২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নারায়ণগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনায় পুলিশ-ট্রাক শ্রমিক সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ ৫ সড়ক অবরোধ


নিজস্ব সংবাদদাতা, নারায়ণগঞ্জ, ১৪ ডিসেম্বর ॥ নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সার সিটে বসা নিয়ে পুলিশ ও ট্রাক শ্রমিকের সংঘর্ষে ৫ জন গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছে কমপক্ষে ২০ জন। আহতদের মধ্যে ৫/৬ জন পুলিশ সদস্য রয়েছেন। আহতদের নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে ট্রাক শ্রমিকরা ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ সড়ক আধঘণ্টা অবরোধ করে টায়ারে অগ্নিসংযোগ করে এবং বেশ কয়েকটি যানবাহন ও সিটি কর্পোরেশনের পার্ক এ্যাডভেঞ্চার ল্যান্ড ভাংচুর করে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার দুপুরে সদর উপজেলার পঞ্চবটি এলাকায়।

জানা গেছে, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শহরের মাসদাইর এলাকা থেকে ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সাযোগে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের কনস্টেবল আজাদ ও ফতুল্লা ট্রাক শ্রমিক সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুল ফতুল্লা যাচ্ছিল। অটোরিক্সায় বসা নিয়ে কনস্টেবল আজাদের সঙ্গে শ্রমিক নেতা আমিনুল ইসলামের বাগ্বিত-া হয়। একপর্যায়ে শ্রমিকনেতা আমিনুল পুলিশ সদস্য আজাদকে মারধর করে তার মাথা ফাটিয়ে দেয়। পরে পঞ্চবটিতে কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ শ্রমিক নেতা আমিনুলকে আটক করে। এ ঘটনার খবর পেয়ে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ট্রাক শ্রমিকরা লাঠিসোটা নিয়ে বেশ কয়েকটি যানবাহন ও সিটি কর্পোরেশনের এ্যাডভেঞ্চারল্যান্ড পার্ক ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে ভাংচুর করে। তারা ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ সড়কের পঞ্চবটিতে টায়ার জ্বালিয়ে আধঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে রাখে। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে ২০/৩০ রাউন্ড গুলি ছুড়ে পরিবহন শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে গুলিবিদ্ধ হয়েছে রহিম, এনায়েত, ফারুক, হাসান, আল-আমিন নামের ৫ জন। এই ঘটনায় পুলিশের কয়েক সদস্যও আহত হয়েছেন। আহত শ্রমিকদের নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

ফতুল্লা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক এসটি আলমগীর জানান, ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সায় আরোহী ছিল আমাদের এক শ্রমিক। এ সময় একজন লোক উঠে সিট ছাড়তে বলে, না ছাড়ায় তাকে সে থাপ্পড় মারে। ওই সাদা পোশাকের লোক আসলে বলে তুই কে, তখন শ্রমিক নেতা নিজের পরিচয় দেয়ার পরও তাকে আটক রাখা হয়। এই ঘটনায় ট্রাক শ্রমিকরা রাস্তায় নেমে আসে।

এ ব্যাপারে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোঃ মহিবুল ইসলাম জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিশ সদস্যকে মারধর করা হয়। এ সময় ৪ ট্রাক শ্রমিককে আটক করা হলে ট্রাক শ্রমিকরা সড়ক অবরোধ ও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোড়ে। পুলিশ ফাঁকাগুলি ছুড়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এই ঘটনায় ৫/৬ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: