রবিবার ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৭ জুন ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

দন্তক্ষয় থেকে মুখের সংক্রমণ

প্রতিদিন দাঁতের স্বাভাবিক যতœ না নিলে দন্তক্ষয় বা ডেন্টাল ক্যারিজ হতে পারে। দন্তক্ষয়কে রোগীরা অনেক সময় অবহেলা করে থাকেন। ফলে সূক্ষ্ম একটি দন্তক্ষয় থেকে দন্তমজ্জা পর্যন্ত আক্রান্ত হয়ে দন্ত মজ্জার প্রদাহ সৃষ্টি করে থাকে। পর্যায়ক্রমে এ সংক্রমণ দাঁতের গোড়ায় কোষে বিস্তৃতি লাভ করে থাকে। চিকিৎসা গ্রহণ না করলে তা খুব দ্রুত হাড়ে সংক্রমিত হয়ে থাকে। সংক্রমণের মাত্রা বেশি হয়ে গেলে হাড় ছিদ্র পর্যন্ত হয়ে যেতে পারে। এরপর সংক্রমণ মুখের কোষ বা কলায় একটি স্থানব্যাপী বিস্তৃতি লাভ করে থাকে যাকে ডাক্তারি ভাষায় স্পেস ইনফেকশন বলা হয়। এ ধরনের স্পেস ইনফেকশনকে লাডউইগস এনজাইনা বলা হয়। লাডউইগস এনজাইনাকে সাবম্যান্ডিবুলার বা সাবলিঙ্গুয়াল স্পেস সংক্রমণও বলা হয়। লাডউইগস এনজাইনা এক ধরনের সেসুলাইটিস। শুধু ডেন্টাল ক্যারিজ নয় বরং যে কোন ডেন্টাল সংক্রমণ থেকে এমনটি হতে পারে। লাডউইগস এনজাইনা হলে রোগীর গলার পাশে ফুলে গিয়ে শ্বাসনালীর ওপর চাপ প্রয়োগের ফলে শ্বাস নেয়ার সময় রোগী সীমাহীন কষ্ট অনুভব করে থাকেন। কোন কোন ক্ষেত্রে এ ধরনের পরিস্থিতিতে রোগীর মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। মনে রাখতে হবে, লাডউইগস এনজাইনা জীবনের প্রতি হুমকিস্বরূপ হতে পারে। জরুরী অবস্থায় ট্রাকিওসটমির প্রয়োজন দেখা দিতে পারে। শ্বাসকষ্ট ছাড়া রোগীর জ্বর, ঘাড়ে ব্যথা, ঘাড় ফুলে যাওয়া, ঘাড় লাল হলে যাওয়া, দুর্বলতা, খাবার গিলতে সমস্যা হওয়া ইত্যাদি লক্ষণ দেখা দিতে পারে। পেনিসিলিন জাতীয় এ্যান্টিবায়োটিক স্বাভাবিক ডোজের চেয়ে বেশি পরিমাণে দেয়া যেতে পারে বয়স, উচ্চতা ও ওজন অনুযায়ী। তাই দন্তক্ষয় বা দাঁতের গোড়ায় কোন সংক্রমণকে কোনভাবেই অবহেলা করা ঠিক নয়। দন্তক্ষয় দেখা দিলে প্রয়োজন অনুযায়ী সঠিক পদ্ধতিতে ফিলিং করিয়ে নিতে হবে। তবে দন্তক্ষয় প্রতিরোধ সবচেয়ে ভাল। তাই প্রতিদিন সকালে নাস্তার পর এবং রাতে ঘুমানোর আগে দাঁত ব্রাশ করা উচিত। এছাড়া ডেন্টাল ফ্লস ব্যবহার করা ভাল। মাঝেমধ্যে প্রয়োজনমতো কসমেটিক মাউথওয়াশ ব্যবহার করা যেতে পারে। মনে রাখতে হবে, সব মাউথওয়াশ সবাই ব্যবহার করতে পারে না। কেবলমাত্র ভুল মাউথওয়াশ ব্যবহার করার কারণে আপনার মুখে আলসার দেখা দিতে পারে বা আলসার থাকলে তা সহজে ভাল হবে না। দন্তক্ষয় ছাড়া দাঁতের গোড়ায় বা পাশে কোন সংক্রমণ দেখা দিলে দ্রুত কার্যকর চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে।

জনকণ্ঠ আপনার ডাক্তার

শীর্ষ সংবাদ:
বাঙালীর মুক্তির সনদ ৬ দফা         দেশে করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তের উর্ধগতি থামছে না         ইউনাইটেডে অগ্নিকান্ড অবহেলা আর অব্যবস্থাপনায়         বেনাপোল বন্দর দিয়ে রেল কার্গোতে পণ্য আমদানির অনুমতি         এবার এলাকাভিত্তিক লকডাউন         হাসপাতাল থেকে রোগী ফেরত দেয়া মানবতাবিরোধী ॥ তথ্যমন্ত্রী         নাসিমের অবস্থা সঙ্কটাপন্ন, রাখা হয়েছে ভেন্টিলেশনে         বজ্রপাতে শিক্ষক গৃহবধূসহ নয়জনের মৃত্যু         পুরান ঢাকার ৩ গোডাউনে কেমিক্যাল বিস্ফোরণ ॥ দগ্ধ দুই         গায়েবি মামলায় বিরোধীদের গ্রেফতার চলছে ॥ ফখরুল         ভার্চুয়াল কোর্টে সাড়ে ২৭ হাজার জামিন ॥ বিচার প্রার্থীরা উপকৃত         রাজধানী জলসবুজে পরিণত করার মহাপরিকল্পনা         চট্টগ্রামে করোনা সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে         উৎসবমুখর রাজধানীর বাড়ির ছাদ         সংসদের ৩০০ জনকে করোনা পরীক্ষার নির্দেশ         করোনা ভাইরাসে আরও ৩৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৬৩৫ জন         অনলাইনে যোগদান করবেন পদোন্নতি পাওয়া যুগ্ম সচিবরা         রবিবার থেকে রাজধানীতে জোন ভিত্তিক লকডাউন         সোমবার লালা সংগ্রহের ডিভাইস জমা দেবে গণস্বাস্থ্য         করোনা সংকটে এখনো কিছু মানুষ সমালোচনায় ব্যস্ত : তথ্যমন্ত্রী        
//--BID Records