শনিবার ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

কাজের মাধ্যমে সব দলের আস্থা অর্জন করব ॥ নূরুল হুদা

  • বিবিসিকে সাক্ষাতকার

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ নিরপেক্ষভাবে এবং আইনের ভিত্তিতে কাজ করার শতভাগ নিশ্চয়তা দিয়েছেন পরবর্তী প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা। আগামী নির্বাচনে বিরোধীদল বিএনপি অংশ নেবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন। মঙ্গলবার বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি এসব কথা বলেছেন।

কে এম নূরুল হুদা বলেন, নির্বাচনে সব রাজনৈতিক দল অংশগ্রহণ করাই হচ্ছে সবচেয়ে বড় বিষয়। তিনি বলেন, ‘আমরা কাজের মাধ্যমে নিরপেক্ষতা এবং পক্ষপাতিত্বহীনতা দেখাব, সব দলের আস্থা অর্জন করব। আশাকরি, বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। এটাকে অনেক বড় দায়িত্ব এবং চ্যালেঞ্জিং দায়িত্ব হিসেবেই নিয়েছি। চ্যালেঞ্জটা হলো, পরবর্তী নির্বাচনটি যা ২০১৮ বা ২০১৯ সালে হতে পারে তা সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে সম্পাদন করা।’

প্রধান বিরোধীদল বিএনপি ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির সাধারণ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেনি। সেজন্য ওই নির্বাচন নিয়ে অনেক বিতর্ক তৈরি হয়েছে। আগামী নির্বাচনে বিএনপি যে আসবে- তার ব্যাপারে কিভাবে আশ্বস্ত করা হবে- এ প্রশ্নের জবাবে নূরুল হুদা বলেন, আমাদের কাজকর্মেই আমরা দেখাব যে আমরা নিরপেক্ষ, আমরা কোন পক্ষপাতিত্বের মধ্যে নেই। আমাদের কাছে কোন দল নেই। আমাদের কোন রাজনীতি নেই। আমাদের সামনে আছে সংবিধান ও আইন, নিরপেক্ষতা। সেটা দেখাব। তাতে তারা আশ্বস্ত হবে বলে আশাকরি। আশাকরি নির্বাচনে তারা অংশগ্রহণ করবে। একটি সুষ্ঠু, অবাধ এবং দলীয় প্রভাবমুক্ত নির্বাচনের নিশ্চয়তা তিনি কতটা দিতে পারেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ওয়ান হান্ড্রেড পার্সেন্ট নিশ্চয়তা দিতে পারি। কমিশনে যারা আছেন এবং আমরা- কখনও কারো কথায় কাজ করি না, কারও কথায় প্রভাবিত হই না। আমরা নিরপেক্ষভাবে আইনের ভিত্তিতে কাজ করব। সবার কাছে নির্বাচন কমিশনকে গ্রহণযোগ্য করে তোলার জন্য কি করবেন, এ প্রশ্নে জবাবে সিইসি বলেন, ‘সুশীল সমাজের সঙ্গে কথা বলব। অন্যান্য রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দের সঙ্গেও কথা বলব, তাদের মতামত নেব। তাদের মতামত নিয়ে যেসব সমস্যা আছে তা আইন ও সংবিধানের মধ্যে থেকে সমাধানের চেষ্টা করব।’ অত্যন্ত নিরপেক্ষভাবে এবং সাংবিধানিক প্রক্রিয়া ও বিধানের মধ্যে যা আছে সেভাবে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন নূরুল হুদা।

নির্বাচন কমিশনের ওপর আস্থা তৈরির জন্য কি করবেন? এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা কাজ করে দেখাব যে আমরা আস্থাশীল লোক। প্রশাসনিক এবং নীতিগত কাজগুলো যখন করব, তখন আমার বিশ্বাস যে আস্থা তৈরি হবে। এটা এক সপ্তাহের মধ্যে হবে না। ওভার এ পিরিয়ড অব টাইম আমরা আস্থা অর্জন করার চেষ্টা করব।’ নূরুল হুদা ছাড়াও রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ নির্বাচন কমিশনার হিসেবে যে চারজনের নাম অনুমোদন করেছেন তারা হলেন- সাবেক অতিরিক্ত সচিব মাহবুব তালুকদার, অবসরপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ বেগম কবিতা খানম, সাবেক সচিব মোঃ রফিকুল ইসলাম এবং ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী।

শীর্ষ সংবাদ:
প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন বিএনপি নেতৃবৃন্দ ॥ কাদের         বৃহস্পতিবার দেশে আসবে গাফ্ফার চৌধুরীর মরদেহ         কিডনিতে ২০৬ পাথর !         কৃষক ও যুবকসহ বজ্রপাতে তিনজনের মৃত্যু         বৃত্তির ফল নিয়ে ভোগান্তিতে জবি শিক্ষার্থীরা         যে অপরাধ করবে তাকেই শাস্তি পেতে হবে ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ একটি মাইলফলক : সেতুমন্ত্রী         ইভিএম পদ্ধতির ভুল প্রমান করতে পারলে পুরস্কৃত করা হবে ॥ ইসি আহসান হাবিব         অভিবাসীদের জীবন বাঁচাতে প্রচেষ্টা বাড়াতে হবে         অস্ত্র মামলায় ছাত্রলীগ নেতা সাঈদী রিমান্ডে ॥ জোবায়েরের জামিন         ইসলাম বিদ্বেষ, নারী বিদ্বেষকে ঘুষি মেরে বক্সিং-এ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জারিন         স্ত্রীর কবরের পাশে চিরশায়িত হবেন আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী         শিগগিরই সব দলের সঙ্গে সংলাপ : সিইসি         চাঁদপুরে ট্রাক-অটোরিকশা মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের দুই পরীক্ষার্থী নিহত         তীব্র জ্বালানি সংকটে শ্রীলঙ্কায় স্কুল ও অফিস বন্ধ         মঠবাড়িয়ায় যাত্রীবাহী বাস চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত, আহত ২         নগর ভবনে দরপত্র জমা দেওয়ার চেষ্টা         রাজধানীর বাজারে প্রায় সব পণ্যের দাম বৃদ্ধি         শনিবার গ্যাস থাকবে না রাজধানীর যেসব এলাকায়