মঙ্গলবার ২৩ আষাঢ় ১৪২৭, ০৭ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

দন্তক্ষয় থেকে মুখের সংক্রমণ

প্রতিদিন দাঁতের স্বাভাবিক যতœ না নিলে দন্তক্ষয় বা ডেন্টাল ক্যারিজ হতে পারে। দন্তক্ষয়কে রোগীরা অনেক সময় অবহেলা করে থাকেন। ফলে সূক্ষ্ম একটি দন্তক্ষয় থেকে দন্তমজ্জা পর্যন্ত আক্রান্ত হয়ে দন্ত মজ্জার প্রদাহ সৃষ্টি করে থাকে। পর্যায়ক্রমে এ সংক্রমণ দাঁতের গোড়ায় কোষে বিস্তৃতি লাভ করে থাকে। চিকিৎসা গ্রহণ না করলে তা খুব দ্রুত হাড়ে সংক্রমিত হয়ে থাকে। সংক্রমণের মাত্রা বেশি হয়ে গেলে হাড় ছিদ্র পর্যন্ত হয়ে যেতে পারে। এরপর সংক্রমণ মুখের কোষ বা কলায় একটি স্থানব্যাপী বিস্তৃতি লাভ করে থাকে যাকে ডাক্তারি ভাষায় স্পেস ইনফেকশন বলা হয়। এ ধরনের স্পেস ইনফেকশনকে লাডউইগস এনজাইনা বলা হয়। লাডউইগস এনজাইনাকে সাবম্যান্ডিবুলার বা সাবলিঙ্গুয়াল স্পেস সংক্রমণও বলা হয়। লাডউইগস এনজাইনা এক ধরনের সেসুলাইটিস। শুধু ডেন্টাল ক্যারিজ নয় বরং যে কোন ডেন্টাল সংক্রমণ থেকে এমনটি হতে পারে। লাডউইগস এনজাইনা হলে রোগীর গলার পাশে ফুলে গিয়ে শ্বাসনালীর ওপর চাপ প্রয়োগের ফলে শ্বাস নেয়ার সময় রোগী সীমাহীন কষ্ট অনুভব করে থাকেন। কোন কোন ক্ষেত্রে এ ধরনের পরিস্থিতিতে রোগীর মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। মনে রাখতে হবে, লাডউইগস এনজাইনা জীবনের প্রতি হুমকিস্বরূপ হতে পারে। জরুরী অবস্থায় ট্রাকিওসটমির প্রয়োজন দেখা দিতে পারে। শ্বাসকষ্ট ছাড়া রোগীর জ্বর, ঘাড়ে ব্যথা, ঘাড় ফুলে যাওয়া, ঘাড় লাল হলে যাওয়া, দুর্বলতা, খাবার গিলতে সমস্যা হওয়া ইত্যাদি লক্ষণ দেখা দিতে পারে। পেনিসিলিন জাতীয় এ্যান্টিবায়োটিক স্বাভাবিক ডোজের চেয়ে বেশি পরিমাণে দেয়া যেতে পারে বয়স, উচ্চতা ও ওজন অনুযায়ী। তাই দন্তক্ষয় বা দাঁতের গোড়ায় কোন সংক্রমণকে কোনভাবেই অবহেলা করা ঠিক নয়। দন্তক্ষয় দেখা দিলে প্রয়োজন অনুযায়ী সঠিক পদ্ধতিতে ফিলিং করিয়ে নিতে হবে। তবে দন্তক্ষয় প্রতিরোধ সবচেয়ে ভাল। তাই প্রতিদিন সকালে নাস্তার পর এবং রাতে ঘুমানোর আগে দাঁত ব্রাশ করা উচিত। এছাড়া ডেন্টাল ফ্লস ব্যবহার করা ভাল। মাঝেমধ্যে প্রয়োজনমতো কসমেটিক মাউথওয়াশ ব্যবহার করা যেতে পারে। মনে রাখতে হবে, সব মাউথওয়াশ সবাই ব্যবহার করতে পারে না। কেবলমাত্র ভুল মাউথওয়াশ ব্যবহার করার কারণে আপনার মুখে আলসার দেখা দিতে পারে বা আলসার থাকলে তা সহজে ভাল হবে না। দন্তক্ষয় ছাড়া দাঁতের গোড়ায় বা পাশে কোন সংক্রমণ দেখা দিলে দ্রুত কার্যকর চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে।

জনকণ্ঠ আপনার ডাক্তার

করোনাভাইরাস আপডেট
বিশ্বব্যাপী
বাংলাদেশ
আক্রান্ত
১১৭৬১০৭৩
আক্রান্ত
১৬৮৬৪৫
সুস্থ
৬৭৫৫৩২৪
সুস্থ
৭৮১০২
শীর্ষ সংবাদ:
দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৫৫ জনের, নতুন শনাক্ত ৩০২৭         ওয়ারি লকডাউন আরো কঠোর হবে,এলাকাবাসী ধৈর্য্য ধরুন : মেয়র তাপস         একযুগ পর ট্রেনে কোরবানীর পশু পরিবহন করবে রেলওয়ে : রেলপথমন্ত্রী         ‘করোনা পরিস্থিতিতে গণমাধ্যমের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ’: তথ্যমন্ত্রী         লঞ্চ দুর্ঘটনা : হত্যাকাণ্ড প্রমাণিত হলে ‘হত্যা মামলা’ হবে : নৌপ্রতিমন্ত্রী         বিজিবির ১১৯ মুক্তিযোদ্ধার গেজেট বাতিলের প্রজ্ঞাপন স্থগিত         সংসদের মুলতবি অধিবেশন বসছে বুধবার         ১৬ বছর বয়সীরাও অনলাইনে পাচ্ছে এনআইডি         রিজেন্ট হাসপাতাল সিলগালা         শুল্ক কমিয়ে বিদেশ থেকে চাল আমদানির সিদ্ধান্ত         করোনা ভাইরাস ॥ চিকিৎসক নিয়োগে আসছে বিশেষ বিসিএস         পাপুলকাণ্ডে রাষ্ট্রদূতের বিরুদ্ধে অভিযোগ খতিয়ে দেখা হবে ॥ পররাষ্ট্রমন্ত্রী         এক কোটি দুস্থ ১০ কেজি করে চাল পাবেন         উপনির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই ॥ ইসি সচিব         ২ হাজার চিকিৎসক নিয়োগের জন্য আসছে বিশেষ বিসিএস         হেফাজত ও ছেলের বিষয় নিয়ে মুখ খুললেন আল্লামা শফী         বান্দরবানে জনসংহতির সংস্কারপন্থি ছয়জনকে গুলি করে হত্যা         দাউদকান্দিতে প্রাইভেটকার খাদে পড়ে একই পরিবারের ৩ জন নিহত         ১২ জুলাই থেকে জাবিতে শুরু হতে যাচ্ছে অনলাইন ক্লাস         এবার মাশরাফির স্ত্রীও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত        
//--BID Records