রবিবার ২০ আষাঢ় ১৪২৭, ০৫ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

তদন্ত কর্মকর্তাকে সহায়তা করার নির্দেশ আদালতের

  • কোকেন আটক

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ চট্টগ্রাম বন্দর থেকে কোকেনের আলামত সংগ্রহ এবং জব্দ করার সময় মামলার তদন্ত কর্মকর্তার সঙ্গে পুলিশের ডিসি পদমর্যাদার একজন কর্মকর্তাকে রাখার নির্দেশনা দিয়েছে আদালত। এছাড়া মামলা তদন্ত করতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে সহযোগিতার জন্য বন্দর, কাস্টমসসহ সংশ্লিষ্ট সকল সংস্থাকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। মঙ্গলবার চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম ফরিদ আলমের আদালত এ নির্দেশ দেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের এসি মোঃ কামরুজ্জামান গত সোমবার কোকেনের আলামত সংগ্রহ ও জব্দ করতে গিয়ে কাস্টমসের সহযোগিতা না পাওয়ার অভিযোগ করেছিলেন আদালতের কাছে। এছাড়া শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের পক্ষ থেকেও কাস্টমসের এখতিয়ারে থাকা মালামাল জব্দের ব্যাপারে নির্দেশনা চাওয়া হয়েছিল। বিচারক মঙ্গলবার দুটি অভিযোগেরই নিষ্পত্তি করেন। ফলে সানফ্লাওয়ার ব্র্যান্ডের ভোজ্যতেলের ঘোষণায় বন্দরে কোকেন আনার বিষয়টির তদন্ত কাজ কাস্টমস ও পুলিশ প্রশাসনের মধ্যে সৃষ্ট জটিলতার আবর্তে ঘুরপাক খেলেও শেষ পর্যন্ত তার অবসান হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (প্রসিকিউশন) কাজী মুত্তাকী ইবনু মিনান জানান, আদালতের আদেশে বন্দর থেকে কোকেনের আলামত সংগ্রহ ও জব্দ করাকালে ডিসি পদমর্যাদার একজন কর্মকর্তা রাখার পাশাপাশি তদন্ত কর্মকর্তাকে সকল ধরনের সহায়তা করতে বলা হয়েছে। বন্দর কর্তৃপক্ষ, কাস্টমস, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর ও শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগের প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তাকেও এ সময় উপস্থিত থাকতে হবে। ভুল বোঝাবুঝি ও কোন ধরনের তদন্ত কাজে জটিলতার কারণে কোকেন আমদানির সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা যেন সুবিধা পেয়ে না যায়, সেজন্য সংশ্লিষ্ট সকল সংস্থার মধ্যে সমন্বয়ের ওপর জোর দেয়া হয়েছে আদালতের নির্দেশনায়।

কাস্টমস সূত্রে জানানো হয়, মালামাল জব্দ করতে আদালত থেকে যে নির্দেশনা পুলিশকে দেয়া হয়েছিল তার কোন কপি কাস্টমস কর্র্তৃপক্ষ বা শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর পায়নি। তাছাড়া কাস্টমসের ১৬৯ ধারা অনুযায়ী শুল্ক কর্তৃপক্ষের এখতিয়ারে থাকা কোন পণ্য পুলিশ জব্দ করতে পারে না। বরং পুলিশ কোন পণ্য জব্দ করলে তা নিকটস্থ কাস্টমসে হস্তান্তর করতে হয়। আদালতের নির্দেশনার কপিটি না পাওয়ায় এ নিয়ে বিভ্রান্তি ছিল। আদালতের নির্দেশনায় বিভ্রান্তি দূর হয়েছে।

গত ৬ জুন রাতে চট্টগ্রাম বন্দরে খালাস হওয়া ১০৭ ড্রাম ভর্তি সানফ্লাওয়ার ব্র্যান্ডের ভোজ্যতেল আটক করে সিলগালা করা হয়। পরবর্তীতে নমুনা সংগ্রহে একটি ড্রামে তরল কোকেনের অস্তিত্ব পাওয়া যায়।

শীর্ষ সংবাদ:
জামিন আবেদন নিষ্পত্তি এক লাখ ॥ ভার্চুয়াল কোর্টের ৩৫ কার্যদিবস         লকডাউন হলো ওয়ারী         ঈদের আগেই শ্রমিকদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করুন ॥ কাদের         অনেক বিএনপি নেতা আইসোলেশনে থেকে প্রেসব্রিফিং করে সরকারের দোষ ধরেন ॥ তথ্যমন্ত্রী         পুলিশের বদলির তদবির কালচার বিদায় করতে চান বেনজীর         পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী করোনা আক্রান্ত         অধস্তনদের ওপর দায় চাপিয়ে বাঁচার চেষ্টা নির্বাহীদের ॥ বিদ্যুতের অতিরিক্ত বিল         উত্তরে বন্যা পরিস্থিতির ফের অবনতি হাজার হাজার পরিবার পানিবন্দী         তিনদিনের রিমান্ড শেষে রবিন কারাগারে         বাচ্চাদের সাবান দিয়ে হাত ধুতে বলুন         অহর্নিশ যুদ্ধের জীবন, করোনার ভয় যেন বিলাসিতা!         এখন আকাশের সংযোগ মিলবে ৩৪৯৯ টাকায়         ৬ মাসে ১০৬ নৌ দুর্ঘটনায় নিহত ১৫৩         পাটকল শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনা শোধ করা হবে ॥ কেসিসি মেয়র         ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ করা যাবে : সুপ্রিম কোর্ট         ৬ মাসে ১০৬ নৌ দুর্ঘটনায়, ১৫৩ জন নিহত, আহত ৮৪         ভুতুড়ে বিলের ঘটনায় ডিপিডিসির ৫ জন বরখাস্ত         বাংলাদেশকে ৫ কোটি ডলার ঋণ দেবে দ. কোরিয়া         প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়ন কমিটি         রেলে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করা হবে না : রেলমন্ত্রী        
//--BID Records