শনিবার ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৫ আগস্ট ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বলেশ্বর এখন বিরান ভূমি

  • দখল হচ্ছে দু’পাড়ের শত শত বিঘা খাস জমি

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ॥ এক সময়ের প্রমত্তা বলেশ্বর এখন কালের সাক্ষী মাত্র। নদীটি এখন নাব্যতা হারিয়ে বিরাণ ভূমিতে পরিণত হয়েছে। ফলে নৌযোগাযোগ ও কৃষিকাজে দেখা দিয়েছে চরম দুর্ভোগ। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে দখলদার আর লাঠিয়াল বাহিনী গ্রাস করে নিয়েছে নদীর দু’পাড়ের শত শত বিঘা খাস জমি। এতে দখলদারদের কবলে নদীর অস্তিত্ব বিলীন হতে বসেছে।

চিতলমারী উপজেলার সীমান্ত ঘেঁষে বয়ে গেছে বলেশ্বর নদী। নদীর ওপারে পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলা। কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীর পৈত্রিক বাড়ি ঘেঁষে বয়ে গেছে নদীটি।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, বলেশ্বর এখন নাব্যতা সংকটের কারণে নদীর অস্তিত্ব এখন প্রায় বিলীন হওয়ার পথে। নদীর দু’পাড়ের হাজার-হাজার মানুষের দুর্ভোগের অন্ত নেই। সেচ কাজে ঠিকমতো পানি পাচ্ছেন না চাষীরা। চিতলমারী উপজেলার বাবুগঞ্জ, খলিশাখালী, ডাকাতিয়া, গরীবপুর, কৃষ্ণনগর, শৈলদাহসহ প্রায় ৮-১০টি গ্রামের কয়েক হাজার চাষীদের জন্য এ নদী একমাত্র ভরসা। শুকনো মৌসুমে নদীতে পানি না থাকায় সেচ কাজ দারুণভাবে ব্যাহত হচ্ছে। এ নদী থেকে উঠে আসা ১০-১২টি শাখা খালেও এখন পানি শুকিয়ে যাওয়ায় চরবানিয়ারী ইউনিয়নসহ আশপাশের কয়েকটি ইউনিয়নে সেচ পানির অভাব দেখা দিয়েছে। গত কয়েক বছরে বোরো মৌসুমে এখানকার চাষীরা দুর্বিপাকে পড়ছে। ক্রমশ এ ভোগান্তি বাড়ছে বলে চাষীরা উল্লেখ করেন। ধান, গম, সূর্যমুখি, বাদাম, কলাই, পান, কুলসহ বিভিন্ন সবজির আবাদ করা হয়েছে নদীর আশপাশের এ সব জমিতে। কিন্তু সেচ মৌসুমের শুরুতেই পানি সংকটে হতাশ চাষীরা। এখানকার ৯০ ভাগ পরিবারই কৃষিকাজের সঙ্গে যুক্ত। এই নদীর ওপর নির্ভর করে বেঁচে থাকতে হয় তাদের কিন্তু মাত্র কয়েক বছরের মধ্যে বলেশ্বর নদীতে চর পড়ে যাওয়ায় দুশ্চিন্তায় পড়তে হয়েছে তাদের। এখানকার চাষীদের জন্য পানির অভাবে কৃষিকাজ এখন চরম হুমকির মুখে এমনটি জানালেন চাষীরা। ডাকাতিয়া গ্রামের চাষী অমূল্য বিশ্বাস, সুধীর হীরাসহ অনেকে জানান, এক সময় এ নদী থেকে লঞ্চ-ইস্টিমার চলত। নদীতে মৎস্য শিকারসহ নৌকা ও ট্রলার চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন অনেকে। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানের সঙ্গে এ নদী পথে সরাসরি যোগাযোগের ব্যবস্থা ছিল। মাত্র দু’ এক যুগের ভেতর নদীর এমন করুণ দশা হবে ভাবা যায় না। এখন অনায়াসে পায়ে হেঁটে নদী পার হয়ে যাওয়া যায়। নদীর অস্তিত্ব পুরোপুরি হারিয়ে যেতে বসেছে। জোয়ারের সময় নদীতে কিছুটা পানি আসলেও ভাটায় পুরোটা শুকিয়ে যায় ফলে সেচ কাজ দারুণভাবে ব্যাহত হচ্ছে।

চরবানিয়ারী ইউপি চেয়ারম্যান মুকুল কৃষ্ণম-ল জানান, সেচ কাজ ও নৌযোগাযোগের জন্য জরুরীভাবে বলেশ্বর খনন করা প্রয়োজন। এ জন্য তিনি সরকারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ আবুল হাসান জানান, যেহেতু এটা শুকনো মৌসুম এ সময়টায় কেবলমাত্র সেচ পানির ওপর চাষীদের নির্ভর করতে হয় সেহেতু বলেশ্বর নদীতে পানির সমস্যা হলে সেচ কাজ ব্যাহত হবে। এর জন্য চাষীদের বিকল্প পথ খুঁজতে হবে।

শীর্ষ সংবাদ:
বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন         বরেণ্য চিত্রশিল্পী মুর্তজা বশীর আর নেই         মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব ॥ শুধু খুনী নয়, নেপথ্যের কুশীলবদেরও বিচার দাবি         জাতির পিতার স্বপ্নপূরণে সাধ্যের সবটুকু উজাড় করে দেব ॥ প্রধানমন্ত্রী         ১৫ ও ২১ আগস্টের কুশীলবরা এখনও সক্রিয় ॥ কাদের         দক্ষিণ সুদানে গেল ৬৭ নৌ সদস্যের দ্বিতীয় গ্রুপ         কাঁদো বাঙালী কাঁদো ॥ বঙ্গবন্ধুর রাষ্ট্রদর্শন         যশোর কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রের কর্মকর্তারা পিটিয়ে খুন করে ৩ জনকে         কমিশনারের পরিচয়ে চাঁদাবাজি ॥ দুদিনের রিমান্ডে মোছাব্বির         বঙ্গবন্ধু ছিলেন গণমানুষের অন্তরের নেতা ॥ জি এম কাদের         বিষ দিয়ে পাঁচ কোটি টাকার মাছ নিধন         ভারতে ফের হাজারের বেশি মৃত্যু         সাগরে লঘুচাপ, বন্দরে ৩ নম্বার সতর্ক সঙ্কেত         বঙ্গবন্ধুর ছবিযুক্ত ১০০ ডাক টিকিট নিয়ে বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী         দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৩৪ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৭৬৬         বঙ্গবন্ধুসহ সব শহীদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় এক লাখ বার কোরআন খতমের উদ্যোগ         স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শব্দসৈনিক মোতাহার হোসেন আর নেই         সিনহা হত্যা মামলায় ৭ আসামিকে নিয়ে গেল র্যাব         যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের ৩ কিশোর খুন ॥ পুলিশের তদন্ত শুরু         ১৫ আগস্ট খালেদা জিয়া জন্মগ্রহণ করেছেন ঘোষণাটি ছিল মিথ্যা ॥ তথ্যমন্ত্রী