বৃহস্পতিবার ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

খালেদার এ্যাকাউন্টে দিনে ১০ লাখ ভোট জমা হচ্ছে ॥ মওদুদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সবকিছু ঠিক থাকলে রবিবার খালেদা জিয়া মুক্তি পাবেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আইনী লড়াইয়ের পাশাপাশি আন্দোলনও চলবে। শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে এ সরকারকে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে বাধ্য করা হবে। শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক দলের ‘খালেদা জিয়া মুক্তি পরিষদ’ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মওদুদ বলেন, খালেদা জিয়া জেল থেকে বের হওয়ার পরই আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারে নামবে বিএনপি। এক্ষেত্রে ইসির কোন আপত্তি মানা হবে না। তিনি বলেন, নির্বাচনে নিশ্চিত পরাজয় বুঝেই বিরোধী মতকে দমন করতে চাইছে সরকার। আর বিএনপি যখন খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য মাঠে নেমেছে, তখনই সরকারী টাকায় আওয়ামী লীগ নির্বাচনী প্রচার শুরু করেছে। লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করতে নির্বাচন কমিশন ব্যর্থ হয়েছে। আওয়ামী লীগ যদি সভা করে নৌকায় ভোট চাইতে পারে, তাহলে বিএনপিও জনসভা করে ধানের শীষে ভোট চাইতে পারে।

মওদুদ বলেন, বর্তমান সরকার এখন দারুণ বেকায়দায় রয়েছে। আর বন্দী খালেদা জিয়ার জন্য প্রতিদিন ১০ লাখ ভোট বিএনপির এ্যাকাউন্টে জমা হচ্ছে। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের এ্যাকাউন্ট থেকে ১০ লাখ ভোট মাইনাস হচ্ছে। তারা যতদিন খালেদা জিয়াকে বন্দী রাখবে বিএনপি এবং খালেদা জিয়া তত বেশি জনপ্রিয় হবে।

মওদুদ বলেন, এ সরকার খালেদা জিয়াকে চরম ভয় পায়। আর সে কারণেই আরেকটি ভোটারবিহীন নির্বাচন করার জন্য ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে একটি হাস্যকর মামলায় তাকে কারাদ- দেয়া হয়েছে। আওয়ামী লীগ সবসময় ভিন্ন পথে ক্ষমতায় যেতে চায়। ওয়ান-ইলেভেনের মঈনুদ্দিন-ফখরুদ্দিনের আমলে একজন আপোস করেই ক্ষমতায় বসে গেছেন। সেদিন যদি খালেদা জিয়া আপোস করতেন তাহলে আজ শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রীর চেয়ারে বসতে পারতেন না। আমাদের নেত্রী অন্যায়ের সঙ্গে আপোস করেননি।

জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক দলের সভাপতি ও খালেদা মুক্তি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির বেপারীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব) রুহুল আলম চৌধুরী, বিএনপির স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক শিরীন সুলতানা, খালেদা জিয়া মুক্তি পরিষদের সহ-সভাপতি মোঃ মঞ্জুর হোসেন ঈসা প্রমুখ।

খালেদা জিয়া সুবিচার পাননি- নজরুল ॥ বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া সুবিচার পাননি বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ২০ দলীয় জোটের শরিক দল জাগপা আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

নজরুল বলেন, এ সরকারের আমলে কেউ সুবিচার পাবে কি না তা সন্দেহ রয়েছে। আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছি গণতন্ত্রের জন্য, সুশাসন ও অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য। কিন্তু আজ দেশে সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের অর্থনৈতিক সমস্যা রয়েছে। খুন-গুম, হামলা-মামলা ও নারী নির্যাতনে ভরে গেছে দেশ।

