মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৪ আগস্ট ২০১৭, ৯ ভাদ্র ১৪২৪, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

জাপা নেতাকর্মীদের সাড়ে সাত লাখ টাকা ভাগবাটোয়ারা

প্রকাশিত : ৮ জুলাই ২০১৫
  • কক্সবাজারে সৌরবিদ্যুত প্রকল্প

এইচএম এরশাদ, কক্সবাজার ॥ কক্সবাজারের পেকুয়ায় বিভিন্ন মসজিদ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সোলার স্থাপন প্রকল্পের নামে স্থানীয় জাপা নেতাকর্মীরা সাড়ে সাত লাখ টাকা ভাগ-বাটোয়ারা করে নিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কৌশলে প্রকল্পের অর্থ আত্মসাৎ করতে স্থানীয় জাপা নেতাকর্মীদের একাধিক প্রকল্প কমিটির সভাপতিও করা হয়েছে। আর এসব প্রকল্পের সব ডিও স্থানীয় প্রভাবশালী জাপা নেতা বদিউল আলম আয়ত্তে নিয়ে গেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তার মর্জির ওপরেই প্রকল্প বাস্তবায়নে ভাগ্য নির্ধারিত হতে চলছে বলে স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

অভিযোগ উঠেছে, পেকুয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ের অফিস সহকারী ওমর আলী প্রমাণিকের সহায়তায় এসব প্রকল্পের ডিও হাতিয়ে নিয়েছেন ওই জাপা নেতা। এ নেতার মালিকানাধীন ‘ইউনাইটেড সোলার এন্টারপ্রাইজ’ নামে উপজেলা সদরের চৌমুহনীতে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। তিনি কৌশলে প্রকল্পের সব ডিও হাতিয়ে নিয়ে চকরিয়া সোনালী ব্যাংক থেকে প্রকল্পের প্রায় সাড়ে ৭ লাখ টাকা তুলে নিজের এ্যাকাউন্টে স্থানান্তর করেছেন বলে তথ্য মিলেছে। এখন ওই জাপা নেতা বদিউল আলমের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট প্রকল্প কমিটির লোকজনকে বলা হচ্ছে, তাদের প্রকল্পে ‘ইউনাইটেড সোলার এন্টারপ্রাইজ’ থেকে সোলার যন্ত্রপাতি সরবরাহ করা হবে। সরকারী টিআর প্রকল্পের নিয়ম হচ্ছে সংশ্লিষ্ট প্রকল্প কমিটি গৃহীত প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়ন করবে, আর কাজ শেষে তারাই উপজেলা পিআইও অফিসে কাজের মাস্টার রোল জমা দেবে। কিন্তু ওই সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে না পেকুয়ায়। ফলে সুষ্ঠুভাবে সোলার প্রকল্প বাস্তবায়ন নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্যের প্রভাব খাটিয়ে জাপা পেকুয়া উপজেলা নেতা হাজী বদিউল আলম সোলার স্থাপনের ৩০ প্রকল্পের সভাপতি-সম্পাদকদের কাছ থেকে কৌশলে হাতিয়ে নিয়েছেন বরাদ্দের ছাড়পত্র (ডিও)। এখন তিনি তার প্রতিষ্ঠান থেকে সোলার প্রকল্পের বিভিন্ন উপকরণ সরবরাহ করার কথা বলে বেড়াচ্ছেন।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, চার প্রকল্পে জাপা নেতা বদিউল আলম সোলার সরঞ্জাম স্থাপন করেননি।

রূপগঞ্জে দুই মহাসড়কে দীর্ঘ যানজট ॥ ভোগান্তি

নিজস্ব সংবাদদাতা, রূপগঞ্জ ৭ জুলাই ॥ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক ও এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কের উভয় পাশে প্রায় ১২ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে দীর্ঘ এ যানজটের সৃষ্টি হয়। ঈদকে সামনে রেখে যানবাহনের অতিরিক্ত চাপের কারণেই এ যানজট সৃষ্টি হয়েছে বলে স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছেন।

পরিবহন শ্রমিক ও যাত্রীসাধারণ জানান, দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ভুলতা গোলচত্বর এলাকা ও এশিয়ান হাইওয়ে (বাইপাস) সড়কের গোলাকান্দাইল চৌরাস্তা এলাকায় যানবাহনের প্রচ- চাপের সৃষ্টি হয়। বিশেষ করে গাউছিয়া পাইকারী বাজারে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড় ও সড়কে যানবাহনে ক্রয়কৃত যাকাতের কাপড় লোড-আনলোডের কারণেও যানজট সৃষ্টির আরেকটা কারণ। এতে করে আটকা পড়ে যায় শত শত যানবাহন। সৃষ্টি হয় যানজটের। উভয় সড়কে প্রায় ১২ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়। অপরদিকে, রূপগঞ্জ থানা পুলিশ, ট্রাফিক পুলিশ ও কাঁচপুর হাইওয়ে থানা পুলিশের সদস্যরা যানজট নিয়ন্ত্রণে আনতে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

প্রকাশিত : ৮ জুলাই ২০১৫

০৮/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ:
ঘূর্ণিঝড়, পাহাড় ধস, বন্যা ॥ দুর্যোগ পিছু ছাড়ছে না || বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্যের শিকার পরিবারগুলোকে প্রধানমন্ত্রীর অনুদান || বিটি প্রযুক্তির ব্যবহার দেশকে কৃষিতে ব্যাপক সাফল্য এনে দিয়েছে || রিজার্ভের চুরি যাওয়া অর্থ পুরো ফেরত পাওয়া যাবে || গ্রেনেড হামলা মামলার পলাতক ১৮ আসামিকে ফেরত আনার চেষ্টা || অনেক সড়ক মহাসড়ক পানির নিচে মহাদুর্ভোগের শঙ্কা || খাদ্য প্রক্রিয়াজাত শিল্পে ’২১ সালের মধ্যে বিলিয়ন ডলার রফতানি || নূর হোসেনের দম্ভোক্তি উবে গেছে, কালো মেঘে ছেয়েছে মুখ || জবাবদিহিতা না থাকা ও রাজনৈতিক প্রভাবে পাউবো প্রকল্পে দুর্নীতি || রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে আজ চূড়ান্ত রিপোর্ট দিচ্ছে আনান কমিশন ||