ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১

ঈদে ঘরে ফেরা

ফিরতি যাত্রার অগ্রিম টিকিট বিক্রি আজ থেকে

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:০৪, ৩ এপ্রিল ২০২৪

ফিরতি যাত্রার অগ্রিম টিকিট বিক্রি আজ থেকে

ফিরতি যাত্রার অগ্রিম টিকিট বিক্রি আজ থেকে

ঈদুল ফিতরের আর মাত্র আটদিন বাকি। আপনজনের সঙ্গে ঈদ উদ্যাপনের জন্য ঢাকা ছাড়ছেন মানুষ। রেলপথে আজ বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে আন্তঃনগর ট্রেনের ঈদযাত্রা। ঈদ উপলক্ষে গত ২৪ মার্চ যারা আন্তঃনগর ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কিনেছেন তারা আজ বিভিন্ন গন্তব্যে যাত্রা করবেন। তাই ঈদযাত্রায় সিডিউল ঠিক রাখা এবং যাত্রীর চাপ নিয়ন্ত্রণে বুধবার থেকে বিমানবন্দর স্টেশনে ঢাকাগামী ৯ ট্রেনের যাত্রা বিরতি বাতিল করেছে রেলওয়ে। রেলপথের ঈদযাত্রা সরেজমিন দেখতে আজ দুপুরে ঢাকার কমলাপুর রেল স্টেশন পরিদর্শন করবেন রেলমন্ত্রী মো. জিল্লুল হাকিম।
এদিকে ঈদযাত্রার ফিরতি ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হচ্ছে আজ থেকে। প্রথম দিন বিক্রি করা হবে আগামী ১৩ এপ্রিলে ফেরার টিকিট। এভাবে ৪, ৫, ৬, ৭, ৮ ও ৯ এপ্রিল বিক্রি করা হবে ১৪, ১৫, ১৬, ১৭, ১৮ ও ১৯ এপ্রিল যাত্রার অগ্রিম টিকিট।
রেলওয়ে সূত্র জানায়, বুধবার সকাল আটটা থেকে শতভাগ অনলাইনে ফিরতি টিকিটের অগ্রিম বিক্রি শুরু হবে। আগের ঈদগুলোতে পাঁচদিনের টিকিট বিক্রি করলেও এবারই প্রথম সাতদিনের টিকিট বিক্রি করবে রেলওয়ে।

ঈদ উপলক্ষে ঘরমুখো মানুষের এই ট্রেন যাত্রার টিকিট ভোগান্তিবিহীন কিনতে শতভাগ টিকিট অনলাইনে বিক্রি করা হবে। সকাল আটটায় বিক্রি করা হবে পশ্চিমাঞ্চল থেকে ঢাকায় ফেরার অগ্রিম টিকিট ও দুপুর দুইটায় বিক্রি করা হবে পূর্বাঞ্চল থেকে ফেরার টিকিট। রেলওয়ের ওয়েবসাইট (https:// eticket.railway.gov.bd/) ও মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে ফিরতি টিকিট বিক্রি করা হবে বলে রেলওয়ে কর্মকর্তারা জানান।

এদিকে রেলপথের ঈদযাত্রা উপলক্ষে বুধবার থেকে ঈদের আগের দিন পর্যন্ত ঢাকাগামী একতা, দ্রুতযান, পঞ্চগড়, নীলসাগর, কুড়িগ্রাম, লালমনি, রংপুর, চিলাহাটি ও বুড়িমারী এক্সপ্রেস ট্রেন ঢাকা বিমানবন্দর স্টেশনে যাত্রা বিরতি দেবে না। অন্যদিকে সুন্দরবন, মধুমতি, বেনাপোল এক্সপ্রেস ও নকশীকাঁথা কমিউটার ট্রেন ঢাকা রেল স্টেশনের শহরতলি প্লাটফর্ম থেকে যাত্রা শুরু করবে।
রেলওয়ে সূত্র জানায়, বিনা টিকিটের যাত্রী প্রতিরোধে ঢাকা, বিমানবন্দর, জয়দেবপুর, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, সিলেট, রাজশাহী, খুলনাসহ সব বড় বড় স্টেশনে জিআরপি, আরএনবি, বিজিবি ও স্থানীয় পুলিশ এবং র‌্যাবের সহযোগিতায় টিকিটবিহীন যাত্রী স্টেশনে প্রবেশের প্রতিরোধে সার্বক্ষণিক প্রহরার ব্যবস্থা করা হবে। তা ছাড়া জেলা প্রশাসকদের সহায়তায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে।

নাশকতা প্রতিরোধে চলন্ত ট্রেনে, স্টেশনে বা রেললাইনে নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড প্রতিরোধকল্পে আরএনবি, জিআরপি ও রেলওয়ে কর্মচারীদের কার্যক্রম আরও জোরদার করা হবে। এ ছাড়া র‌্যাব, বিজিবি, স্থানীয় পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সক্রিয় সহযোগিতায় নাশকতাকারীদের কঠোরভাবে দমন করা হবে। টিকিটধারী যাত্রীদের ভ্রমণের সুবিধার্থে ঈদের আগে বুধবার থেকে জয়দেবপুর স্টেশন থেকে ঢাকামুখী এবং ঢাকা স্টেশন থেকে জয়দেবপুরমুখী আন্তঃজোনাল আন্তঃনগর ট্রেনে কোনো টিকিট ইস্যু করা হবে না।

বিমানবন্দর স্টেশন থেকে ঢাকাগামী এবং ঢাকা স্টেশন থেকে বিমানবন্দরগামী আন্তঃনগর ট্রেনে কোনো টিকিট ইস্যু করা হবে না। এ ছাড়া, ঈদের ১০ দিন আগে এবং ঈদের পরে ১০ দিন পর্যন্ত ট্রেনে সেলুন কার সংযোজন করা হবে না বলে কর্মকর্তারা জানান।

×