ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০

গ্যাস বিস্ফোরণে একই পরিবারের ৪ জন দগ্ধ

 মেডিকেল প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১১:৪০, ৯ ডিসেম্বর ২০২৩

গ্যাস বিস্ফোরণে একই পরিবারের ৪ জন দগ্ধ

বার্ন ইনস্টিটিউট

মুন্সিগঞ্জের সদর উপজেলায় একটি বাসায় গ্যাস লাইন লিকেজ থেকে বিস্ফোরণে শিশুসহ একই পরিবারের ৪ জন দগ্ধ হয়েছেন। তাদেরকে উদ্ধার করে ঢাকায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার (৯ ডিসেম্বর) ভোর সাড়ে ৫টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

দগ্ধরা হলেন, রিজভী আহম্মেদ রাসেল (৩৫), তার স্ত্রী রোজিনা আক্তার (৩৩), তাদের ছেলে রাইয়ান আহমেদ (৩) ও রিজভির মা শাহিদা খাতুন (৬০)।

দগ্ধ রিজভী আহমেদ জানান, তারা ১ ডিসেম্বর উপজেলা পরিষদের পাশেই একটি ভবনের পঞ্চম তলার বাসায় ভাড়া উঠেন। তিনি মুন্সিগঞ্জ সদর হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারের প্রোগ্রাম অফিসার। আর তার স্ত্রী গৃহিণী।

তিনি জানান, সকালে তিনি, তার স্ত্রী এবং সন্তান ঘুমিয়ে ছিলেন। আর তার বাবা ফজরের নামাজের জন্য বাইরে গিয়েছিলেন। এ সময় তাদের মা রান্নার জন্য উঠেন। চুলা জ্বালাতেই সেখান থেকে বিস্ফোরণ হয়। বিস্ফোরণে তার মায়ের শরীর পুরোটাই পুড়ে গেছে। এছাড়া ঘুমন্ত অবস্থায় তারাও দগ্ধ হন।

রিজভীর বাবা রজব আলি জানান, ফজরের নামাজ পড়ে তিনি বাইরে হাঁটাহাটি করতে গিয়েছিলেন। হাঁটাহাটি শেষে বাসার ফেরার সময় শুনতে পারেন, তাদের বাসায় বিস্ফোরণে পরিবারের সবাই দগ্ধ হয়েছেন। তখন তিনি বাসায় গিয়ে তাদেরকে প্রথমে সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। পরবর্তীতে ঢাকায় নিয়ে আসেন।

বার্ন ইনস্টিটিউটের জরুরি বিভাগের আবাসিক সার্জন ডা. তরিকুল ইসলাম জানান, শাহিদা খাতুনের শরীর ৯৫ শতাংশ, রিজভির ১০, রাইয়ানের ৮ ও রোজিনার ১২ শতাংশ পুড়ে গেছে। তাদের সবারই মুখমন্ডল দগ্ধ হয়েছে। এজন্য সবাইকেই আশঙ্কাজনক হিসেবেই দেখা হচ্ছে।

 এসআর

×