে জাতীয় কমিটি         রবিবার তৃতীয় ধাপে এক হাজার ইউপিতে ভোট         গোষ্ঠীগত ও জমিজমার বিরোধে নির্বাচনী সহিংসতা : আইনমন্ত্রী         অর্থপাচারকারীদের নামের তালিকা চেয়েছেন অর্থমন্ত্রী         পঞ্চম ধাপে ৭০৭ ইউপিতে নির্বাচন আগামী ৫ জানুয়ারি         দ্বিতীয় বৈঠকও নিষ্ফল হাফ ভাড়া         সাবেক ডিসি সুলতানা পারভীনের শাস্তি বাতিল