ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০

ওজনিয়াকি-কারবার সেমিফাইনালে

প্রকাশিত: ০৫:০০, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

ওজনিয়াকি-কারবার সেমিফাইনালে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ডব্লিউটিএ দুবাই চ্যাম্পিয়নশিপে পারফর্মেন্সের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছেন এ্যাঞ্জেলিক কারবার, এলিনা সিতলিনা এবং ক্যারোলিন ওজনিয়াকি। বৃহস্পতিবার কোয়ার্টার ফাইনালে জার্মান তারকা এ্যাঞ্জেলিক কারবার ৬-৩ ও ৬-২ সেটে পরাজিত করেন ক্রোয়েশিয়ার আনা কুঞ্জকে। দিনের অন্য ম্যাচে টুর্নামেন্টের সপ্তম বাছাই এলিনা সিতলিনা ৬-০ ও ৬-৪ সেটে উড়িয়ে দেন লরেন ডেভিসকে। ডেনমার্কের ক্যারোলিন ওজনিয়াকি ৬-৩ ও ৬-২ সেটে পরাজয়ের স্বাদ উপহার দেন দুর্দান্ত গতিতে ছুটতে থাকা আমেরিকার ক্যাথেরিন বেলিসকে। দুটি গ্র্যান্ডসøাম জিতে গতবছরই প্রথমবার টেনিস বিশ্বের পাদপ্রদীপের আলোয় উঠে আসেন এ্যাঞ্জেলিক কারবার। প্রথমবারের মতো বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থানও দখল করে নেন জার্মানির এই টেনিস তারকা। কিন্তু গত মাসে আমেরিকান টেনিসের জীবন্ত কিংবদন্তি সেরেনা উইলিয়ামসের কাছে রাজত্ব হারিয়ে ফেলেন স্টেফিগ্রাফের এই উত্তরসূরি। তবে আবারও র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থান ফিরে পাওয়ার হাতছানি কারবারের সামনে। কিন্তু জার্মান তারকার চোখ অবশ্য র‌্যাঙ্কিং নয় বরং প্রতিপক্ষের বিপক্ষে নিজের সেরাটা উপহার দিতে পারলেই সন্তুষ্ট তিনি। তাই সেমিফাইনালে এলিনা সিতলিনার ম্যাচের দিকেই সকল মনোযোগ তার। এ বিষয়ে আনা কুঞ্জকে হারানোর পরই এ্যাঞ্জেলিক কারবার বলেন, ‘ম্যাচের পারফর্মেন্সে আমি খুবই আনন্দিত। প্রতিপক্ষ হিসেবে আনা সবসময়ই কঠিন। জয়ের লক্ষ্য নিয়েই কোর্টে নামে সে। তার বিপক্ষে আপনাকে শেষ পয়েন্ট পর্যন্তই লড়াই করতে হবে। তাই তাকে দ্বিতীয় সেটে হারানোটা খুবই আনন্দের।’ সেমিফাইনাল সম্পর্কে কারবার বলেন, ‘আমি কেবল আমার নিজের খেলার দিকেই মনোযোগী। গত কয়েকদিন যেরকম ছন্দ খুঁজে পেয়েছি সেগুলো থেকে অনুপ্রেরণা নিয়েই সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চাই। তবে সিতলিনার বিপক্ষে ম্যাচটাও যে কঠিন হবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। তার বিপক্ষে আমাকে আক্রমণাত্মক খেলতে হবে। অবশ্যই পরের ম্যাচটাকেও উপভোগ করতে চাই। আরও একটি জয়ের লক্ষ্য নিয়েই কোর্টে নামব আমি।’ টুর্নামেন্টের সপ্তম বাছাই সিতলিনা। কোয়ার্টার ফাইনালে লরেন ডেভিসকে অনায়াসেই হারান তিনি। সেই ম্যাচ জিতেই তৃপ্ত ইউক্রেনের এই টেনিস তারকা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি যেভাবে এখানে শুরু করেছি তাতে খুবই সন্তুষ্ট। ম্যাচে আমি খুবই আক্রমণাত্মক ছিলাম এবং এটা কাজে লেগেছে। এমন পারফর্মেন্সে আমি খুবই আনন্দিত।’ ডব্লিউটিএ দুবাই চ্যাম্পিয়নশিপে ফেবারিটের তকমা মাখানো ক্যারোলিন ওজনিয়াকির গায়েও। দারুণ জয়েই শেষ চারে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। শেষ আটে ড্যানিশ টেনিস তারকা অনায়াসেই পরাজয়ের স্বাদ উপহার দেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাথেরিন বেলিসকে। ১৭ বছর বয়সী ক্যাথেরিন বেলিস এই টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই চমক উপহার দেন। তৃতীয় রাউন্ডের ম্যাচে তো চতুর্থ বাছাই পোল্যান্ডের এ্যাগ্নিয়েস্কা রাদওয়ানস্কাকে বিদায় করে দেন তিনি। অথচ ২০১২ সালে এই টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতেছিলেন রাদওয়ানস্কা। সেমিফাইনালে ক্যারোলিন ওজনিয়াকির প্রতিপক্ষ এ্যানাস্তাসিয়া সেভাস্তোভা। লাটভিয়ার এই টেনিস তারকা বৃহস্পতিবার কোয়ার্টার ফাইনালে ৬-৪ ও ৭-৫ সেটে পরাজিত করেন ওয়াং কিয়াংকে। যিনি চীনের শেষ প্রতিনিধি হিসেবে দুবাই চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ের স্বপ্ন দেখছিলেন।
×