ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ০২ জুলাই ২০২২, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

জাতীয়

খোকার গুলশানের ৬ তলা বাড়ি বুঝে নিল সরকার

প্রকাশিত: ০৮:১৪, ৩১ অক্টোবর ২০১৬

খোকার গুলশানের ৬ তলা বাড়ি বুঝে নিল সরকার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও অবিভক্ত ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার গুলশানের ছয়তলা বাড়িটি বুঝে নিয়েছে সরকার। আদালত বাড়িটির মূল্য নির্ধারণ করেছে ২ কোটি ৪৭ লাখ ৬০ হাজার টাকা। এর আগে ঢাকার জেলা প্রশাসক আদালতের ক্রোকি পরোয়ানা তামিল করে ২২ সেপ্টেম্বর গুলশান ২ নম্বর সেক্টরের ৭২ নম্বর সড়কের ৯ নম্বর হোল্ডিংয়ের ৫ কাঠা জমি ও তার ওপর নির্মিত ছয়তলা ভবনে বাজেয়াফতের নোটিস ঝুলিয়ে দেন। এ সময় ডিসি অফিসের লোকজন প্রশাসকের পক্ষ থেকে বাড়িটির ভাড়াটিয়াদের অন্য কোথাও সরে যেতে বললে তারা একমাস সময় চান। ইতোমধ্যে সব ভাড়াটিয়া অন্যত্র চলে যাওয়ায় রবিবার বেলা সাড়ে বারোটায় ম্যাজিস্ট্রেট হোসনে আরা সরকারের পক্ষে বাড়িটি আনুষ্ঠানিকভাবে বুঝে নেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বাড়িটি একটি বায়িং হাউসের অফিস ও তাদের বিদেশী অতিথিদের থাকার জন্য ব্যবহৃত হতো। তবে খোকার বাড়ির সিকিউরিটি মানি হিসেবে নেয়া ৫০ লক্ষাধিক টাকা এখনও ভাড়াটিয়াকে ফেরত দেননি। এ টাকা একাধিকবার চাওয়ার পরও খোকার পক্ষ থেকে ইতিবাচক সাড়া পাননি বলে জানা গেছে। খোকার বাড়িটির ক্রোকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ভাড়াটিয়ার আইনজীবী এ্যাডভোকেট জাফরুল হাসান শরীফ। তিনি বলেন, বাড়ির ভাড়াটিয়ারা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আদালতের আদেশে সরকার সাদেক হোসেন খোকার বাড়িটি বাজেয়াফতের পর ভাড়াটিয়ারা বাড়িটি ছাড়ার জন্য একমাস সময় নিয়েছিলেন আদালতের কাছ থেকে। রবিবার একমাস পূর্তি হলে তারা বাড়িটি সরকারকে বুঝিয়ে দিয়েছেন। উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ২০ অক্টোবর তথ্য গোপন ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের দায়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) অবৈধ সম্পদ অর্জন ও দুর্নীতির দায়ে করা মামলায় সাদেক হোসেন খোকাকে ১৩ বছরের কারাদ- দেয় আদালত। তিনি অবৈধভাবে ১০ কোটি ৫ লাখ ২১ হাজার ৮৩২ টাকা মূল্যের স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের মালিক হয়েছেন ঘোষণা করে ওই সম্পদ রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াফত করা এবং ১১ লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও সাত মাসের কারাদ-ের নির্দেশ দেয়া হয়। জানা গেছে, আদালতের নির্দেশে গুলশানের বাড়িটি ছাড়াও গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জে সাদেক হোসেন খোকার নামে থাকা মোট ১০০.১৯৪৬ একর জমি বাজেয়াফত করা হয়েছে।