ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

এমপি আনারের মরদেহের ৪ কেজি মাংস উদ্ধার?

প্রকাশিত: ২০:১২, ২৮ মে ২০২৪

এমপি আনারের মরদেহের ৪ কেজি মাংস উদ্ধার?

এমপি আনোয়ারুল আজীম আনার।

কলকাতার সঞ্জীবা গার্ডেন্সের সেপটিক ট্যাংক থেকে একটি মরদেহের খণ্ডিতাংশের অন্তত চার কেজি মাংস উদ্ধার হয়েছে। ধারণা, এটিই ঝিনাইদহ-৪ আসনের এমপি আনোয়ারুল আজীমের মরদেহের খণ্ডিতাংশ। তবে এই দেহাংশ যে আনোয়ারুল আজিম আনারের তা এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত করেনি ঢাকা মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। 

মঙ্গলবার (২৮ মে) সঞ্জীবা গার্ডেন্সের একটি সেপটিক ট্যাংক থেকে এই মাংস উদ্ধার করা হয় বলে দাবি করা হয়।  

সংসদ সদস্য আনার হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় কলকাতায় যাওয়া ঢাকা মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা ওয়ারী বিভাগের ডিসি মো. আব্দুল আহাদ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমরা কলকাতা স্থানীয় সাংবাদিক ও গণমাধ্যম সূত্রে জানতে পেরেছি, সঞ্জীবা গার্ডেন্সের সেপটিক ট্যাংক থেকে একটি মরদেহের দেহাংশ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে সেটি সদস্য আনারের কি না তা আমরা এখনও নিশ্চিত নই। তাছাড়া কলকাতা সিআইডি বা পুলিশ আমাদের এখনও অফিসিয়ালি নিশ্চিত করেনি।’ 

তিনি বলেন, ‘আমরা এই মুহূর্তে ঘটনা তদন্তের স্বার্থে প্রায় ৪০ কিলোমিটার দূরে একটি খালে তল্লাশীর কাজ পরিদর্শনে রয়েছি। এর মধ্যে আমরা এই তথ্য পেয়েছি। আমরা এখন ঘটনাস্থলের (সঞ্জিভা গার্ডেন) দিকে যাচ্ছি। সেখানে গিয়ে আমরা নিশ্চিত হতে পারবো। মরদেহ বা দেহাংশ উদ্ধার হলেই যে সেটি সংসদ সদস্য আনারের সেটি আগাম বলার সুযোগ নেই। ডিএনএ টেস্ট করার পরে নিশ্চিত হওয়া সম্ভব।’

এদিকে স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, ‘সঞ্জীবা গার্ডেনসে আমি কাজ করি। সকাল থেকেই আমি সেখানেই ছিলাম। যাকে (এমপি আনার) খুন করা হয়েছে তার মাংস টয়লেটে ফ্ল্যাশ করে দেওয়া হয়। এরপর সেটি পাইপ দিয়ে ম্যানহোলের সেপটিক ট্যাংকে গিয়ে জমা হয়।  সেপটিক ট্যাংক থেকে যিনি মাংস উঠিয়েছেন, তিনি আমাদেরই বোনাই হন। তিন থেকে চার কেজি পরিমাণ মাংস পাওয়া গেছে।’

 

এম হাসান

×