বুধবার ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

স্থিমিত রক সঙ্গীত

  • অরন্যক দীপ্ত

খ্যাতনামা কানাডিয়ান রক সঙ্গীতশিল্পী নিল ইয়ং এক কালে গেয়েছিলেন ‘রক এন রোল ক্যান নেভার ডাই’ কিন্তু বিশ্ববিখ্যাত রকদল ‘কিস’ এর বেসিস্ট জিন সিমন্স এর ভাষ্য অনুযায়ী রক ঘরানার সঙ্গীত এখন মৃত। এক ম্যাগাজিনে দেয়া সাক্ষাতকারে তিনি রকসঙ্গীত নিয়ে এমন মনোভাব ব্যক্ত করে সমালোচনার ঝড়ে পরেছেন। ডি-প্রজন্মের পাঠকদের জন্য পুরো বিষয়টা সংক্ষেপে তুলে ধরার চেষ্টা করা হলো।

সেপ্টেম্বর মাসে জিন সিমন্স এস্কুইয়ার নামক ম্যাগাজিনের এক সাক্ষাতকারে রকসঙ্গীত নিয়ে তার মতামত দেন। তিনি বলেন, ‘রকসঙ্গীত শেষ পর্যন্ত মরেই গেল। তবে রকসঙ্গীত এর মৃত্যু স্বাভাবিক ছিল না। বয়সের ভারে তার মৃত্যু হয়নি। রকসঙ্গীত খুন হয়েছে। তবে রকসঙ্গীতের মৃত্যুর জন্য এর নানা শাখা-প্রশাখা কিংবা কিংবদন্তি শিল্পীর অভাব দায়ী ছিল না। প্রযুক্তির কল্যাণে খুব সহজেই এখন গান আদান-প্রদান করা যায় বলে কেউ তোমার পেছনে অর্থ খরচ করতে আগ্রহী হবে না। গানের মূল্য এখন আর কেউ দেবে নাÑ এটাই রক এন রোলকে খুন করার জন্য দায়ী।’

জিন সিমন্স তার ছেলে নিকের কাছে এ সাক্ষাতকার দেন। তার এ বক্তব্য ছাপা হওয়ার পর তিনি সমালোচনার ঝড়ের মধ্যে পরেছেন। সেই সেপ্টেম্বর মাসে দেয়া সাক্ষাতকারের রেশ এখনও রয়ে গেছে। আবার কেউ কেউ তার সঙ্গে আংশিক একাত্মতা জানিয়েছেন, কেউ কেউ তার কথার কঠোর নিন্দা জানিয়েছেন।

হার্ডরকের পথপ্রদর্শক দল এসি/ডিসির ব্রায়ান জনসন, এরোস্মিথের জো পেরি, সিøপনট ও স্টোন সাওয়ারের কোরি টেইলর, অল্টারব্রিজের মার্ক ট্রেমন্টি, সø্যাশ ছাড়াও আরও অনেকে জিন সিমন্স এর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।

হার্ডরকের এক অন্যতম পথপ্রদর্শক দল এসি/ডিসি। সেই দলের ব্রায়ান জনসন পরবর্তীতে ক্ল্যাসিক রক ম্যাগাজিনকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে সিমন্স এর সেই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে বলেন, ‘আমার মনে হয় না কারও কোন নির্দিষ্ট ধারার গান নিয়ে মন্তব্য করা উচিত। এমনটা অবশ্যই বলা উচিত না যে কোন নির্দিষ্ট গানের ধারা বিলুপ্ত হয়ে গেছে শুধুমাত্র সে নিজে অমনটা ভাবছে বলে। আমি এখানে তোমাকে বলতে এসেছি জিনÑ তুমি ভুল। আমি বলছি রক সঙ্গীত বেঁচে আছে আর তা জানান দিয়েই আছে। আমার নাম ব্রায়ান। তুমি কেমন আছ?’

সম্প্রতি নতুন এ্যালবাম বের করেছে খ্যাতনামা মেটাল দল সিøপনট। কোরি টেইলর সিøপনট ও স্টোন সাওয়ার- উভয় দলের মূল কণ্ঠশিল্পী। জিন সিমন্স এর দেয়া বক্তব্যের প্রতি দ্বিমত পোষণ করে তিনি বলেন, ‘এই হচ্ছে প্রযুক্তির সমস্যা। জিন আসলে কি বলতে চেয়েছেন তা আর ভালমত না খেয়াল করে তার ভিন্ন একটা অর্থ বের করা খুব সহজ। তবে জিনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলতে চাই, আমি মনে করি সেই পুরনো পন্থা মারা গেছে। তবে নতুন যে পথ বের হয়েছে তা আমাদের মতো যেসব দল ছিল তাদের অনেকের জন্য কার্যকরী ছিল। তারা প্রযুক্তি দিয়ে রক ও মেটাল ধারার গানকে আরও দূরে নিয়ে যাচ্ছে। তাই আমি মনে করি না যে রকসঙ্গীতের মৃত্যু ঘটেছে। একদিক থেকে প্রযুক্তি শিল্পীদের তাদের মতো করে গান করার সাহস দিচ্ছে। এজন্যই অনেক বেশি স্বতন্ত্র শিল্পী ইন্টারনেট ব্যবহার করে শ্রোতাদের কাছে যেতে পারছে।

অতীতে শিল্পীদের বসে থাকতে হতো রেকর্ড কোম্পানির দিকে হা করে তাকিয়ে যা এখন আর করা লাগে না। তাই আমি মনে করি রকসঙ্গীতের না, মৃত্যু ঘটেছে পুরনো রীতির। আর যদি রক সঙ্গীত মৃতই হয়ে থাকে, তাহলে কিছুদিন আগে আমাদের এ্যালবাম বের হওয়ার পর বিলবোর্ডের শীর্ষ তালিকায় প্রথম স্থান দখল করল কিভাবে?

শীর্ষ সংবাদ:
কক্সবাজারকে পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে তোলা অপরিহার্য ॥ প্রধানমন্ত্রী         বিদ্যুতের দাম ৫৮ শতাংশ বাড়ানোর সুপারিশ         ‘নিত্যপণ্যের দাম বাড়ার জন্য দায়ী আন্তর্জাতিক বাজার’         দেশে আরও ২২ জনের করোনা শনাক্ত         দেশে খাদ্যের কোনো ঘাটতি নেই ॥ খাদ্যমন্ত্রী         ১৯৮২ সালের পর যুক্তরাজ্যে সর্বোচ্চ মুদ্রাস্ফীতি         রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ ॥ চিকিৎসাধীন তিন জনের মৃত্যু         রায়পুরে মাদ্রাসা ছাত্রী হত্যায় ৪ জনের যাবজ্জীবন         বাতাসে জলীয়বাষ্প বেশি থাকায় ভ্যাপসা গরম         বিদেশী মনোপলি ব্যবসা বন্ধ করে দেশীয় মালিকানাধীন তামাক শিল্প রক্ষা করুন         ১ জুন ফের শুরু বাংলাদেশ-ভারত ট্রেন চলাচল         হাইকোর্টে সম্রাটের জামিন বাতিল         পরীমনির মামলায় নাসিরসহ ৩ জনের বিচার শুরু         আজ আন্তর্জাতিক জাদুঘর দিবস