ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ২৬ জন নির্বাচিত

পলকের শ্যালক ছাড়া স্বজনরা কেউ প্রত্যাহার করেননি

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২৩:৪৬, ২৩ এপ্রিল ২০২৪

পলকের শ্যালক ছাড়া স্বজনরা কেউ প্রত্যাহার করেননি

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপে বিনা ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন ২৬ চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান। মঙ্গলবার সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তারা ওই প্রার্থীদের নির্বাচিত ঘোষণা করেছেন বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের (ইসি) নির্বাচন ব্যবস্থাপনা শাখার কর্মকর্তারা। এদিকে মন্ত্রী-এমপিদের স্বজনদের নির্বাচন থেকে বিরত থাকতে কেন্দ্র থেকে আওয়ামী লীগের নির্দেশ সত্ত্বেও ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের শ্যালক লুৎফুল হাবীব রুবেল (নাটোরের সিংড়া উপজেলা) ছাড়া কেউ মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি।

এ ছাড়া বিএনপি কেন্দ্রীয়ভাবে নির্বাচন বর্জন করা সত্ত্বেও যারা মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন তাদের প্রত্যাহারের নির্দেশ দিলেও দলটির অধিকাংশ প্রার্থীই মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার না করে ভোটের মাঠে রয়েছেন। 
বিনা ভোটে নির্বাচিত ২৬ জনের মধ্যে রয়েছেন সাত চেয়ারম্যান, নয় ভাইস চেয়ারম্যান ও ১০ নারী ভাইস চেয়ারম্যান। বিনা ভোটে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেনÑ নাটোরের সিংড়া উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে দেলোয়ার হোসেন, বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে চুহামং মারমা। নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে স্থানীয় সংসদ সদস্য মোহাম্মদ আলীর ছেলে আশিক আলী, ভাইস চেয়ারম্যান পদে কেফায়েত উল্ল্যা ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে শামছুন্নাহার বেগম।  
এ ছাড়াও প্রথম ধাপের উপজেলা নির্বাচনে বিনা ভোটে নির্বাচিতদের মধ্যে রয়েছেনÑ বালিয়াডাংগি (ঠাকুরগাঁও) উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, হাকিমপুরে (দিনাজপুর) মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, সাঘাটায় (গাইবান্ধা) চেয়ারম্যান, বেড়া (পাবনা) উপজেলায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, কুষ্টিয়া সদরে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, বাগেরহাট সদরে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান, মুন্সীগঞ্জ সদরে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান, শিবচরে (মাদারীপুর) চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান, বড়লেখায় (মৌলভীবাজার) মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, পরশুরামে (ফেনী) চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান, সন্দ্বীপে (চট্টগ্রাম) ভাইস চেয়ারম্যান, কক্সবাজার সদরে ভাইস চেয়ারম্যান, কাউখালীতে (রাঙ্গামাটি) ভাইস চেয়ারম্যান এবং চুয়াডাঙ্গার ডামুরহুদায় ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান।
উল্লেখ্য, ৮ মে প্রথম ধাপে ১৫০ উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সোমবার ছিল এ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন। মঙ্গলবার প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্ধের সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয়েছে আনুষ্ঠানিক প্রচার। ইসির নির্বাচন ব্যবস্থাপনা শাখার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ১৫০ উপজেলার ভোটে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে এক হাজার ৮৯১ প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন।

এদের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৬৯৬ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিলেও ৯৫ প্রার্থী প্রত্যাহার করেছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী রয়েছেন ৬০১ প্রার্থী। ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৭২৪ জনের মধ্যে ৭৯ জন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করায় ৬৪৫ জন ভোটের মাঠে রয়েছেন। এ ছাড়া মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪৭১ জনের ২৪ প্রার্থী প্রার্থিতা প্রত্যাহার করায় ভোটের প্রতিযোগিতায় রয়েছেন ৪৪৭ জন।
দলের নির্দেশনা অমান্য করেছেন আওয়ামী লীগের এমপিরা ॥ আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে দলের নির্দেশনা অমান্য করেছেন আওয়ামী লীগের এমপিরা। ৮ মে অনুষ্ঠেয় প্রথম ধাপের নির্বাচনে মন্ত্রী-এমপিদের প্রায় ১৬ জন নিকটাত্মীয় উপজেলা চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। কিন্তু ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের শ্যালক লুৎফুল হাবীব রুবেল (নাটোরের সিংড়া উপজেলা) ছাড়া কেউ মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি।
সূত্রমতে, আওয়ামী লীগের সব মন্ত্রী-এমপিদের নির্দেশনা দেওয়া হয় উপজেলা নির্বাচনে যাতে তাদের পরিবারের সদস্য বা স্বজনরা প্রার্থী না হন তা নিশ্চিত করতে। কিন্তু একজন ছাড়া সবাই এ নির্দেশ অমান্য করেছেন। তা ছাড়া, কোনো ধরনের প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছাড়াই কাউকে বিজয়ী না করার সিদ্ধান্তও পুরোপুরি বাস্তবায়িত হয়নি। যে কারণে সাত চেয়ারম্যান, নয় ভাইস চেয়ারম্যান ও ১০ জন নারী ভাইস চেয়ারম্যান বিনা ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন।

×