৫ এপ্রিল ২০২০, ২২ চৈত্র ১৪২৬, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

করোনা মোকাবিলায় একতা দেখান, জীবন ও দেশ বাঁচান॥ কোহলি

প্রকাশিত : ২৬ মার্চ ২০২০, ০১:০১ পি. এম.
করোনা মোকাবিলায় একতা দেখান, জীবন ও দেশ বাঁচান॥ কোহলি

অনলাইন ডেস্ক ॥ করোনা আতঙ্ক থেকে রেহাই পাওয়ার আশায় দেশজুড়ে ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই নির্দেশ পালন করার জন্য দেশবাসীকে অনুরোধ করলেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও স্ত্রী অনুষ্কা শর্মা। প্রত্যেককে বাড়িতে থাকার অনুরোধ করেছেন কিংবদন্তি সচীন তেন্ডুলকার। আর অশ্বিন তাঁর মাঁকড়ীয় ভঙ্গিতে আউট করার ছবি দিয়ে বাড়িতে থাকার আবেদন করেছেন।

টুইটারে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেছেন বিরুষ্কা। যেখানে দম্পতি পাশাপাশি বসে করোনার বিরুদ্ধে মোকাবিলার আহ্বান জানিয়েছেন। সেখানে অনুষ্কা বলছেন, “করোনাভাইরাসের সঙ্গে এই যুদ্ধ জিততে সময় ও সাহসের প্রয়োজন। বিরাট বলে ওঠেন, “সব চেয়ে বেশি জরুরি সংযম ও দায়িত্ববোধ, আগামী ২১ দিনের জন্য।” অনুষ্কা বলেন, “বিশেষ কিছু করার দরকার নেই, নির্দেশ মেনে চলুন।” বিরাট বলেন, “ঘর থেকে বেরিয়ে কোনও জায়গায় ভিড় করলে করোনার বিরুদ্ধে এই যুদ্ধ জেতা সম্ভব নয়।” অনুষ্কার অনুরোধ, “কার্ফু অমান্য করে যদি বিশ্বাস করেন আপনি সুরক্ষিত, তা হলে ভুল করছেন।’’ বিরাট শেষে বলেন, “আপনার একটি ভুলের জন্য সারা দেশকে তার খেসারত দিতে হবে। একতা দেখান, জীবন ও দেশ বাঁচান।”

ভিডিয়ো পোস্ট করে বিরাটের বার্তা, “এটা পরীক্ষা দেওয়ার সময়। এই পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝতে হবে। যে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, তা অমান্য করবেন না। প্রত্যেককে অনুরোধ। ঐক্যবদ্ধ হয়ে উঠুন।” টেস্টে যে ভাবে ধৈর্যের সঙ্গে প্রত্যেকটি ইনিংস সাজিয়ে তোলেন, সে ভাবেই দেশের সুরক্ষার জন্য ব্যাট করছেন বিরাট। দেশের প্রাণ ফেরানোর আপ্রাণ চেষ্টা করছেন সচিনও। টুইটারে ভিডিয়ো পোস্ট করে বলেছেন, “সরকার ও চিকিৎসকেরা আমাদের সকলকে বাড়িতে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। তবুও বারবার শুনছি, সকলে বিষয়টি মানছেন না। এমনকি রাস্তায় ক্রিকেট খেলার ভিডিয়োও আমার কাছে এসেছে। আমার মতো সকলেরই হয়তো বন্ধুদের সঙ্গে দেখা করতে ইচ্ছে করছে।” যোগ করেন, “কিন্তু এই আচরণ দেশের জন্য প্রচণ্ড ক্ষতিকারক। লকডাউনকে ছুটি হিসেবে দেখবেন না। মনে রাখুন, করোনাভাইরাস হচ্ছে আগুনের মতো। আর আমরা অক্সিজেন। আগুন যত অক্সিজেন পাবে, ততই বাড়বে। তাই আমরা বাড়িতে থাকলে করোনাভাইরাস ছড়ানোও বন্ধ হয়ে যাবে। পরিবারের সঙ্গে এই ২১টি দিন সময় কাটান। আমি ও আমার পরিবার শেষ দশ দিনে কারও সঙ্গে দেখা করিনি। ডাক্তার, নার্সেরা যে লড়াই করছেন, তার সম্মান আমরাই জানাতে পারি। আসুুন এই ২১টি দিন বাড়িতেই থাকি। দেশ ও সারা বিশ্বকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচাই।”

আর অশ্বিন, ঋদ্ধিমান সাহা অভিনব ভঙ্গিতে সতর্ক করেছেন। শেষ আইপিএলে রাজস্থান রয়্যালসের জস বাটলারকে মাঁকড়ীয় ভঙ্গিতে আউট করে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন। সেই ছবি পোস্ট করে অশ্বিন লিখেছেন, “আমাকে এক জন এই ছবিটি পাঠিয়ে মনে করিয়ে দিল, আজ এই আউটের বর্ষপূর্তি। তাই এই ছবিটি দিয়ে মনে করিয়ে দিতে চাই। বাড়ি থেকে বেরোবেন না। তা হলেই বিপদ আসন্ন।” ঋদ্ধিও তাঁর একটি ল্যাম্প করার ছবি দিয়ে লেখেন, “বাড়িতে থাকুন, সুস্থ থাকুন।”

আইসিসি-র ভিডিয়ো বৈঠক: শুক্রবার আইসিসি অনুমোদিত প্রত্যেক সদস্যদেশের ভিডিয়ো বৈঠক। মূল আলোচ্য বিষয়, করোনা মোকাবিলায় লকডাউনের সময়সীমা বাড়লে কী পদক্ষেপ করা যায়। অক্টোবরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। তার পরে ভারত-অস্ট্রেলিয়া টেস্ট সিরিজ। করোনাভাইরাসের আক্রমণ বাড়লে প্ল্যান ‘বি’ অথবা ‘সি’ কী হতে পারে, তা নিয়েই বৈঠক। এক কর্তা বলেছেন, “এখনই বিশ্বকাপ পিছনো হবে কি না তা নিয়ে আলোচনা হবে না। সংক্রমণ বাড়লে কী কী পদক্ষেপ করা যেতে পারে, সেটাই দেখতে হবে।’’

সূত্র : আনন্দাবাজার পত্রিকা

প্রকাশিত : ২৬ মার্চ ২০২০, ০১:০১ পি. এম.

২৬/০৩/২০২০ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলা



শীর্ষ সংবাদ: