ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১

অলিম্পিক প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন সাবিনারা

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২২:৫৮, ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩; আপডেট: ২৩:১৬, ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

অলিম্পিক প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন সাবিনারা

.

গত বছর সেপ্টেম্বরে সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ জেতার পর আর কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচে খেলা হয়নি বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবলারদের। দীর্ঘ সময় পর সেই সুযোগ আবারও আসছে তাদের সামনে। আগামী এপ্রিলে অনুষ্ঠিত হবে মেয়েদের অলিম্পিক গেমস বাছাই ফুটবল। ওই আসরে খেলবেন সাবিনা খাতুনরা। অলিম্পিক গেমস বাছাইয়ে যাওয়ার আগে ১৫ ও ১৭ মার্চ ঢাকায় দুটি প্রীতি ম্যাচ খেলার কথা রয়েছে সাবিনা-কৃষ্ণাদের। প্রতিপক্ষ কম্বোডিয়া। দুটি ম্যাচই হবে কমলাপুর স্টেডিয়ামে।

তবে তার আগেই চলতি মাসেই দুটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছে বাংলার বাঘিনীরা। রবিবার কমলাপুর স্টেডিয়ামের প্রেসবক্সে হঠাৎই এসে হাজির হলেন মাহফুজা আক্তার কিরণ। এক অনির্ধারিত সংবাদ সম্মেলন করলেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) নারী ফুটবল কমিটির চেয়ারম্যান এবং এএফসির এই সদস্য। সেখানেই দিলেন সব আপডেট, ‘আপনাদের অনেকদিন থেকেই বলে আসছি আমরা সিঙ্গাপুরের সঙ্গে চেষ্টা করে যাচ্ছি ম্যাচ খেলার জন্য ফিফা উইন্ডোতে। সিঙ্গাপুর একচুয়েলি ট্রাই করেছিল একটা ট্রাই নেশন্স কাপ টুর্নামেন্ট আয়োজনের জন্য। সেখানে সিঙ্গাপুর ও বাংলাদেশসহ আরেকটি দেশের খেলার কথা ছিল, সেই দেশটিকে তারা রাজি করাতে পারেনি। যে কারণে সেটা হচ্ছে না।’ কিরণ আরও যোগ করেন, ‘এখন আমরা সিঙ্গাপুরে গিয়ে যেটা খেলব, সেটা হচ্ছে একটি ফিফা টায়ার-১ ম্যাচ। আজকে সকালেও আমরা ওদের অ্যাপ্রোচ করেছিলাম যে আমরা একটা না, দুটি ম্যাচ খেলব। বাট ওরা সেটা এগ্রি করেনি। তবে ওরা যেটা এগ্রি করেছে, সেটা হচ্ছে ফিফা টায়ার-১ ম্যাচটি খেলার পর আরেকটি ম্যাচ তারা খেলবে, সেটা হচ্ছে একটি প্র্যাকটিস ম্যাচ। এটাই হচ্ছে আজকের আপডেট।’ কিরণ জানান, আগামী এপ্রিলে কম্বোডিয়া বাংলাদেশের সঙ্গে খেলতে চেয়েছিল। কিন্তু বাফুফে বলেছিল, তারা এপ্রিলে না, মার্চে খেলতে চায়। এ প্রসঙ্গে কিরণের ভাষ্য, ‘এটা এখনো কনফার্ম হয়নি।

আশা করছি কনফার্ম হয়ে যাবে। কম্বোডিয়ার সঙ্গে ম্যাচটা (এটাও ফিফা টায়ার-১ ম্যাচ) আমরা ঢাকায় খেলবো’ সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে যখন বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হলো, তখন কিরণ গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন ২০২৩ সালে পুরো বছরজুড়ে যত ফিফা উইন্ডো থাকবে, বাফুফে চেষ্টা করবে, প্রতিটি উইন্ডোতেই ম্যাচ খেলতে। ‘এখন টায়ার-১ ম্যাচটি খেললে সেটা আমাদের কাজে লাগবে।  মেয়েদের অবস্থান আরও বুস্ট হবে। প্লাস আমাদের র‌্যাঙ্কিংটা আরও বেটার করতে পারব, যদি আমরা ভালো রেজাল্ট করি। আশাকরি আমরা ভালো রেজাল্টই করব সিঙ্গাপুরের সঙ্গে। সেই লক্ষ্য নিয়েই আমরা সেখানে যাচ্ছি’Ñ কিরণ বলেন। আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ জাতীয় নারী ফুটবল দল সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বে। ১৭ ফেব্রুয়ারি একদিন অনুশীলন করবে। টায়ার-১ ম্যাচটি খেলা হবে ১৮ ফেব্রুয়ারি। পরেরদিন ১৯ ফেব্রুয়ারি হবে প্র্যাকটিস ম্যাচটি (সিঙ্গাপুর একাদশের সঙ্গে)।  ম্যাচটি হবে অঘোষিত বা আনঅফিসিয়াল ম্যাচ, কোনো মিডিয়া কভারেজ থাকবে না। এর আগে ভারত একটি প্রস্তাব দিয়েছিল তাদের দেশে গিয়ে বাংলাদেশ দল যেন একটি ট্রাই নেশন্স টুর্নামেন্ট খেলে। কিন্তু বাফুফে সেই প্রস্তাব গ্রহণ করেনি। এ প্রসঙ্গে কিরণের ব্যাখ্যা, ‘কেননা সাফে এখন আমাদের একটা অবস্থান আছে। সেটা আমরা ধরে রাখতে চাই। আমরা চাই নিজেদের চেয়ে বেটার কোনো টিমের সঙ্গে খেলতে। আমরা এখন সেটাই চেষ্টা করে যাচ্ছি।’

×