ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

হতাশার ড্র ম্যানইউর, লিভারপুলের হার

প্রকাশিত: ০৬:২০, ৬ ডিসেম্বর ২০১৬

হতাশার ড্র ম্যানইউর, লিভারপুলের হার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ ফুটবলে শেষ মুহূর্তে গোল হজম করে জয় হাতছাড়া করেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। রবিবার রাতে এ্যাওয়ে ম্যাচে স্বাগতিক এভারটনের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে ম্যানইউ। আরেক ম্যাচে ইতিহাস গড়ে জয় পেয়েছে বোর্নমাউথ। ঘরের মাঠে তারা গোলবন্যার ম্যাচে ৪-৩ গোলে হারিয়েছে শিরোপা প্রত্যাশী লিভারপুলকে। অপ্রত্যাশিত হারের কারণে পয়েন্ট তালিকার দুইয়ে ওঠার সুযোগ হারিয়েছে লিভারপুল। ১৪ ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে এখন তিনে জার্গেন ক্লপের দল। সমান ম্যাচে ২১ পয়েন্ট নিয়ে ছয়ে ম্যানইউ। ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে সাবেক চ্যাম্পিয়ন চেলসি। ৩১ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আর্সেনাল। শেষ ১১টি লীগ ম্যাচে ম্যানইউ জয় পেয়েছে মাত্র দুটিতে। পয়েন্ট তালিকায় যে অবস্থা তাতে শিরোপা স্বপ্ন নেই বললেই চলে। চতুর্থ স্থানে থাকা ম্যানচেস্টার সিটির থেকে নয় পয়েন্ট পিছিয়ে আছে তারা। অষ্টম স্থানে থাকা এভারটন সর্বশেষ নয় ম্যাচে মাত্র একটিতে জয় পেয়েছে। গোডিসন পার্কে শুরু থেকেই জমে ওঠে এভারটন ও ম্যানইউর ম্যাচটি। তবে গোলের জন্য প্রথমার্ধের শেষক্ষণ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় অতিথিদের। সুইডিশ সুপারস্টার জ¬াতান ইব্রাহিমোভিচের গোলে ৪২ মিনিটে এগিয়ে যায় ম্যানইউ। এ্যান্থনী মার্শালের সহায়তায় গোলটি করেন তিনি। সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচে এটি সুইডিশ তারকার ষষ্ঠ গোল। এই গোলটিই শেষ মিনিট পর্যন্ত ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণের জন্য যথেষ্ট প্রমাণিত হচ্ছিল। ম্যাচে ফিরতে আক্রমণের পর আক্রমণ শাণাতে থাকে স্বাগতিকরা। কিন্তু আন্ডের হেরেরার দুর্দান্ত শট ও কেভিন মিরালাসের দুটি দারুণ সুযোগ ইউনাইটেড গোলরক্ষক ডেভিড ডি গিয়া আটকে দিয়ে রেড ডেভিলসদের রক্ষা করেন। তবে ৮৫ মিনিটে হেনরিক মাখিটারিয়ানের স্থানে খেলতে নামা মারোনে ফেলাইনি দলের জন্য হতাশা বয়ে আনে। ম্যাচের শষ মিনিটে ডি বক্সের মধ্যে ইদ্রিসা গুয়েকে ফাউল করেন তিনি। আর এভারটন পেয়ে যায় পেনাল্টি। বেইনেস স্পট কিক থেকে গোল করে স্বাগতিকদের ড্র উপহার দেন। এর ফলে ইউনাইটেডের হয়ে নিজের শততম ম্যাচ স্মরণীয় হওয়া দূরে থাক, তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে মাঠ ছাড়েন বেলজিয়াম তারকা ফেলাইনি। এই নিয়ে শেষ তিন লীগ ম্যাচে টানা ড্র নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হলো ইউনাইটেডকে। ম্যাচে এভারটন ডিফেন্ডার স্যামুয়েল কোলম্যানের মুখে বুট দিয়ে গুঁতো মারায় নিষিদ্ধ হওয়ার শঙ্কায় আছেন ইব্রাহিমোভিচ। গোল করেও তাই এখন বিষাদের মধ্যে আছেন তারকা এই ফরোয়ার্ড। ম্যাচে বাজে এক ফাউল করে বসেন সাবেক পিএসজি তারকা। ম্যাচ চলাকালে রেফারি বা লাইন্সম্যানরা তা ধরতে পারেননি। তবে খেলা শেষে ভিডিওতে স্পষ্টভাবে তা দেখা গেছে। পরে বিষয়টি রেফারিদের প্যানেলে আলোচিতও হয়েছে। এ কারণে এখন চারদিকে ফিসফাস- নিষিদ্ধ হতে চলেছেন ইব্রা। বিষয়টি নামি ফুটবলারের কানেও পৌঁছে গেছে। তাই নিজেকে নির্দোষ প্রমাণে এক ভিডিও বার্তায় ইব্রাহিমোভিচ বলেন, আমি শুনেছি একজন ধারাভাষ্যকার বলছিলেন আমি প্রতিপক্ষ দলের খেলোয়াড়ের মুখে ইচ্ছা করেই বুট দিয়ে আঘাত করেছি। কিন্তু সেটা ছিল ফিফটি-ফিফটি একটা ডুয়েল। তাতে কোলম্যান আমাকে মাটিতে ফেলে দেয়। বিশ্বাস করুন- আমি যদি কাউকে আঘাত করতে চাই তার নীতিগত পদ্ধতিটা জানা রয়েছে আমার। তিনি আরও বলেন, কিভাবে প্রতিপক্ষ দলের খেলোয়াড়কে মাটিতে ফেলে দিতে হবে তা জানা থাকে ফুটবলারদের। সবাইকে কেবল এই কথাটাই বলতে চাই আমি কোন অন্যায় করিনি। সেক্ষেত্রে ওকে ইচ্ছাকৃতভাবে মুখে ঘুঁতো মারার প্রশ্নই ওঠে না। আরেক ম্যাচে বোর্নমাউথের বিরুদ্ধে আগে কখনই না হারা লিভারপুল জয়ের লক্ষ্যেই মাঠে নেমেছিল। তাদের সাম্প্রতিক পারফর্মেন্সও তেমনই ইঙ্গিত দিচ্ছিল। ম্যাচেও দুইবার দুই গোলের ব্যবধানে এগিয়েও গিয়েছিল জার্গেন ক্লপের দল। কিন্তু শেষ ১৫ মিনিটে সব হিসেব ওলট-পালট হয়ে যায়। এই সময় স্বাগতিকরা তিন তিনবার বল জালে পাঠিয়ে তুলে নেয় অসাধারণ ইতিহাসগড়া জয়। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে লিভারপুলের বিরুদ্ধে আগের নয়বারের মুখোমুখি লড়াইয়ে কোন জয় ছিল না বোর্নমাউথের। এবার প্রথম জয় পেয়ে তাই ইতিহাস গড়েছে তারা। স্বাগতিকদের হয়ে গোলগুলো করেন উইলসন (৫৬), ফ্রেশার (৭৬), কুক (৭৮) ও ডাচ ডিফেন্ডার আকে (৯৩)। লিভারপুলের হয়ে গোল করেন মানে (২০), ডিভক অরিজি (২২) ও জার্মান মিডফিল্ডার কান (৬৪)।
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২