১৩ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে নির্বাচন পরবর্তী সংঘর্ষ ॥ ইউএনও অফিসে ভাংচুর আগুন


নিজস্ব সংবাদদাতা, টাঙ্গাইল ॥ টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলায় সোমবার সকালে ইউপি নির্বাচন পরবর্তী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। পরাজিত এক স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ হয়। এ সময় বিক্ষুদ্ধরা উপজেলা অফিসে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও কয়েকটি মোটর সাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। সংঘর্ষে দেলদুয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) ওসমান গনিসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে বেশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে আইনশৃঙখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।

দেলদুয়ার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহাদত হোসেন কবির জানান, সোমবার সকাল ১০টার দিকে সদ্য সমাপ্ত দেলদুয়ার উপজেলার আটিয়া ইউনিয়নে পরাজিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী সাজ্জাদ হোসেন আজাদ পুনরায় ভোট গননার দাবিতে উপজেলা পরিষদের সামনে তার কর্মীসমর্থকদের নিয়ে উপস্থিত হয়। এক পর্যায়ে উপজেলা নির্বাচন অফিস ও ইউএনও অফিস ঘেরাও করে। এতে পুলিশ বাঁধা দিলে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে সংঘর্ষ বাঁধে। বিক্ষুদ্ধ লোকজন ইউএনও অফিসের নীচতলায় ব্যাপক ভাংচুর চালায়। সেখানে বেশ কয়েকটি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে। এতে পুলিশ ও নারী কর্মীসমর্থকরাসহ অন্তত ১৫জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে তিনজনকে টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত শনিবার ৭ মে দেলদুয়ার উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে আটিয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম মল্লিক চেয়ারম্যান পদে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়। উক্ত নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী সাজ্জাদ হোসেন আজাদ পরাজিত হন। এরপর থেকেই তিনি পুনরায় ভোট গননার দাবি জানিয়ে আসছেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: