১৪ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

দানাদার খাদ্যশস্য উৎপাদনে বাংলাদেশ প্রায় স্বনির্ভর ॥ কৃষিমন্ত্রী


দানাদার খাদ্যশস্য উৎপাদনে বাংলাদেশ প্রায় স্বনির্ভর ॥ কৃষিমন্ত্রী

সংসদ রিপোর্টার ॥ বর্তমান সরকার রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে কৃষি উৎপাদনে অসামান্য সফলতা অর্জিত হয়েছে। দানাদার খাদ্যশস্যসহ সকল প্রকার ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে। দানাদার খাদ্যশস্যে (চাল, গম, ভূট্টা) বাংলাদেশ প্রায় স্বনির্ভর। দেশের চাহিদা অনুযায়ী সকল ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য সরকারের সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সোমবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকার দলীয় সংসদ সদস্য মামুনুর রশীদ কিরণের প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে এ তথ্য জানান কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী।

সংসদ সদস্য মমতাজ বেগমের প্রশ্নের জবাবে কৃষিমন্ত্রী জানান, কৃষি মন্ত্রণালয় দেশের কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের সঙ্গে সম্পৃক্ত। কৃষিপণ্যের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করা সরাসরি কৃষি মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রমের আওতাভূক্ত নয়। তবে দেশের কৃষকরা যাতে তাঁদের উৎপাদিত ফসলের সঠিক মূল্য পায় সে বিষয়ে কৃষি মন্ত্রণালয় সচেষ্ট। কৃষি মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে কিছু কার্যক্রম গ্রহণ করেছে।

তিনি জানান, কৃষকগণ যাতে তাদের উৎপাদিত ফসল, শাকসবজি বিক্রম করে অধিক লাভবান হতে পারে সে লক্ষ্যে ২য় শস্য বহুমুখীকরণ প্রকল্প (এসসিডিপি)’র আওতায় কৃষি পণ্য সংগ্রহ ও বিক্রয় কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। কৃষকরা তাদের উৎপাদিত কৃষিপণ্য সেখানে বিক্রয় করে লাভবান হচ্ছেন। এছাড়া সমন্বিত খামার ব্যবস্থাপনা কম্পোনেন্ট প্রকল্পের আওতায় বাজার সংযোগ সংক্রান্ত কৃষক মাঠ স্কুলের মাধ্যমে বাজার সংযোগের বিষয়ে কৃষকদের অবহিত করা হচ্ছে।

কৃষিমন্ত্রী এ প্রসঙ্গে আরও জানান, কৃষকদের উৎপাদিত মৌসুমী ফসল একই সময়ে বাজারজাত হওয়ায় বাজার মূল্য কিছুটা কম পায়। এজন্য কৃষকদের ফসল সংগ্রহের পর কিছু সময় সংরক্ষণের জন্য তাদের প্রশিক্ষণ ও উদ্বৃদ্ধ করা হচ্ছে। জৈব সার, গুটি ইউরিয়া ব্যবহার, সেচে কম পানি ব্যবহার, পার্চিং, আলোর ফাঁদ, সেক্স ফেরোমেন ব্যবহারসহ রাসায়নিক সার ও কীটনাশকের খরচ কমিয়ে উৎপাদন ব্যয় নি¤œপর্যায়ে রাখার জন্য কৃষকদেরকে পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে।

সরকার দলীয় সংসদ সদস্য মুহাম্মদ গোলাম মোস্তফা বিশ্বাসের প্রশ্নের জবাবে মতিয়া চৌধুরী জানান, বিনাসুদে কৃষি ঋণ বিতরণের বিষয়টি অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সঙ্গে সম্পর্কিত। কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ সংস্থা সাধারণত বিনামূল্যে বীজ বিতরণ করে না। তবে সরকার কর্তৃক গৃহীত বিভিন্ন প্রণোদনা কর্মসূচীর আওতায় দেশের সকল জেলার ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদেরকে কিছু কিছু ফসলের বীজ বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়ে থাকে।

জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ফখরুল ইমামের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, বর্তমান সরকার রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে দেশের কৃষকদের কল্যাণকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়েছে। খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে কৃষিবান্ধব নীতি গ্রহণ ও সেগুলো বাস্তবায়নের জন্য যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। ফলে দানাদার খাদ্যশস্যসহ সকল প্রকার ফসল উৎপাদনে অসামান্য সফলতা অর্জিত হয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: