২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

দেশী পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমেছে, শাক-সবজির বাজারও নিম্নমুখী

প্রকাশিত : ১৮ জানুয়ারী ২০২০
  • আরেক দফা দাম বেড়েছে সরু চাল, সয়াবিন তেল ও মসুর ডালের

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সরবরাহ বাড়ায় কিছুটা কমেছে দেশী পেঁয়াজের দাম। জাত ও মানভেদে নতুন উঠা প্রতিকেজি দেশী পেঁয়াজ ৯০-১২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে খুচরা বাজারে। শীতকালীন শাক-সবজির দামও নিম্নমুখী। তবে নিত্যপণ্যের বাজারে আরেক দফা দাম বেড়েছে সরু চাল, সয়াবিন তেল, মসুর ডাল ও এলাচের। শুক্রবার রাজধানীর কাওরানবাজার, কাপ্তানবাজার, ফকিরাপুল বাজার, মোহাম্মদপুর টাউন হল মার্কেট এবং মিরপুর সিটি কর্পোরেশন বাজার ঘুরে নিত্যপণ্যের দরদামের এসব তথ্য পাওয়া গেছে। এদিকে, নতুন উঠা পেঁয়াজের সরবরাহ বাড়ার পাশাপাশি মিসর, তুরস্ক, চীন ও মিয়ানমার থেকে আমদানি কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া উৎপাদন ভাল হওয়ায় প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারত থেকে ফের পেঁয়াজ আসা শুরু হতে পারে।

রাষ্ট্রীয় বাজার নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা টিসিবি ট্রাকসেলে প্রতিকেজি পেঁয়াজ ৩৫ টাকায় বিক্রি কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। আশা করা হচ্ছে, সামনের দিনগুলোতে পেঁয়াজের দাম আরও কমবে। কাপ্তান বাজারের পেঁয়াজ বিক্রেতা মনির হোসেন জনকণ্ঠকে বলেন, শ্যামবাজার ও মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেটে পেঁয়াজের সরবরাহ বেড়েছে। পাইকারিতে দাম কিছুটা হ্রাস পাওয়ায় খুচরা বাজারেও দাম কমতে শুরু করেছে। রাজধানীর বেশিরভাগ বাজারে প্রতিকেজি দেশী পেঁয়াজ ৯০-১২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া আমদানিকৃত বড় সাইজের পেঁয়াজ ৭০-১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে খুচরা বাজারে।

জানা গেছে, গত এক সপ্তাহে সবচেয়ে বেশি বেড়েছে মসলা পণ্য এলাচের দাম। প্রতিকেজি এলাচ ৬ হাজার টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। গত পনের দিন আগেও প্রতিকেজি এলাচ ৪ থেকে সাড়ে ৪ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে খুচরা বাজারে। এছাড়া বাড়তে শুরু করেছে সরু চালের দাম। মিনিকেট ও নাজিরশাইল খ্যাত প্রতিকেজি সরু চাল মানভেদে ৫০ থেকে ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া দাম বেড়ে সয়াবিন তেল প্রতিলিটার ৯৪-৯৬ টাকায় বিক্রি হচ্ছে খুচরা বাজারে। প্রতিকেজি মসুর ডাল ৬৫-১২৫ টাকা, চিনি ৬২-৬৫, রসুন ১৪০-২০০, আদা ১১০-১৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে খুচরা বাজারে।

প্রকাশিত : ১৮ জানুয়ারী ২০২০

১৮/০১/২০২০ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: