ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ১৯ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১

‘তামিমকে ওপেনিংয়ে খেলতে না বলার প্রস্তাব দোষের নয়’

প্রকাশিত: ১১:০২, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩

‘তামিমকে ওপেনিংয়ে খেলতে না বলার প্রস্তাব দোষের নয়’

তামিম ইকবাল ও সাকিব।

বিশ্বকাপ দলে ওপেনার তামিম ইকবালের জায়গা না হওয়া নিয়ে আলোচনা যেন থামছেই না। আর এ নিয়ে নতুন করে মন্তব্য করেছেন দলের অধিনায়ক সাকিব। 

বেসরকারি এক টেলিভিশনে বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) রাতে প্রচার হওয়া এক সাক্ষাৎকারে নিজের মতো করে তামিম ইকবালের বিষয়ে নানা ধরণের মন্তব্য করেছেন সাকিব।

বিশ্বকাপ দলের অধিনায়ক সাকিব বলেন, ‘যদি কেউ তাকে তিন-চারে খেলতে বলেও থাকে তাতে দোষের কিছু দেখছিনা আমি। কে তাকে প্রস্তাব দিয়েছে জানিনা, আর টপ লেভেলের কেউ দিলেও দিতে পারে। এমন তো না যে তাকে প্রস্তাবই দেওয়া যাবে না। এটা আসলে আমার কাছে মনে হয়, একদম বাচ্চা মানুষের মতো, আমার ব্যাট আমি খেলবো। আর কেউ খেলতে পারবে না।’

তামিমকে টিমম্যান না মনে করে সাকিব বলেন, 'পারসোনাল এচিভমেন্ট দিয়ে আপনি কি করবেন আসলে। আপনার নিজের নাম কামাবেন, তার মানে আপনি নিজের কথা চিন্তা করছেন। আপনি দলের কথা চিন্তা করছেন না। আপনি দলের কথা চিন্তা করছেন না মোটেও। মানুষ এই পয়েন্টগুলোই বোঝে না। আপনাকে যখন প্রস্তাবটা দেওয়া হয়েছে, কেন প্রস্তাবটা দেওয়া হয়েছে আপনার টিমের কোথা চিন্তা করেই দেওয়া হয়েছে। টিমের এভাবে হলে হয়তো টিমের জন্য ভালো হবে। সে কারণেই প্রস্তাবটা দেওয়া হয়েছে, যদি দেওয়াও হয়ে থাকে। এটাতে খারাপের কি আছে? 

দলে সুযোগ পাওয়ার নানা উপায়ের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘দলে জায়গা পেতে অনেক প্রসেসের ভেতরে দিয়ে যেতে হয়। শুধু মাঠের পারফর্মেন্সই নায়, মাঠের বাইরের, ড্রেসিং রুমের, টিম মিটিং, এটমোসফেয়ারসহ অনেক কিছু মিলেয়ে আসলে টিমটা করতে হয়। কিন্তু, এসব বিষয়ে আগের মতো এখন আর আমি বেশি ইনভলভ হইনা।’

এর আগে, দল থেকে বাদ দেওয়ার ব্যাপারে তামিম ইকবাল আকারে-ইঙ্গিতে অনেকটাই বুঝিয়ে দিলেন তার বিশ্বকাপ দলে না থাকার পেছনে ছিল গভীর ষড়যন্ত্র। বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে এক ভিডিও বার্তায় বিস্তারিত তুলে ধরেন তামিম ইকবাল।

ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘আমি নোংরামির মধ্যে থাকতে চাইনি বলেই সরে এসেছি। আমি কোনো সময়, কোনো মুহূর্তে কাউকেও বলিনি যে আমি পাঁচ ম্যাচের বেশি খেলতে পারবো না। এটা একটা মিথ্যা কথা ভুল কথা।  গত ৩-৪ মাস আমার সঙ্গে যা ঘটেছে তা সব পরিকল্পিত।’

দেশের পক্ষে ওয়ানডে সর্বোচ্চ রান করা তামিম ইকবাল বলেন, ‘বোর্ডের টপ লেভেল থেকে একজন ফোন করে আমাকে বললো, 'তুমি বিশ্বকাপে যাবা, কিন্তু তোমাকে তো ম্যানেজ করে খেলাতে হবে। একটা কাজ করো, তুমি প্রথম ম্যাচ খেলিও না।' আমি বলেছি, এখনো ১২/১৩ দিন সময় আছে। এই সময়ের মধ্যে তো আমি ভালো অবস্থায় থাকবো। তো কি কারণে খেলবো না? তখন বললো, 'আচ্ছা তুমি যদি খেলো তাহলে আমরা পরিকল্পনা করছি, তুমি নিচের দিকে খেলবা।’

তিনি বলেন, ‘স্বাভাবিকভাবে বুঝতে হবে আমি কোন মানসিকতা থেকে এসেছি। আমাকে যদি হুট করে এসব ধরণের কথা বলা হয়। আমার পক্ষে নেওয়া আসলে সম্ভব না। আমি ১৭ বছর ধরে এক পজিশনে ব্যাট করেছি। আমি জীবনে কোনদিন তিন-চারে ব্যাটিং করিনি। আমি যদি তিন চারে ব্যাট করতাম তাহলে মানিয়ে নেওয়ার মতো ছিল।’

তামিম বলেন, ‘আমি এটাও বলি, এই কথাটাই যদি আমাকে অন্যভাবে বলা হতো, হয়তো আমি মেনে নিতাম। কিন্তু হঠাৎ কোনো কারণ ছাড়া ফোন করে যদি বলে আপনি খেইলেন না, অথবা যদি খেলেনও, আমাদের এমন আলোচনা হচ্ছে আপনি নিচে ব্যাট করবেন। আসলে এটাই হয়েছে।’

এম হাসান

×