ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯

নেইমারকে ছাপিয়ে নায়ক এবার কাভানি

প্রকাশিত: ০৪:৫৭, ২৭ আগস্ট ২০১৭

নেইমারকে ছাপিয়ে নায়ক এবার কাভানি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শিরোপা পুনরুদ্ধারের লক্ষ্যে মৌসুমের শুরু থেকেই এবার দুর্দান্ত প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি)। শুক্রবার সেন্ট এতিয়েনের বিপক্ষেও অনায়াস জয় পেয়েছে উনাই এমেরির শিষ্যরা। তবে দলের এই মুহূর্তের সবচেয়ে আলোচিত তারকা নেইমারকে টপকে এদিন আলো ছড়িয়েছেন এডিনসন কাভানি। পিএসজির উরুগুইয়ান স্ট্রাইকারের জোড়া গোলের সৌজন্যেই পিএসজি এদিন নিজেদের মাঠে ৩-০ ব্যবধানে পরাজিত করেছে সেন্ট এতিয়েনকে। প্রতিপক্ষের বিপক্ষে বাকি গোলটি করেছেন থিয়াগো মোত্তা। স্পেনের জায়ান্ট ক্লাব বার্সিলোনা থেকে ২২২ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে ফ্রেঞ্চ লীগ ওয়ানে নতুন করে ঠিকানা গড়েন নেইমার। পিএসজিতে যোগ দেয়ার পর প্রথম দুই ম্যাচেই নজর কেড়েছেন তিনি। দুই ম্যাচে তিন গোল করে গোটা বিশ্বকেই প্রমাণ করেছেন তিনি কেন বিশ্বের সবচেয়ে দামী ফুটবলার? তবে সেন্ট এতিয়েনের বিপক্ষে ম্যাচে নেইমারকে ছাপিয়ে ম্যাচের মূল আকর্ষণে পরিণত হয়েছিলেন কাভানি। ম্যাচ শুরুর ২০ মিনিটেই কাভানির পেনাল্টিতে করা গোলে এগিয়ে যায় পিএসজি। এরপর এই গোলেই এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা। দ্বিতীয়ার্ধেও দুর্বার উনাই এমেরির দল। এবার ব্রাজিলিয়ান সেনসেশন নেইমারের ফ্রি-কিকে পিএসজির গোল ব্যবধান দ্বিগুণ করেন থিয়াগো মোত্তা। ম্যাচের শেষ মুহূর্তে কাভানির দ্বিতীয় গোলে সহজ জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে স্বাগতিকরা। একইসঙ্গে চার ম্যাচে চারটিতেই জয় নিয়ে পিএসজি মৌসুমের শুরুটাও নিজেদের করে রাখলো। গত কয়েক মৌসুম ধরেই ফ্রেঞ্চ লীগ ওয়ানে রাজত্ব করছে পিএসজি। কিন্তু গত মৌসুমে তাদের হতাশায় ডুবিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় মোনাকো। এবার শিরোপা পুনরুদ্ধারে মরিয়া প্যারিসের এই জায়ান্ট ক্লাবটি। শুরুটাও করেছে ঠিক সেভাবেই। মৌসুমের প্রথম তিন ম্যাচের তিনটিতেই জয়। দারুণ ফুরফুরে মেজাজ নিয়েই পার্ক ডি প্রিন্সেসে সেন্ট-এতিয়েনের মুখোমুখি হয় তারা। মূল একাদশে এদিন এমেরি বিশ্রামে রেখেছিলেন নেইমারের ব্রাজিলিয়ান সতীর্থ দানি আলভেজ এবং থিয়াগো সিলভাকে। গত সপ্তাহে তুলুজের বিপক্ষে ৬-২ গোলের বড় ব্যবধানের জয়ের ম্যাচটিতে লালকার্ড পাওয়া মার্কো ভেরাত্তি এদিন নিষিদ্ধ ছিলেন। ঐ ম্যাচে দুর্দান্ত গোল করা জাভিয়ের পাস্তোরকে মূল একাদশে খেলার সুযোগ দেন। অন্যদিকে সেন্ট এতিয়েন এদিন পাঁচজন ডিফেন্ডার নিয়ে খেলেছে। কিন্তু ২০ মিনিটে বিতর্কিত পেনাল্টি পিএসজিকে এগিয়ে দেয়। নেইমারের পাস থেকে গোল এরিয়ার মধ্যে কাভানি এগিয়ে গেলে সাইডি জানকোর সঙ্গে হাল্কা ধাক্কা লেগে পড়ে গেলে পেনাল্টির নির্দেশ দেন রেফারি। স্পট কিক থেকে এবারের মৌসুমের চতুর্থ গোল করেন কাভানি। এরপর জোনাথন বাম্বার শট পিএসজি গোলরক্ষক আলফোন্সে আরেয়োলা আটকে দিলে এক গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় পিএসজি। বিরতির ছয় মিনিট পর নেইমারের ফ্রি-কিক থেকে মারকুইনহোসের সহায়তায় ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মোত্তা। গত বছর জানুয়ারির পরে এটা মোত্তার দ্বিতীয় গোল। ৮৯ মিনিটে এ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া ফ্রি-কিক পোস্টে লেগে ফেরত আসলে কাভানি দ্বিতীয় গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেন। ম্যাচ শেষে শিষ্যদের পারফর্মেন্সে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন পিএসজির কোচ। এ বিষয়ে উনাই এমেরি বলেন, ‘এই ম্যাচের পর আমরা টেবিলের শীর্ষে থাকার লক্ষ্য অর্জন করতে পেরেছি। কিভাবে নিজেদের উন্নতি করতে হবে এই ম্যাচের মাধ্যমে আমরা আরও অনেক কিছুই জানতে পেরেছি।’