বুধবার ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৫ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

নিবরাস ‘সাঈদ’ নামে চার মাস ঝিনাইদহে ছিল

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝিনাইদহ, ১৪ জুলাই ॥ ঢাকার গুলশান হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গী হামলায় অংশ নেয়া নিহত নিবরাস ইসলাম ঝিনাইদহ শহরের সোনালীপাড়ার একটি ছাত্রাবাসে প্রায় ৪ মাস অবস্থান করেছিল। ওই ছাত্রবাসের ৪টি রুমে মোট ৮ জন ছিল বলে জানা গেছে। জঙ্গী হামলায় অংশ নেয়া নিবরাস ইসলামের ছবি প্রকাশ হওয়ার পর স্থানীয় একজন ছাত্র তাকে চিনতে পারে বলে জানিয়েছে। এ বিষয়ে পুলিশের কাছে এখনও পর্যন্ত সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য নেই। তবে তাঁরা খোঁজ খবর নিচ্ছেন বলে পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন জানিয়েছেন।

সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ঝিনাইদহ শহরের সোনালীপাড়ার অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য কওছার আলী নামে এক ব্যক্তির মালিকানাধীন একটি ছাত্রাবাস আছে। কয়েক মাস আগে সাঈদ নাম ধারণ করে নিবরাস ওই ছাত্রবাসে ওঠে। ছাত্রবাসের পাশের একটি ছোট খেলার মাঠে নিবরাস নিয়মিত খেলা করত। সোনালীপাড়া জামে মসজিদের ঈমাম রোকনুজ্জামান ৪ মাস আগে তাদের ওই ছাত্রাবাসে থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছিলেন। ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে ওই ৮ জন ছাত্রই ছাত্রাবাস ছেড়ে চলে যায়। তারপর থেকে তারা আর ফেরেনি।

ঝিনাইদহ সরকারী কেসি কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্র ও সোনালীপাড়ার মোকাররম হোসেনের ছেলে নওরজামিন বর্ষণ জানায়, ‘আমি সাঈদ নামে যে ছেলেকে চিনতাম সে আসলে সাঈদ নয়, তার নাম নিবরাস ইসলাম’। নওরজামিন বর্ষণ জানায়, আমি প্রতিনিয়ত ওই ছাত্রাবাসের পাশের একটি ছোট ফুটবল মাঠে খেলা করতাম।

ওই মাঠে মেসের ছেলেরাও খেলত। প্রায় ৪ মাস আগে সাঈদ নামে একটি ছেলেও আমাদের সঙ্গে ফুটবল খেলা করবে বলে জানায়। এরপর থেকে মাস খানেক নিয়মিত ফুটবল খেলা করেছে। সে ভাল খেলোয়াড় ছিল। তার বাড়ি নাটোর বলে জানাত। সে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দেয়ার জন্য মেসে থাকত বলে সবাইকে বলত। সে ভাল ইংরেজী বলতে পারত। ইংলিশ গান শুনার জন্যও আমাদের বলত। হঠাৎ কিছুদিন আর খেলতে আসত না। এরপর গুলশান আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গী হামলার ঘটনার পর ফেসবুক, পত্রিকা ও টেলিভিশনে ছবি দেখে জানতে পারলাম এই সাঈদই নিবরাস ইসলাম। ওই ছবির সঙ্গে সাঈদের হুবহু মিল রয়েছে। এরপর থেকে ওই মেসে আর কাউকে দেখা যায়নি।

সোনালীপাড়া ছাত্রবাসের মালিক কাওসার আলির স্ত্রী বিলকিস নাহার বলেন, আমাদের মেসে যারা থাকত তাদের উঠিয়েছেন সোনালীপাড়া মসজিদের ইমাম রোকনুজ্জামান। আমরা তাদের কাউকে চিনি না।

শীর্ষ সংবাদ:
‘পর্যাপ্ত সবুজ ও বৃষ্টির পানি সংরক্ষণের ব্যবস্থা রেখেই প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে হবে’         প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টা : ফাঁসির আসামি গ্রেফতার         বাংলাদেশ ও সার্বিয়ার মধ্যে দু’টি সমঝোতা স্মারক সই         লক্ষ্য সাশ্রয়ী মূলে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুত ও জ্বালানি সরবরাহ ॥ নসরুল হামিদ         জাতীয় সংসদের জন্য ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের বাজেট অনুমোদন         দিনাজপুরে ঘুষের ৮০ হাজার টাকাসহ কর্মকর্তা আটক         দায়িত্ব গ্রহণ করলেন ফায়ার সার্ভিসের নবনিযুক্ত মহাপরিচালক         আপনারা যুদ্ধাপরাধীদের সঙ্গে নির্বাচনে অংশ নেবেন না ॥ জাফর ইকবাল         মাঙ্গিপক্স ভাইরাসের বিস্তার ঠেকানো সম্ভব ॥ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা         দেশের অন্তত: ৩০ শতাংশ মানুষ ভুগছে থাইরয়েডে         ইউক্রেনে নিহত হাদিসুরের পরিবার পাচ্ছে ৫ লাখ ডলার         দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩০ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু নেই         টাকা আত্মসাতের দায়ে সোনালী ব্যাংকের সাবেক এমডিসহ ৯ জনের কারাদণ্ড         পদ্মা সেতু হওয়ায় বিএনপির বুকে বড় জ্বালা ॥ কাদের         কামরাঙ্গীরচরে দুই যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু         সাড়ে তিন কোটি টাকা আত্মসাত করেন চক্রটি         শাহরাস্তিতে ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে হোটেলে, নিহত ১         নিত্যপণ্যের দাম বাড়ছে কিন্তু আমার আয় বাড়েনি         সংযুক্ত আরব আমিরাতেও প্রথম মাঙ্কিপক্স আক্রান্ত রোগী শনাক্ত