বৃহস্পতিবার ১৩ কার্তিক ১৪২৮, ২৮ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

মারাত্মক অপরাধ

  • রেশমা খানম

সমাজে একশ্রেণীর অশিক্ষিত, মূর্খ ব্যবসায়ী দেশে ভেজাল ও নকল ওষুধ তৈরির সঙ্গে জড়িত। এটি একটি মারাত্মক অপরাধ। এই অপরাধপ্রবণতাকে রোধ করতে হবে। এই ধরনের ওষুধ সেবনে রোগী সুস্থ হওয়ার বদলে মৃত্যুবরণ করে। শিক্ষিত লোকজন সমাজের অশিক্ষিত লোকজন দিয়ে ভেজাল ওষুধ তৈরি করে থাকে। কারণ তারা এটা কি ওষুধ তা বুঝতে পারে না। সমাজের শিক্ষিত মানুষরাই অসাধু ব্যবসায়ীদের দিয়ে অল্প খরচে বেশি লাভ করার জন্য মানুষ হত্যায় পিছপা হয় না। এ বিষয়ে দেশবাসী সরকারের কাছে আশু দৃষ্টি কামনা করছে। সরকার পদক্ষেপ নিলেই দেশবাসী সুফল পাবে।

এ ছাড়াও অনেক ওষুধ বিক্রেতা মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রি করে থাকে। বলাবাহুল্য এ ধরনের ওষুধ রোগ প্রতিরোধে কোন ভূমিকা রাখতে পারে না। উল্টা এ ধরনের ওষুধ সেবনে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় মানুষ মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়তে থাকে। জীবন রক্ষাকারী ওষুধ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সমাজে তথা দেশবাসীকে উপহার দেয়ার জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।

অন্যদিকে দেশে তৈরি বহু ওষুধের মূল্য সাধারণ মানুষের ক্রয়ের নাগালের বাইরে। তাদের পক্ষে দেশে তৈরি অসাধারণ মূল্যমানের ওষুধ ক্রয় করে সেবন করা সম্ভব নয়। তাই দেশে তৈরি ওষুধের মূল্য কম রাখার জন্য সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। বিত্ত-বৈভবের মালিকগণ উচ্চ মূল্যের ওষুধ ক্রয় করতে পারে এবং বিদেশী ওষুধও ক্রয় করে খেতে পারে। এই দুটি দিক বিচার করলে দেখা যায়, সাধারণ মানুষ ওষুধ সেবনের অভাবে মৃত্যুবরণ করে। আর অধিক সম্পদের অধিকারী লোকজন দামী দামী ওষুধ সেবন করে ভালভাবে বেঁচে থাকে। অথচ গরিব লোকজন ওষুধের অভাবে অকালে মৃত্যুবরণ করে। যা একটি স্বাধীন, সার্বভৌম দেশে অনাকাক্সিক্ষত।প্রতিটি নাগরিকের কাছে স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে হলে এসব বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নিতেই হবে। দেশের প্রতিটি নাগরিককে কাজে লাগিয়ে ভেজালমুক্ত ওষুধ প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব। তা ছাড়াও দেশের সার্বিক উন্নতির জন্যও জনগণ একমাত্র চালিকাশক্তি।

প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারসহ জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে যে ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছেন, এ ধরনের পদক্ষেপ নিলে আমার বিশ্বাস এ দেশ ভেজাল ওষুধসহ সব ধরনের খাদ্যদ্রব্য ভেজালমুক্ত হবে। আমরা সবাই ওষুধ ক্রয় করার সময় ওষুধের মেয়াদ আছে কিনা তা পরীক্ষা করে ও জেনেশুনে ব্যবহার করি এবং মানুষের জীবন বাঁচাই, তাহলে এ দেশ একদিন উন্নত দেশের কাতারে আসবে এবং পরবর্তী প্রজন্ম এর সুফল জন্ম থেকে জন্মান্তরে ভোগ করবে। পাশাপাশি ওষুধসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দামও সহনীয় পর্যায়ে রাখা যাবে।

উত্তর বাসাবো, ঢাকা থেকে

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
২৪৫৪০৪৪৯৬
আক্রান্ত
১৫৬৮৫৬৩
সুস্থ
২২২৪৫৬৫৬৯
সুস্থ
১৫৩২৪৬৮
শীর্ষ সংবাদ:
সেনাবাহিনী বহির্বিশ্বে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে         ইংল্যান্ডের কাছে বড় ব্যবধানে হার বাংলাদেশের         নীলনক্সা লন্ডনে         ‘গরিবের আইনজীবী’ বাসেত মজুমদারের ইন্তেকাল         পাটুরিয়ায় তলদেশ দিয়ে পানি ঢুকে ফেরিডুবি         দেশে প্রতি চারজনে একজন স্ট্রোকে আক্রান্ত         মূল্যস্ফীতি সরকারের নিয়ন্ত্রণে ॥ অর্থমন্ত্রী         প্রধানমন্ত্রীর প্রণোদনা প্যাকেজে অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়িয়েছে         জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর চিন্তা ॥ জনজীবনে চাপ পড়ার শঙ্কা         বাবুলের মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদনে নারাজির শুনানি         কুমিল্লার ঘটনায় জড়িতদের শনাক্ত করা হচ্ছে         হামলা করে সার্বভৌমত্ব হুমকির মধ্যে ফেলে দেয়া হয়েছে         ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পে কোন ফাটল সৃষ্টি হয়নি         বৃহস্পতিবার গণটিকার দ্বিতীয় ডোজ         ১ ফেব্রুয়ারিতে হচ্ছে না এসএসসি পরীক্ষা : শিক্ষামন্ত্রী         বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প পুরস্কার পাচ্ছে ২৩ প্রতিষ্ঠান         করোনা: গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৭, নতুন শনাক্ত ৩০৬         কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে ১৮ দিন         গুলশানে ট্রান্সফরমার বিস্ফোরণ, শিশুসহ দগ্ধ ৪         টেকসই উন্নয়নের জন্য চাই ঐক্যবদ্ধ সামাজিক শক্তি