১৯ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

শিমুলিয়া ঘাটে ক্ষুব্ধ জনতার হামলায় চার গাড়িসহ স্থাপনা ভাংচুর, গুলি

প্রকাশিত : ১০ অক্টোবর ২০১৯
  • উচ্ছেদ অভিযান

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটে বিআইডব্লিউটিএ’র উচ্ছেদ অভিযানকে কেন্দ্র করে গুলির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ভাংচুর করা হয়েছে ৪টি গাড়ি। এক ব্যক্তিকে আটক করে ১৫ দিনে জেল দেয়া হয়েছে। বুধবার বিআইডব্লিউটিএ’র অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের সময় এ ঘটনা ঘটে।

বুধবার লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া ঘাট এলাকায় উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছে বিআইডব্লিউটিএ। সারাদেশে বিআইডব্লিউটিএর জায়গায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযানের অংশ হিসেবে এ অভিযান চালানো হয়। বুধবার দুপুরে লৌহজং থানা পুলিশ ও শিমুলিয়া নৌ পুলিশের সহযোগিতায়। বিআইডব্লিউটিএর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান এই অভিযান পরিচালনা করেন। দু’দিনব্যাপী এই অভিযানের প্রথম দিনেই শতাধিক স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে। বিআইডব্লিউটিএ সূত্রে জানা যায়, বুধবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টার মধ্যে অবৈধ স্থাপনা ও মালামাল সরিয়ে নেয়ার জন্য বলা হয়। এর আগে নোটিস করলেও কেউ স্থাপনা সরিয়ে নেননি। তাই বুধবার সকাল থেকে বিআইডব্লিউটিএর এস্কেভেটর (ভেকু) দিয়ে শতাধিক স্থাপনা ভেঙ্গে গুঁড়িয়ে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। দুপুর ১টা থেকে অভিযান শুরু হওয়া এই উচ্ছেদ অভিযান চলে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

দুপুরে অভিযান শুরুর পর একের পর এক দোকান ঘর গুঁড়িয়ে দিচ্ছিল বিআইডব্লিউটিএর বিশালাকার ভেকু। প্রথম শুধু টং ঘর উচ্ছেদের কথা বলা হলেও হোটেল রেস্টুরেন্টসহ একের পর এক গুঁড়িয়ে দেয়া হয় ঘাটের সব দোকান পাট। বিকেলে ঘাটে দক্ষিণ দিকে নিরালা হোটেলের কাছে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনার সময় স্থানীয়রা ক্ষুব্ধ হয়ে বিআইডব্লিউটিএর আভিযানিক দলের ওপর হামলা চালায় তারা। এ সময় তারা একটি মাইক্রো, একটি প্রাইভেট কারসহ দুটি বাস ভাংচুর করে। তাদের দাবি নিরালা হোটেলের ওই পাশটি ব্যক্তি মালিকানার জায়গায়। বিআইডব্লিউটিএ অবৈধভাবে এ দোকানঘরগুলো উচ্ছেদ করছিল । বিক্ষোভকারীরা বিআইডব্লিউটিএর ১টি টিনশেড যাত্রী ছাউনি ও ট্রাফিক পুলিশের কন্ট্রোলরুমও ভাংচুর করে। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের আদেশের পুলিশ ৪ রাউন্ড গুলি চালায়।

প্রকাশিত : ১০ অক্টোবর ২০১৯

১০/১০/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: