রবিবার ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৯ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

নতুন ধারাবাহিক ‘সিনেমা হল’

নতুন ধারাবাহিক ‘সিনেমা হল’

সংস্কৃতি ডেস্ক ॥ স্যাটেলাইট চ্যানেল এটিএন বাংলায় সম্প্রতি প্রচার শুরু হয়েছে নতুন ধারাবাহিক নাটক ‘সিনেমা হল’। বাংলা চলচ্চিত্রের বর্তমান এবং অতীতের বাস্তব চিত্রের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ কাহিনি অবলম্বনে নাটকটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন কচি খন্দকার। নাটকটি সপ্তাহে প্রতি বুধ ও বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় এটিএন বাংলার পর্দায় প্রচার হবে।

রেজ মিডিয়া প্রযোজিত ‘সিনেমা হল’ নাটকের বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন- মোশাররফ করিম, তারিক আনাম খান, আবুল হায়াত, ফারুক আহম্মেদ, চিত্রনায়ক ইমন, শর্মিলী আহম্মেদ, চিত্রলেখা গুহ, নাদিয়া নদী, মিলন ভট্টাচার্য, আনোয়ার শাহী, সিদ্দিক মাস্টার, সৈকত প্রামানিক, হিমে হাফিজ, মজিবর, আফরোজা, সূচনা, আরিফুর রহমান প্রমুখ।

সিনেমা হল। নামটা শুনলেই অনেকগুলো চরিত্র চোখের সামনে ভেসে ওঠে। লাইটম্যান, গেটম্যান, টিকেট বিক্রেতা, ম্যানেজার, সুপারভাইজার, মেশিনম্যান, হলের মালিক ও তাদের পরিবার-পরিজন, হলের সামনের সাইকেল স্ট্যান্ড, দোকানদার, বাদামওয়ালা এমনকি কালোবাজারিসহ নানা পেশার, নানা শ্রেণীর মানুষ। এসব মানুষের চরিত্রগুলোকে নিয়েই তৈরি হয়েছে নতুন ধারাবাহিক নাটক ‘সিনেমা হল’। সিনেমা হল নাটকের গল্পটি বর্তমান সময়ের হলেও নাটকে বারবার ফিরে যাওয়া হয়েছে সত্তর দশক অথবা আশির দশকে যখন সিনেমা হলের ভাল সময় ছিল, সুপারহিট সিনেমার রমরমা ব্যবসা ছিল। তখন সিনেমা হলের কর্মচারীদের মনে সুখ ছিল, শান্তি ছিল সমৃদ্ধি ছিল। কালক্রমে সেই সিনেমা হল বাংলাদেশের অন্য সিনেমা হলগুলোর মতো বিবর্ণ হলো, শীর্ণ, রুগ্ন হয়ে উঠেছে। সিনেমা হলে দর্শক নেই, সুপারহিট ছবি নেই, অসংখ্য সঙ্কট আর সমস্যা।

তবে নাটকের গল্প শুধু সিনেমা হলের মধ্যেই সিমাবদ্ধ থাকবে না। সিনেমা হল থেকে চলে আসবে বিএফডিসিতে। এখানকার হাল-হকিকতও তুলে ধরা হয়েছে নাটকের মাধ্যমে। এই নাটক শুধু অতীত বা বর্তমানের নাটক নয়। ভবিষ্যতে যাতে সিনেমার বিস্তার, উন্নতি, রমরমা অবস্থা তৈরি হয় সেই বিষয়টিও এই নাটকে উঠে আসবে।

শীর্ষ সংবাদ: