রবিবার ৫ আশ্বিন ১৪২৭, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বিজিএমইএ ভবন ১ মিনিটেই ভাঙা হবে

বিজিএমইএ ভবন ১ মিনিটেই ভাঙা হবে

অনলাইন রিপোর্টার ॥ রাজধানীতে ১৫ তলা বিজিএমইএ ভবনটি মাত্র এক মিনিটে ভেঙে ফেলার প্রস্তুতি নিতে যাচ্ছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। কন্ট্রোলড ডিমোলিশন বা নিয়ন্ত্রিত বিস্ফোরণ পদ্ধতিতে ভবনটি ভাঙা হবে বলে রাজউক সূত্রে জানা গেছে। অবশ্য ভবনটি ভাঙার দিনক্ষণ এখনো চূড়ান্ত হয়নি।

‘কন্ট্রোলড ডিমোলিশন’ পদ্ধতিটা হলো - এটি অত্যাধুনিক প্রযুক্তি। চীনসহ বিদেশের বড় বড় শহরে, এমনকি ঘিঞ্জি এলাকায়ও ভবন ধসাতে এই পদ্ধতির ব্যবহার হয়ে থাকে।

জানতে চাইলে রাজউক বোর্ডের সদস্য (উন্নয়ন) আবদুর রহমান বলেন ‘আমরা বিজিএমইএ ভবন ভাঙার জন্য প্রস্তুত আছি। আদালতের নির্দেশনা পেলেই ভাঙা হবে। বিজিএমইএকেই ভবন ভাঙার খরচ বহন করতে হবে। তবে কন্ট্রোলড ডিমোলিশন পদ্ধতি অনুসরণের বিষয়টি প্রায় চূড়ান্ত। এ কাজে প্রথমবারের মতো এই পদ্ধতি ব্যবহার করা হবে।’

ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, এ পদ্ধতিতে একটি ভবনের বিভিন্ন অংশে বিস্ফোরক বসিয়ে আশপাশের সবার নিরাপত্তার ব্যবস্থা নিশ্চিত করার পরই ভবন ধসানোর কাজটি সম্পন্ন করতে হয়। তাই ভবন ভাঙার কাজটি এক মিনিটের কথা বলা হলেও পরিবেশগত যাবতীয় নিরাপত্তা আগেই নিশ্চিত করা হবে।

রাজউকের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘শ্রমিক দিয়ে হাতুড়ি-শাবল পিটিয়ে প্রচলিত পন্থায় ভবনটি ভাঙতে চাইছি না। কারণ, ওই পদ্ধতিতে ২০০৮ সালে র‌্যাংগ্স ভবন ভাঙার সময়ে শ্রমিক মারা যান।’

বিদেশি একটি বিশেষজ্ঞ দলের সঙ্গে ইতিমধ্যেই এ বিষয়ে রাজউকের বোঝাপড়া হয়েছে বলে একটি সূত্রে জানা গেছে। সূত্রটি বলছে, চলতি মাসের শুরু থেকে ভবনটি ভাঙার বিষয়ে রাজউকের সঙ্গে হাতিরঝিল প্রকল্পের সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং কোরের আলাপ-আলোচনা চলছে। বিজিএমইএর কাছে ভবনের ড্রয়িং-ডিজাইনগুলোও চাওয়া হয়েছে। কোথায় কলাম, কোথায় রড আছে, সেগুলোর অবস্থানের ভিত্তিতে সব ঠিক করা হবে।

যোগাযোগ করা হলে সেনাবাহিনীর একজন কর্মকর্তা বলেন, ভবনটি ভাঙার পদ্ধতি নিয়ে সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং কোরের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। ভবনের পাশে রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ও প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেল। রয়েছে কারওয়ান বাজার, নিউ ইস্কাটন এলাকা। ভাঙার পর চারদিক ধুলায় আচ্ছন্ন হয়ে যাবে। এর পরিবেশগত প্রভাব কতটা বিরূপ হতে পারে, তা নিয়ে বিশেষজ্ঞ দল পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবে।

হাতিরঝিল প্রকল্পের সমীক্ষা দলের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) পুরকৌশল বিভাগের অধ্যাপক মুজিবুর রহমান। তিনি বলেন, নিয়ন্ত্রিত বিস্ফোরণ প্রযুক্তির ব্যবহার করতে হয় পরিকল্পনামাফিক। এ জন্য নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থাও নিশ্চিত করতে হবে। এভাবে ভবন ধসাতে বা ভাঙতে সময় লাগে এক মিনিটের মতো।

এই অধ্যাপক আরও বলেন, কন্ট্রোলড ডিমোলিশন পদ্ধতিতে বিস্ফোরণের সময় কম্পন হবে, আওয়াজ হবে, চারদিক ধুলায় আচ্ছন্ন হবে। সে জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।

শীর্ষ সংবাদ:
ব্যাংক যেন ভালোভাবে চলে সেদিকে বিশেষ দৃষ্টি দেওয়ার আহবান প্রধানমন্ত্রীর         ‘বিএনপি নেতাদের কারণেই খালেদা জিয়াকে জেলে পাঠানোর দাবি ওঠতে পারে’         করোনা ভাইরাসে আরও ২৬ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫৪৪         ঢাবি শিক্ষার্থী ধর্ষণ ॥ আসামি মজনুর বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিলেন বাবা         করোনা ভাইরাসমুক্ত হলেন অ্যাটর্নি জেনারেল         দুদকের মামলায় বরখাস্ত ওসি প্রদীপের জামিন নামঞ্জুর         ‘বিএনপির আন্দোলনের তর্জন গর্জনই শোনা যায়, কিন্তু বর্ষণ দেখা যায় না’         সৌদি এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট বাতিল করল বেবিচক         শুরু হওয়ার একদিনের মাথায় আবারও পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করলো ভারত         ২৮ সেপ্টেম্বর সাহেদের অস্ত্র মামলার রায় ঘোষণা         সীতাকুণ্ডে ট্রাকের চাপায় এসআই নিহত         বুয়েটের আবরারের বাবা অসুস্থ, সাক্ষ্য গ্রহণ ৫ অক্টোবর         সংক্রমণ ছাড়াল ৫৪ লাখ ॥ জরুরি বৈঠক ডেকেছেন মোদি         করোনা ভ্যাকসিনের তথ্য চুরি করেছে চীনা হ্যাকাররা ॥ স্পেন         বাংলাদেশ ছাড়লেন ড. বিজন কুমার শীল         থাইল্যান্ডে রাজতন্ত্রের ক্ষমতা খর্ব করার দাবিতে বিশাল মিছিল         খালেদা জিয়ার আরও চার মামলার স্থগিতাদেশ আপিলে বহাল         স্বাস্থ্য অধিদফতরের গাড়ি চালক মালেককে আটক করেছে র‌্যাব         লকডাউনের পর উহানে দেখা দিয়েছে ভরসার নতুন সূর্য         সিরিয়ায় বাড়তি সেনা মোতায়েন ॥ ফের উত্তেজনা রাশিয়া-যুক্তরাষ্ট্রের