মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১২ আশ্বিন ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

হ্যামিল্টন টেস্ট ॥ লঙ্কানদের সিরিজ বাঁচানোর লড়াই

প্রকাশিত : ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ হ্যামিল্টনে শুক্রবার (বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৩টায়) শুরু নিউজিল্যান্ড-শ্রীলঙ্কা দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট। প্রথম ম্যাচ জিতে ১-০তে এগিয়ে রয়েছে স্বাগতিক কিউইরা। সিরিজ বাঁচাতে হলে এখানে তাই জিততেই হবে অতিথিদের। লঙ্কানদের জন্য কাজটা কঠিন। প্রথম টেস্টে নিউজিল্যান্ডের কাছে পাত্তা পায়নি এশিয়ার অন্যতমসেরা এই দলটি। ১২২ রানের বিশাল ব্যবধানে হারতে হয়েছে সফরকারীদের। ডুনেডিনের তীব্র ঠা-ায় এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসদের অবস্থা হয়েছিল জবুথবু। এমনকি নিজেদের প্রত্যাশা মতো ফিল্ডিংও করতে পারেনি তারা। অথচ সেখানে উইকেট মন্দ ছিল না। এবার ঠা-া কিছুটা কমলেও ভয়ঙ্কর বাউন্স নিয়ে তৈরি হ্যামিল্টন। সবুজ ঘাসে ভরা সিডন পার্কের পিচ। আরও কঠিন পরীক্ষায় পড়তে হবে বলেই মনে করছেন লঙ্কান কোচ জেরম জয়ারতেœ। অন্যদিকে কোন রকম ছাড় না দিয়ে প্রতিপক্ষকে ‘হোয়াইওয়াশের’ হুঙ্কার ছুড়েছেন নিউজিল্যান্ড বোলিং কোচ দিমিত্রি মাসকারেনহাস।

‘আমার ধারণা হ্যামিল্টনের পিচ মোটেই স্পিনবান্ধব হবে না। সেখানে প্রচুর ঘাস রয়েছে। কিউই পেসারদের বিপক্ষে আমাদের ব্যাটসম্যানদের জন্য এবার চ্যালেঞ্জটা আরও বেশি। ঠা-া হয়ত একটু কম থাকবে, তবে সেটি বড় কথা নয়। ডুনেডিনে তুলনামূলক সেøা পিচেও আমাদের ব্যাটিং ভাল হয়নি। বিশেষ করে টপঅর্ডারে বেশিরভাগ ব্যাটসম্যানই ব্যর্থ। এবার ঘাসে ভরা বাউন্সি উইকেটে ওদের সামর্থ্যরে সেরাটা দিতে হবে।’ বলেন লঙ্কান কোচ জয়ারতেœ। ডুনেডিনে কার্যত কিউইদের কাছে পাত্তা পায়নি ম্যাথুসরা। ম্যাচের নায়ক মার্টিন গাপটিলের অনবদ্য সেঞ্চুরির (১৫৬) ওপর ভর করে প্রথম ইনিংসে ৪৩১ রান করে নিউজিল্যান্ড। জবাবে ২৯৪ রানে অলআউট হয় শ্রীলঙ্কা। স্বাগতিকরা ৩ উইকেটে ২৬৭ রানে ইনিংস ঘোষণা করলে জয়ের জন্য শ্রীলঙ্কার সামনে ৪০৫ রানের বিশাল লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারিত হয়। কিন্তু ২৮২ রানে গুটিয়ে গিয়ে ম্যাথুসের দল হারে ১২২ রানে।

যদিও প্রথম ম্যাচের হারটিকে খুব বড় করে দেখতে চাইছেন না লঙ্কাপতি। এটিকে অভিজ্ঞতা অর্জন বলে মনে করেন তিনি, ‘প্রচ- ঠা-া ও বিরূপ পরিবেশে ডুনেডিনের ম্যাচটা এক রকমের শিক্ষা। আমাদের প্রায় সব ব্যাটসম্যানই ভাল। তারা প্রতিভাবান, টেকনিকেও ঘাটতি নেই। সমস্যা কেবল মানসিকতায়! যার শিক্ষাটা আমার ভালভাবেই পেয়েছি। আশা করছি দ্বিতীয় টেস্টে এই শিক্ষাটা কাজে লাগবে।’ হেরে যাওয়া ম্যাচে ওপেনার দিমুথ করুনারতেœ (৮৪, ২৯) ও প্রতিভাবান দিনেশ চান্দিমালের (৮৩, ৮৪) ব্যাটিং লঙ্কানদের অনুপ্রাণিত করবে বলেও মনে করেন তিনি। ম্যাথুসরা যখন অনুপ্রেরণা খুঁজতে ব্যস্ত তখন সাফল্যের ধারা অব্যাহত রাখতে চায় স্বাগতিকরা। হ্যামিল্টনে দুই স্পিনার নিয়ে নামার ইঙ্গিত দিয়েছেন নিউজিল্যান্ড বোলিং কোচ দিমিত্রি মাসকারেনহাস। তাহলে কি শেষ মুহূর্তে সিডন পার্কের ঘাস ছেঁটে ফেলা হবে? তেমনটা হলে বাড়তি সুবিধা পাবে সফরকারীরাও। কারণ তাদের হাতে রয়েছে রঙ্গনা হেরাথের মতো বিশ্বমানের স্পিনার। ‘সত্যি বলতে ডুনেডিনের ফ্ল্যাট উইকেটেও আমার ছেলেরা অসাধারণ বোলিং করেছে। ওরা সামর্থ্যরে পরিচয় দিয়েছে, এখন সময় ধারাবাহিকতা ধরে রাখার। সেটি ফ্ল্যাট বা টার্নিংÑ উইকেট যেমনই হোক। আমরা দুই স্পিনার খেলাতে পারি। শেষ মুহূর্তে দেখা উইকেটের ওপর নির্ভর করবে।’

প্রকাশিত : ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫

১৭/১২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



শীর্ষ সংবাদ: