শুক্রবার ২০ ফাল্গুন ১৪২৭, ০৫ মার্চ ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

রাজধানীতে প্রতারক চক্রের পাঁচ সদস্য গ্রেপ্তার

রাজধানীতে প্রতারক চক্রের পাঁচ সদস্য গ্রেপ্তার

অনলাইন রিপোর্টার ॥ লোভনীয় চাকরি ও ব্যবসায় অংশীদারত্বের প্রলোভন দেখিয়ে টাকা আত্মসাৎকারী চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। পিবিআই বলছে, মূলত অবসরপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের ফাঁদে ফেলে তাঁদের দীর্ঘদিনের সঞ্চয় হাতিয়ে নিত এই চক্র।

আজ শনিবার আগারগাঁওয়ে পিবিআইর ঢাকা মেট্রোর কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন জানানো হয়, গতকাল শুক্রবার পল্লবীর একটি বাসা থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার পাঁচজন হলেন মো. হারুন অর রশিদ, সনজ সাহা, শামছুল আলম মজুমদার, আমিনুল ইসলাম ও মো. মোকসেদুর রহমান।

সংবাদ সম্মেলনে পিবিআই জানায়, এখন পর্যন্ত ১২ জন ব্যক্তি এই চক্রের হাতে প্রতারিত হয়েছেন বলে পিবিআইকে জানিয়েছেন। এঁদের মধ্যে অবসরপ্রাপ্ত সচিব, যুগ্ম সচিব, ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ছাড়াও উচ্চ পদস্থ আরও কর্মকর্তা রয়েছেন। শুধুমাত্র এক যুগ্ম সচিবের কাছ থেকেই এই চক্রটি এক কোটি ৪৮ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

পিবিআইর অতিরিক্ত ডিআইজি মো. মাইনুল হাসান (পূর্ব) বলেন, আটক আসামিরা প্রথমে জাতীয় দৈনিকে ভুয়া প্রতিষ্ঠানের নামে চাকরির বিজ্ঞাপন দিত। ওই বিজ্ঞাপনে অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংকার, আর্মি ও সিভিল অফিসারদের প্রাধান্য দেওয়ার কথা আলাদা করে উল্লেখ থাকত। বিজ্ঞাপন দেখে আগ্রহীরা যোগাযোগ করলে সেখান থেকে তাঁরা টার্গেট নির্ধারণ করতেন। এরপর সহযোগীদের মাধ্যমে তাঁদের নিজেদের সাজানো অফিসে নিয়ে যাওয়া হতো।

মাইনুল বলেন, চক্রটি অফিসে পরিকল্পনা অনুযায়ী তাঁদেরই আরেক সহযোগীকে স্যুট, টাই ও মাথায় হ্যাট পরিয়ে নিয়ে আসতেন। অনর্গল হিন্দিতে কথা বলে নিজেকে মাড়োয়ারি ব্যবসায়ী বলে পরিচয় দিতেন। একপর্যায়ে তাঁরা ওই ব্যক্তিকে সঙ্গে নিয়েই তাস খেলা শুরু করতেন। খেলায় ভারতীয় ব্যবসায়ীকে হারিয়ে লাখ লাখ টাকা জিতেছে বলে দেখানো হতো। এভাবে টার্গেটে থাকা চাকরিপ্রার্থীদের কৌশলে আস্থায় নিয়ে এসে ব্যবসার অংশীদার হওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হতো। কথামতো ওই ব্যক্তি টাকা নিয়ে গেলে চক্রের সদস্যরা টাকা রেখে তাঁকে পরবর্তীতে যোগাযোগ করতে বলে বিদায় করে দিতেন। এরপর চক্রটি অফিসের জিনিসপত্র গুটিয়ে অন্যত্র চলে যেতো।

পিবিআই ঢাকা মেট্রোর বিশেষ পুলিশ সুপার মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, এখন পর্যন্ত ১২ জন প্রতারিত হয়েছেন বলে অভিযোগ নিয়ে এসেছেন। তবে এই সংখ্যাটি আরও বেশি বলে তাদের ধারণা। গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

শীর্ষ সংবাদ:
সুবিধা পাবে এক কোটি মানুষ ॥ স্থায়ী সামাজিক নিরাপত্তার আওতা বাড়ছে         প্রধানমন্ত্রী করোনার টিকা নিলেন         কেউ অবহেলার চোখে দেখতে পারবে না ॥ প্রধানমন্ত্রী         মুশতাকের মৃত্যু স্বাভাবিক ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে সমস্যা আলোচনায় সমাধান করা উচিত         তদন্তের আগে কাউকে গ্রেফতার করা যাবে না         ব্যবসায়ী মহলে নির্বাচনী উৎসবের আমেজ         কানেক্টিভিটি নিয়ে কাজ করলে পুরো অঞ্চল বদলে যাবে         কয়েকটি দেশের ভিসার জন্য করোনা টিকা বাধ্যতামূলক হচ্ছে         করোনায় দেশে আরও ৭ জনের মৃত্যু         অটোমোবাইল উৎপাদনের আঞ্চলিক কেন্দ্র্র হবে বাংলাদেশ ॥ শিল্পমন্ত্রী         পৌর নির্বাচন অবাধ নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন         নারীবিরোধী প্রচারণা বন্ধে সম্মিলিত প্রতিরোধের আহ্বান         শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ইউজিসির মুখোমুখি বেরোবি উপাচার্য         বনানীতে চিরনিদ্রায় শায়িত এইচ টি ইমাম         প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে সমস্যা আলোচনায় সমাধান করা উচিত : প্রধানমন্ত্রী         করোনার ভ্যাকসিন নিলেন প্রধানমন্ত্রী         কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু স্বাভাবিক : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         বনানীতে চিরনিদ্রায় শায়িত এইচ টি ইমাম         সময় ও অর্থ মামলা মোকদ্দমায় নয় দেশের উন্নয়নে ব্যয় করুন : এলজিআরডি মন্ত্রী