ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১

সান্তাহার হাসপাতাল

আছে ভবন ও স্টাফ, দেড় যুগেও চালু হয়নি চিকিৎসা কার্যক্রম

নিজস্ব সংবাদদাতা, সান্তাহার, বগুড়া

প্রকাশিত: ২৩:৫৩, ২৭ জানুয়ারি ২০২৩

আছে ভবন ও স্টাফ, দেড় যুগেও চালু হয়নি চিকিৎসা কার্যক্রম

বগুড়া জেলার সান্তাহারে ২০ শয্যার হাসসপাতালের কার্যক্রম চালুর অপেক্ষায় ভবন পড়ে আছে ১৮ বছর

নির্মাণের প্রায় দেড় যুগ পরও শুরু হয়নি সান্তাহার পৌরশহরে অবস্থিত ২০ শয্যা হাসপাতালের চিকিৎসা কার্যক্রম। হাসপাতালে তিন বছর আগে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে চিকিৎসক ও নার্সসহ বিভিন্ন  শ্রেণির কর্মচারী। কাগজে-কলমে ২৩ জনের নিয়োগ দেখানো হলেও বর্তমানে হাসপাতালটিতে কোনো চিকিৎসক ও নার্সকে কর্মরত দেখা যায় না। কিন্তু তারা বেতন-ভাতা উত্তোলন করেন নিয়মিত।

তারা কোথায় কর্মরত থেকে বেতন-ভাতা উত্তোলন করে, সেটাও জানে না এলাকাবাসী। জানা গেছে, ২০২০ সালে এই হাসপাতালের জন্য চার বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার এবং স্টাফ নার্সসহ ২৩ জনবল নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু বৃহস্পতিবার দুপুরে সরেজমিনে সান্তাহার হাসপাতালে গিয়ে প্রধান ফটক তালাবদ্ধ অবস্থায় দেখা যায়। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ নিয়োগ পাওয়া চিকিৎসক ও নার্সরা কেউ হাসপাতালে আসেন না।

হাসপাতালে এখনো শুরু হয়নি চিকিৎসা কার্যক্রম। সান্তাহার হাসপাতালে কর্মরত দেখিয়ে তারা বেতন-ভাতা উত্তোলন করছেন। সান্তাহার নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক গোলাম আমবিয়া লুলু বলেন, বর্তমানে সান্তাহার শহরে পল্লি চিকিৎসক ছাড়া উন্নত চিকিৎসার কোনো ব্যবস্থা নাই। হাসপাতালটিতে চিকিৎসকসহ জনবল নিয়োগ হলেও সেখানে চিকিৎসা কার্যক্রম চালু না হওয়া অত্যন্ত দুঃখজনক। তিনি দ্রুত হাসপাতালটি চালুর জন্য কর্তৃপক্ষের নিকট দাবি জানান। বগুড়ার সিভিল সার্জন জানান, হাসপাতালে আউটডোর চালু করা হয়েছে। কেন হাসপাতাল তালাবদ্ধ থাকছে, তা দ্রুত খতিয়ে দেখা এবং পুরোপুরি কার্যক্রম চালুর ব্যবস্থা করা হবে।

 

×