ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

কোরবানির পশু জবাইয়ে ৬২৫টি স্থান নির্ধারণ

প্রকাশিত: ০৪:৫৩, ২৪ আগস্ট ২০১৭

কোরবানির পশু জবাইয়ে ৬২৫টি স্থান নির্ধারণ

অনলাইন রিপোর্টার ॥ ঢাকা দক্ষিণের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বৃহস্পতিবার দুপুরে নগর ভবনে কোরবানির বর্জ্য ব্যবস্থাপনাবিষয়ক এক মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দেন। এবার কোরবানির পশু জবাইয়ে ৬২৫টি স্থান নির্ধারণ করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। এসব স্থানের তালিকা ডিএসসিসির ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। প্রতিটি স্থানে কোরবানি পরিচালনায় একজন করে ইমাম অথবা কসাই থাকবেন। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে নগর ভবনে কোরবানির বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিষয়ক এক মতবিনিময় সভায় এ তথ্য জানান ডিএসসিসির মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। তিনি বলেন, কোরবানির বর্জ্য অপসারণের জন্য ইতিমধ্যে ডিএসসিসির সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয়ে দেড় লাখ ব্যাগ পাঠানো হয়েছে। এর সঙ্গে ব্লিচিং পাউডার ও সেভলনও দেওয়া হবে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কোরবানির বর্জ্য অপসারণে হটলাইন নম্বর ০৯৬১১০০০৯৯৯ চালু করা হয়েছে। নাগরিকেরা এই নম্বরে কল দিয়ে বর্জ্য অপসারণের জন্য বলতে পারবেন। বৃষ্টিতে কোরবানির পশু জবাই না করতে নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে সাঈদ খোকন বলেন, গত বছর ঈদুল আজহার দিন সকাল থেকেই বৃষ্টি ছিল। এর মধ্যে ঈদের নামাজের পর বাসাবাড়ির নিচে ও ফুটপাতে কোরবানির পশু জবাই শুরু করেন বাসিন্দারা। এতে পশুর রক্ত পানিতে মিশে সড়কে ছড়িয়ে পড়েছে। দেখে মনে হয়েছে, ঢাকা শহর রক্তের বন্যায় ভেসে গেছে। এতে বাতাসে দুর্গন্ধ ছড়িয়েছে। পরে অনেকেই বিষয়টি নিয়ে সমালোচনা করেছেন। লেখক ও গবেষক সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেন, ডিএসসিসির একার পক্ষে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করা সম্ভব নয়। তাই রাজধানীর প্রত্যেককে সহযোগিতা করতে হবে। সভায় ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিলাল, স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন, ডিএসসিসির ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাসিবুর রহমান, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা শফিকুল আলম প্রমুখ বক্তব্য দেন।
monarchmart
monarchmart