ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০

যে কারণে সিঙ্গাপুর গেলেন কাদের, যাচ্ছেন ফখরুল

প্রকাশিত: ১১:২৮, ৩ মার্চ ২০২৪

যে কারণে সিঙ্গাপুর গেলেন কাদের, যাচ্ছেন ফখরুল

ওবায়দুল কাদের-মির্জা ফখরুল 

সিঙ্গাপুরে গেলেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। জানা গেছে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য দেশটিতে গিয়েছেন তিনি। 

রবিবার (৩ মার্চ) সকালে ৮টা ৪১ মিনিটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিজি৫৮৪ ফ্লাইটে সিঙ্গাপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হন তিনি।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সিনিয়র তথ্য অফিসার শেখ ওয়ালিদ ফয়েজ বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে সেতুমন্ত্রী ঢাকায় ফিরবেন।

আরও পড়ুন : স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য যুক্তরাজ্যে রাষ্ট্রপতি

২০১৯ সালের মার্চে অসুস্থতার কারণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন ওবায়দুল কাদের। সেখানে দ্রুত এনজিওগ্রাম করার পর তার হৃদপিণ্ডের রক্তনালীতে তিনটি ব্লক ধরা পড়ে।

পরে ভারতের হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দেবী শেঠির পরামর্শে সিঙ্গাপুরে গিয়ে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হন কাদের। তখন থেকে সিঙ্গাপুরে নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে আসছেন তিনি।

অন্যদিকে চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তার সাথে স্ত্রী রাহাত আরা বেগমও যাবেন। সোমবার (৪ মার্চ) সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে মির্জা ফখরুলের হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করার কথা রয়েছে। চিকিৎসা শেষে আগামী ১৮ মার্চের দিকে তিনি দেশে ফিরতে পারেন।

শনিবার (২ মার্চ) বিএনপি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সর্বশেষ গত বছরের ২৪ আগস্ট চিকিৎসার জন্য সস্ত্রীক সিঙ্গাপুর গিয়েছিলেন ফখরুল। এক সপ্তাহ চিকিৎসা শেষে ২ সেপ্টেম্বর দেশে ফিরেন তারা।

সাড়ে তিন মাস কারাগারে থাাকার পর গত ১৫ ফেব্রুয়ারি জামিনে মুক্তি পান মির্জা ফখরুল। তবে কারাগারে থাকার সময় তার প্রায় ছয় কেজি ওজন কমে যায় বলে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন গণমাধ্যমকে জানান। এরপর শারীরিক চেক আপের জন্য ১৭ ফেব্রুয়ারি শ্যামলীতে বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসক দেখান ফখরুল। চিকিৎসকের পরামর্শে তিনি বাসায় থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।

মির্জা ফখরুল এবার কারামুক্তির পর থেকে রাজনীতিতে তেমন সক্রিয় নন। রাজনৈতিক কোনো কর্মসূচিতে অংশ নেননি। তবে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি গুলশানের একটি হোটেলে সফররত যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়াবিষয়ক উপসহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী আফরিন আখতারের সঙ্গে বৈঠক করেন ফখরুল।

এছাড়া মাঝেমধ্যে তিনি গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বসেন। শনিবার (২ মার্চ) যুগপৎ আন্দোলনের দুই মিত্র জোট গণতন্ত্র মঞ্চ ও ১২ দলীয় জোটের নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন বিএনপি মহাসচিব।

তবে এটিকে সৌজন্য সাক্ষাৎ বলছেন জোট নেতারা। সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরে রাজনীতিতে পুরোপুরি সক্রিয় হতে পারেন মির্জা ফখরুল।

এবি 

সম্পর্কিত বিষয়:

×