মঙ্গলবার ১২ মাঘ ১৪২৮, ২৫ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

৩০ অক্টোবরের পর যে কোন দিন নির্বাচনের তফসিল

  • জানালেন ইসি সচিব

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ৩০ অক্টোবরের পর যে কোন দিন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল হতে পারে। সে অনুযায়ী প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ। তিনি বলেন, কমিশন আশা করে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সব রাজনৈতিক দল অংশ নেবে। প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দল নির্বাচনের জন্যই রাজনীতি করে। আশা করি আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রত্যেকটি দল অংশ নেবে উল্লেখ করেন।

সোমবার আগারগাঁও নির্বাচন ভবনের নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এই মন্তব্য করেন। বলেন, অক্টোবরের পর কাউন্ট ডাউন শুরু হয়ে যাবে। ৩০ অক্টোবরের পর যেকোন সময় নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা হতে পারে। নির্বাচন কমিশনই এ নিয়ে কমিশন সভায় সিদ্ধান্ত নেবে।

তিনি বলেন, একাদশ সংসদ নির্বাচনে ৪০ হাজার ভোট কেন্দ্রে প্রায় দুই লাখ ভোটকক্ষ থাকবে। এক্ষেত্রে ৪০ হাজার প্রিজাইডিং অফিসারসহ সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার, পোলিং অফিসার নিয়ে কয়েক লাখ ভোট গ্রহণ কর্মকর্তার প্রয়োজন হতে পারে। জাতীয় নির্বাচন অনেক বড় একটি কাজ। তফসিল ঘোষণার আগে যেসব কাজ থাকে তার ৮০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। তফসিল ঘোষণার পর ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের তালিকা প্রনয়ণ করা এবং তাদের যথাযথ প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। নির্বাচনের আগে অনেকেই বদলি হতে পারেন বা অবসরে যেতে পারেন। আমরা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর আপডেট পাব। এবার প্রায় ৭ লাখের মতো ভোটগ্রহণ কর্মকর্তার প্রয়োজন হবে বলেও জানান ইসি সচিব।

তিনি বলেন, ভোটগ্রহণের ২৫ দিন আগে কেন্দ্রের চূড়ান্ত তালিকার গেজেট প্রকাশ করা হবে। নির্বাচনের প্রস্তুতি হিসেবে ৩শ’ সংসদীয় আসনের সীমানা পুননির্ধারণ, ১০ কোটি ৪১ লাখ ভোটারের তালিকার কাজ শেষ হয়েছে। ভোটার তালিকার সিডি করা হয়েছে। আগামী ২৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব জেলা এবং উপজেলাতে এই সিডি পাঠিয়ে দেয়া হবে। গত ৫ আগস্ট ভোটকেন্দ্রের খসড়া তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। দাবি আপত্তি শুনানি শেষে ভোটকেন্দ্র নীতিমালা অনুসারে সব ঠিক করে ৬ সেপ্টেম্বর মাঠপর্যায়ে চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়। এখন সেগুলো কমিশনে পাঠাবে। তারপর সেগুলো যাচাই-বাছাই করে নির্বাচনের ২৫ দিন আগে ভোটকেন্দ্রের গেজেট প্রকাশ করা হবে।

গেজেট প্রকাশ করা হবে কমিশন থেকে। গেজেট প্রকাশের পর কোন ভোটকেন্দ্র তালিকাভুক্ত করা কিংবা ব্যবহার করা যাবে না। জেলা ও উপজেলা থেকে যে কেন্দ্রগুলো ইসিতে পাঠাবে সেগুলো পরীক্ষা করে দেখা হবে যে, সেগুলো নীতিমালা অনুসারে করা হয়েছে কি না।

সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনী অনুযায়ী, সংসদের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগের ৯০ দিনের মধ্যে সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বর্তমান দশম সংসদের প্রথম অধিবেশন হয়েছিল ২০১৪ সালের ২৯ জানুয়ারি। সে হিসাবে বর্তমান সরকারের মেয়াদ ২০১৯ সালের ২৮ জানুয়ারি শেষ হবে। আর ভোটের ৯০ দিনের ক্ষণ গণনা শুরু হবে ৩০ অক্টোবর থেকে। ৩০ অক্টোবর থেকে ২৮ জানুয়ারির মধ্যে সংসদ নির্বাচনের আয়োজন করতে হবে। ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে ভোটের সময় ধরে সব ধরনের প্রস্তুতি এগিয়ে নেয়ার কথা ইসি সচিব এর আগে জানিয়েছেন।

আরপিও সংশোধন বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে জবাবে বলেন, এটা কোন গোপনীয় বিষয় নয়। আরপিও সংশোধন প্রস্তাব ভেটিংয়ের জন্য আইনমন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। ভেটিং অনুমোদন হলে মন্ত্রিসভায়, পার্লামেন্টে পাস হবে। তারপর সবাই জানতে পারবেন। সবকিছু আগে থেকে জানাতে হবে এমন তো কোন প্রবিধান নাই।

শীর্ষ সংবাদ:
ব্রিটেনে পাঁচ বাঙালীর নামে পাঁচটি নতুন ভবন উৎসর্গ         ৪০২ দিন পর খেলতে নামলেন মাশরাফি         ইউক্রেন বিষয়ে পশ্চিমা নেতাদের সঙ্গে আলোচনা ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর         প্রথমবারের মত দক্ষিণ কোরিয়ায় দৈনিক সংক্রমণ ৮ হাজার ছাড়িয়েছে         ভারতে গাড়ি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ৭ মেডিকেল শিক্ষার্থী নিহত         ওমিক্রনে শিশুদের ঝুঁকি বাড়ছে         ‘জাতিসংঘে চিঠি শান্তিরক্ষা মিশনে প্রভাব ফেলবে না’         রাজশাহীতে করোনায় ৩ জনের মৃত্যু, শনাক্তের হার ৫৫.৭৮%         ক্যামেরুনের স্টেডিয়ামে খেলা চলাকালে হুড়োহুড়িতে ছয় দর্শকের মৃত্যু         এবার র‌্যাবকে নিষিদ্ধ করতে ইইউতে চিঠি         ‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ দেশের তালিকায় বাংলাদেশ ১৩তম         গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন ৫ হাজার ৯২২ জন         ইন্দোনেশিয়ায় জাতিগত সংঘাতে ১৯ জন নিহত         কমতে পারে রাতের তাপমাত্রা         আজ বাংলাদেশ-রাশিয়া সম্পর্কের ৫০ বছর         আগুন যেন অপ্রতিরোধ্য ॥ একের পর এক দুর্ঘটনা ঘটেই চলেছে         শাবি ভিসির পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলন অব্যাহত         উলন বিদ্যুত উপকেন্দ্র পুড়ে ছাই         ইসি গঠনের বিলে দুই পরিবর্তনের সুপারিশ         খাদ্য মজুদ ২০ লাখ টন ছাড়িয়েছে