নজরুল বলেন, কেন বিএনপি ভাঙ্গছে না, এজন্য সরকার আজ অসন্তুষ্ট। খালেদা জিয়ার রায়কে ঘিরে যদি আমরা গাড়িতে ঢিল দিতাম, কাচ ভাঙ্গতাম ওই সুযোগে আওয়ামী লীগ বাসে আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে আমাদের নেতাকর্মীদের নামে মামলা দিত। অতীতে তাই করেছে। এবার সে সুযোগ না পাওয়ায় মনোক্ষুণœ তারা।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক রেহেনা প্রধানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে নজরুল ইসলাম আরও বলেন, খালেদা জিয়া আজ কারাগারে। তার মন ভাঙ্গার জন্য ইচ্ছা করে তাকে কারাগারে রেখেছে। কিন্তু আইনের প্রতি শ্রদ্ধা আছে বলেই তিনি কারাগারে গেছেন। তারপরও তিনি আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচী পালনের নির্দেশ দিয়েছেন। শুধু নেত্রীর নির্দেশেই আমরা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচী পালন করছি।

নজরুল বলেন, এ সরকারের আমলে প্রধান বিচারপতিকে পদত্যাগ করতে বাধ্য করা হয়েছে। পদত্যাগ এর পরে দেশ ছাড়তে বাধ্য করা হয়। আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়া আদালতে বলেছেন, যারা শেয়ার মার্কেট, ব্যাংক লুট করছে সুইচ ব্যাংকে টাকা জমিয়েছে। তাদের কোন বিচার হয় না এবং তদন্তও হয় না।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, খালেদা জিয়া কোন দোষ করেনি। তিনি জনগণের উদ্দেশে বলেছেন কোন দুর্নীতি করেননি। তিনি বলেন, বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া তিনটি কারণে কারাগারে ডিভিশন পান। কিন্তু তাকে ডিভিশন দেয়া হয়নি। তার প্রতি অন্যায় করা হয়েছে। তিনদিন পর তাকে ডিভিশন দেয়া হয়। তাকে কষ্ট দিয়ে এবং মনোবল ভেঙ্গে দেয়া জন্যই এসব ঘটনা ঘটানো হয়েছে।

সরকার আবারও বাকশাল কায়েমের পরিকল্পনা করছে- ফারুক ॥ দেশে আবারও বাকশালী কায়দায় ক্ষমতা কুক্ষিগত করার পাঁয়তারা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক। তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালে ২ মিনিটে সংসদে আওয়ামী লীগ সরকার বাকশাল কায়েম করেছিল। খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে তারা আবারও বাকশাল কায়েমের পরিকল্পনা করছে। শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলন’ আয়োজিত এক মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, যুগ্ম মহাসচিব এ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল, ন্যাপ মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভূইয়া প্রমুখ।

শীর্ষ সংবাদ:
গণমুখী প্রশাসন ॥ স্বাধীনতার ৫০ বছরে বড় অর্জন         ছাত্রদের কাজ লেখাপড়া, রাস্তায় নেমে যান ভাংচুর নয়         উন্নয়নে পাকিস্তানকে পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশ         ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নেতৃত্বের ভূমিকায় থাকবে         ১১ খাতে বিপুল বিনিয়োগ আসার সম্ভাবনা         ঐতিহাসিক পার্বত্য শান্তি চুক্তিতে বদলে গেছে পাহাড়         রামপুরায় ছাত্র বিক্ষোভ, মতিঝিলে গাড়ি ভাংচুর         দেশের প্রথম বর্জ্য বিদ্যুত কেন্দ্র অবশেষে বাস্তবায়ন হচ্ছে         বাল্যবিয়ে রোধে কাজীদের সচেতন করতে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে         হত্যা মিশনে ব্যবহৃত গুলি-অস্ত্র উদ্ধার         শ্রদ্ধা ভালবাসায় জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের চিরবিদায়         সুপ্রীমকোর্টে শারীরিক উপস্থিতিতে বিচার কাজ শুরু         খালেদা জিয়াকে স্তব্ধ করে দিতে চায় সরকার ॥ ফখরুল         মুক্তিপণের টাকা আদায় হচ্ছিল মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে         সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে লাল সবুজের মহোৎসবে মুখরিত হাতিরঝিল         ৯০ কার্যদিবসে সম্প্রীতি বিনষ্টের মামলা নিষ্পত্তি করতে হবে         এইচএসসি ও আলিম পরীক্ষা উপলক্ষে যে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ডিএমপি         আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমলে ব্যবস্থা নেবো : অর্থমন্ত্রী         হৃদরোগ ঝুঁকি হ্রাসে সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় আরও ২ জনের মৃত্যু