ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ঢাবিতে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় নারী নিহত

নিজস্ব সংবাদদাতা

প্রকাশিত: ১৮:২০, ২ ডিসেম্বর ২০২২; আপডেট: ১৮:৫৩, ২ ডিসেম্বর ২০২২

ঢাবিতে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় নারী নিহত

ঢাবিতে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাইভেটকার আটক

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রাইভেটকারের ধাক্কায় রুবিনা আক্তার (৪০) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। 

শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

গাড়ির ধাক্কায় আহত নারী ঢামেকে বিকেল ৫টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

মৃত্যুর বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া।

তিনি বলেন, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানায় জানানো হয়েছে।

তিনি বলেন, নিহত নারীর শুধু নাম জানা গেছে। বিস্তারিত পরিচয় এখনো জানা যায়নি।

এদিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এক নারীকে প্রাইভেটকার (ঢাকা মেট্রো ক ০৫-০০৫৫) ধাক্কা দেয়। এতে নারী গাড়ির নিচেই আটকে পড়েন। পরে চালক গাড়ি না থামিয়ে বেপরোয়া গতিতে টিএসসি দিয়ে নীলক্ষেত এলাকার দিকে যাচ্ছিলেন। পরে নীলক্ষেত মোড়ে গাড়ি আটকা পড়লে চালককে গণপিটুনি দেয় উপস্থিত জনতা। এতে গুরুত্বর আহত হন চালক। 

রুবিনা আক্তারের দেবর নুরুল আমিন বলেন, রুবিনা আক্তার আমার সঙ্গে মোটরসাইকেলযোগে তেজগাঁওয়ের বাসা থেকে হাজারীবাগে সেকশন এলাকায় যাচ্ছিলেন। ঢাবি এলাকায় পৌঁছালে পেছন থেকে একটি প্রাইভেটকার ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিয়ে তাকে টেনে হিঁচড়ে নীলক্ষেত মোড় পর্যন্ত নিয়ে আসে।

তিনি আরও বলেন, আমি পেছন থেকে প্রাইভেটকারের চালককে ডাকতে ডাকতে এক কিলোমিটার চলে আসি। কিন্তু চালক গাড়ি থামাননি। পরে নীলক্ষেত মোড় এলাকায় আসলে আশপাশের লোকজন গতিরোধ করে চালককে গণধোলাই দেয়। এছাড়া গুরুতর আহত অবস্থায় রুবিনা আক্তারকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। 

তিনি জানান, ওই প্রাইভেটকারটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক জাফর শাহর। তিনিই গাড়িটি চালাচ্ছিলেন।  

এ বিষয়ে শাহবাগ থানার বাবুপুরা ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক আরিফ হোসেন জানান গণমাধ্যমকে বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঢাকা মেডিকেলে আসি এবং একটি টিম ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। মোটরসাইকেলে থাকা ওই নারী চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। আহত জাফর শাহ নামে এক ব্যক্তি জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন।

 

 

এমএম

×