মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৩ আগস্ট ২০১৭, ৮ ভাদ্র ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

ধারাবাহিকতা রাখতে চান উইলিয়ামসন

প্রকাশিত : ১৮ ডিসেম্বর ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ঘরের মাটিতে গত কয়েক বছর ধরেই অপ্রতিরোধ্য নিউজিল্যান্ড। টানা ১৩ টেস্টে কোন পরাজয় দেখেনি তারা ঘরের মাঠে। এবার সফরকারী শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে প্রথম টেস্ট জিতে। আজ থেকে হ্যামিল্টনে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট শুরু হয়েছে। এ টেস্টে ড্র করলেই টানা অপরাজিত থাকার নতুন রেকর্ড গড়ার পাশাপাশি সিরিজও জিতে নেবে স্বাগতিকরা। তবে জয়-পরাজয়ের চেয়ে দলের নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান কেন উইলিয়ামসনের নজর ভাল খেলার ধারাবাহিকতা রাখা। তিনি মনে করেন দ্বিতীয় টেস্টে সফরকারী শ্রীলঙ্কা ভাল একটি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেবে।

প্রথম টেস্টে ভালভাবেই জয় তুলে নিয়েছে নিউজিল্যান্ড। দ্বিতীয় টেস্টের ভেন্যু হ্যামিল্টনের সেডন পার্কের সবুজ উইকেট নিয়ে বেশ আলোচনা হয়েছে গত কয়েকদিন। পেসস্বর্গ হিসেবে গড়ে তোলা হ্যামিল্টনের উইকেটে ব্যাটসম্যানদের জন্য বড় পরীক্ষা হবে। এ বিষয়ে উইলিয়ামসন বলেন, ‘আমরা এ মাঠে প্রচুর খেলেছি এবং সবসময়ই ঘাসে ঢাকা উইকেট ছিল। আমি মনে করি এটা ক্রিকেটের জন্য খুব ভাল একটা মাঠ। কিন্তু যদি বলে যথেষ্ট সুইং পাওয়া যায় সেক্ষেত্রে বোলারদের অনেকখানি এগিয়ে রাখবে। আমরা অস্ট্রেলিয়া থেকে ফিরেও এখানে ঘাসে ঢাকা উইকেটে প্রথমশ্রেণীর ম্যাচ খেলেছি এবং তখন অনেক সুইং ছিল যা অনেক বড় ভূমিকা রেখেছিল। যদি উইকেটের নিচের অংশ শক্ত থাকে সেক্ষেত্রে অনেক গতিও পাওয়া যাবে। আমি নিশ্চিত শুরুর দিকে এটা অনেক কঠিন হবে এবং নতুন বলে অনেককিছুই হয় তো পরিবর্তন করে দেবে।’ কাউন্টি ক্রিকেটে গ্লচেস্টারশায়ারের হয়ে প্রচুর খেলেছেন উইলিয়ামসন। সে কারণে এ ধরনের উইকেট সম্পর্কে বেশ ভাল ধারণা আছে তার। কিন্তু এই বেশি জানাটাই হিতে- বিপরীত হয়ে যেতে পারে বলে শঙ্কা উইলিয়ামসনের। তিনি বলেন, ‘পিচের চেহারা যেমন সেটা অনেক সময় আচরণে বিপরীত হয়। যেমন স্পিনবান্ধব উইকেটেও একটা সোজা বল কোন ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে পাঠাতে পারে। এই উইকেট আমাকে ইংলিশ কন্ডিশনের কথা মনে করিয়ে দিচ্ছে। একটা অনেক ভাল বল হতে পারে কোন ব্যাটিং সহায়ক উইকেটেও। তাই পিচের প্রতি মনোনিবেশ করে বুঝেশুনে খেলা জরুরী। আমার বিশ্বাস আছে যে আমাদের দলের খেলোয়াড়রা সেটা করতে সক্ষম এবং আমরা নিজেদের ঠিকভাবে প্রয়োগ করতে পারলে অনেক রান করতে সক্ষম হব এখানে।’

চলতি বছর দুর্দান্ত ফর্মে আছেন উইলিয়ামসন। এ বছর ৮৮.৫৮ গড়ে ৭ টেস্টে তিনি করেছেন ১০৬৩ রান। বছরের সর্বাধিক টেস্ট রান সংগ্রহকারীদের তালিকায় পাঁচে অবস্থান হলেও কিউই ব্যাটসম্যানদের মধ্যে তিনিই সবার ওপর। কিন্তু চলতি সিরিজে তিনি আঙ্গুলের ইনজুরি নিয়েই খেলছেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘কিছু বল লেগেছে আমার ইনজুরি আক্রান্ত আঙ্গুলে। এটায় কিছুটা ব্যথাও আছে। কিন্তু আমি মনে করি না কেউ সবদিন ১০০ ভাগ খেলতে পারে। এটাই পেশাদার ক্রীড়ার স্বাভাবিক নিয়ম।’ ইতোমধ্যে সিরিজে এগিয়ে থাকলেও উইলিয়ামসন মনে করেন লঙ্কানরা এক টেস্ট খেলে ইতোমধ্যেই পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে উঠেছে। তাই চ্যালেঞ্জ আশা করছেন তিনি। উইলিয়ামসন বলেন, ‘আমাদের ঘরের মাটিতে টেস্টের টানা সাফল্যটা খুব ভাল এক পরিসংখ্যান। আমাদের উচিত হবে ধারাবাহিকতা রাখার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা করা। কিন্তু আমি নিশ্চিত ইতোমধ্যেই পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে উঠেছে শ্রীলঙ্কা এবং অনেক কিছু শিখেছে। তাই খুব ভাল একটি ম্যাচ হবে বলে আশা করছি।’

প্রকাশিত : ১৮ ডিসেম্বর ২০১৫

১৮/১২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



শীর্ষ সংবাদ: