ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

ইন্দোনেশিয়ায় ফুটবল দাঙ্গায় নিহতদের ৩২ জনই শিশু

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২১:৪১, ৩ অক্টোবর ২০২২

ইন্দোনেশিয়ায় ফুটবল দাঙ্গায় নিহতদের ৩২ জনই শিশু

দাঙ্গায় নিহতদের স্মরণ ইন্দোনেশিয়ার ক্লাব কর্মকর্তা ও ফুটবলাররা

ইন্দোনেশিয়ার এক ফুটবল স্টেডিয়ামে খেলার ফলাফলকে কেন্দ্র করে সংঘটিত দাঙ্গায় পদদলিত হয়ে কমপক্ষে ১২৫ জন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে ৩২ জনই শিশু! কর্মকর্তারাই বিষয়টি জানিয়েছেন। এর আগে নিহতদের মধ্যে ১৭ শিশু থাকার কথা বলা হয়েছিল। দেশটির নারী ক্ষমতায়ন ও শিশু সুরক্ষা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা নাহার জানিয়েছেন, নিহত শিশুদের বয়স ৩-১৭ বছর।
দেশটির ইতিহাসে তো বটেই গোটা ফুটবল দুনিয়াতেই এমন ঘটনার সংখ্যা খুব কম। ভয়াবহ দাঙ্গায় পদদলিত হয়ে নিহত হয়েছেন ১৫ বছরের আহমাদ চাহিও এবং ১৪ বছরের মুহাম্মদ ফারেল। তাদেরই বড় বোন এন্দাহ ওয়াহিউনি জানান, এই প্রথম খেলা দেখার জন্য গিয়েছিলেন তারা। কিন্তু এমন ঘটনা যে ঘটতে পারে তা ছিল তাদের কল্পনা শক্তিরও বাইরে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এমন পরিণতি ঘটবে তা আমি ও আমার পরিবার ভাবতেই পারিনি। তারা ফুটবল খেলা পছন্দ করত, কিন্তু কখনই কানজুরুহান স্টেডিয়ামে গিয়ে সরাসরি আরেমার খেলা দেখেনি। এই প্রথম খেলা দেখতে গিয়েছিল তারা।’ রবিবার ভাইদের দাফনের সময় এসব কথা বলেন তিনি। তারা সবাই আরেমা এফসির সমর্থক।
শনিবার আরেমা বনাম পারসেবায়া সুরায়া ক্লাবের ম্যাচ শেষে ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম জঘন্যতম দাঙ্গা ও পদদলনের ঘটনাটি ঘটে। ইন্দোনেশিয়ার লিগা ওয়ানের ম্যাচে ৩-২ গোলে জয় পেয়েছিল পারসেবায়া। দুই দশকের বেশি সময় পর পারসেবায়ার কাছে হারায় আরেমার সমর্থকরা তা কোনভাবেই মেনে নিতে পারছিল না। যে কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে মাঠে ঢুকে পড়ে দাঙ্গা শুরু করলে তাদের হটাতে পুলিশ কাঁদুনে গ্যাস ছোড়ে। তখনই আতঙ্কিত হয়ে স্টেডিয়াম থেকে একযোগে বের হওয়ার চেষ্টা করলে পদদলনের এমন ঘটনা ঘটে। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নিরাপত্তাজনিত উদ্বেগ থেকে পারসেবায়ার সমর্থকদের কাছে টিকেট বিক্রি করা হয়নি। মন্ত্রী মাহফুদ জানান স্টেডিয়ামটিতে ধারণ ক্ষমতার চেয়েও বেশি দর্শক ছিল।

monarchmart
monarchmart