ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

বরিশালকে হারিয়ে খুলনার শুভ সূচনা

প্রকাশিত: ০০:৪২, ২৫ নভেম্বর ২০২০

বরিশালকে হারিয়ে খুলনার শুভ সূচনা

মিথুন আশরাফ ॥ বঙ্গবন্ধু টি২০ কাপে মঙ্গলবার দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে আরিফুল হকের শেষ ওভারের ধুন্ধুমার ব্যাটিংয়ে ফরচুন বরিশালকে ৪ উইকেটে হারিয়ে দিয়ে জেমকন খুলনা শুভ সূচনা করে। ৩৪ বলে ২ চার ৪ ছক্কায় অপরাজিত ৪৮ রান করে খুলনাকে জেতান আরিফুল। শেষ ওভারে ২২ রান দরকার থাকে। নাটকীয়তার দেখা মিলে। চার ছক্কা হাঁকিয়ে ম্যাচ জেতান আরিফুল। মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে বরিশাল আগে ব্যাটিং করে পারভেজ হোসেন ইমনের ৫১ রানে ভর দিয়ে ৯ উইকেট হারিয়ে ২০ ওভারে ১৫২ রান করে। শহিদুল ইসলাম ৪ উইকেট শিকার করেন। সাকিব নেন ১ উইকেট। জবাবে খুলনা ৬ উইকেট হারিয়ে ১৯.৫ ওভারে ১৫৫ রান করে জিতে। আরিফুল দুর্দান্ত ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরা হন। খুলনার অবস্থা শুরুতেই কাহিল হয়। ৪ রানেই এনামুল হক বিজয় ও ইমরুল কায়েস আউট হওয়ার পর সাকিব আল হাসান ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ জুটি বাঁধেন। দলের ৩২ রানে গিয়ে মাহমুদুল্লাহ (১৭) আউট হয়ে যান। দলের স্কোরবোর্ডে আর ৪ রান যোগ হতেই সাকিবও (১৫) একই পথের পথিক হন। খুলনা বিপদে পড়ে যায়। এরপর জহুরুল ইসলাম অমি (৩১) দলকে ৭৮ রানে নিয়ে গিয়ে আউট হন। মহাবিপদে পড়ে খুলনা। আরিফুল হক ও শামিম হোসেন মিলে সেই বিপদ দূর করতে থাকেন। কিন্তু শেষ মুহূর্তে গিয়ে যখন জিততে ৩০ রান দরকার, দলের ১২২ রানে গিয়ে শামিমকে (২৬) আউট করে দেন সুমন খান। খুলনার জয়ের সব আশাই যেন শেষ হয়ে যায়। কিন্তু আরিফুল যে তার মারমুখী ব্যাটিং তখনও করেননি। শেষ ৬ বলে খুলনার জিততে ২২ রান লাগে। মেহেদি হাসান মিরাজ বোলিং করতে আসেন। প্রথম চার বলে তিন ছক্কা হাঁকান আরিফুল। পঞ্চম বলেও ছক্কা হাঁকিয়ে দেন। ম্যাচ জিতিয়ে দেন আরিফুল। বরিশালের ব্যাটিং শুরু হতেই ধস নামে। শফিউল ইসলামের করা ম্যাচের প্রথম বলেই কট এ্যান্ড বোল্ড হয়ে যান ওপেনিংয়ে নামা বরিশালের মেহেদি হাসান মিরাজ। তামিম ইকবাল ও পারভেজ হোসেন ইমন মিলে দলকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু দলের ৩৮ রান হতেই তামিম (১৫) আউট হয়ে যান। আফিফ আসলেন, আর আউট হলেন। চৌদ্দ মাস পর খেলতে নেমে দ্বিতীয় ওভারেই আফিফকে (২) আউট করে দিয়ে উইকেট শিকার করে নেন সাকিব। ইমন (৫১) ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টি২০ ম্যাচে খেলতে নেমেই ৪১ বলে অর্ধশতক করার পরের বলেই আউট হয়ে যান। দলকে ৮১ রানে রেখে যান। সেখান থেকে ইরফান শুকুর ও তৌহিদ হৃদয় স্কোর বড় করার চেষ্টা করে ১০৬ রান পর্যন্ত যান। তখন ইরফান (১১) আউট হন। দলের যখন ১৩৩ রান তখন মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন (২১) আউট হতেই মুহূর্তেই ৪টি উইকেটের পতন ঘটে। এরমধ্যে হৃদয়ও (২৭) আউট হয়ে যান। ১৩৮ রানে গিয়ে ৯ উইকেট পড়ার পর তাসকিন আহমেদ (১২*) শেষমুহূর্তের ঝলক দেখান। ১ ছক্কা, ১ চার হাঁকান। তাতে ১৫২ রানে যেতে পারে বরিশাল। কিন্তু খুলনার আরিফুল এমন ব্যাটিং ধামাকা দেখান যে ম্যাচ জিতিয়ে দেন। স্কোর ॥ বরিশাল ১৫২/৯; ২০ ওভার (মিরাজ ০, তামিম ১৫, পারভেজ ৫১, আফিফ ২, হৃদয় ২৭, ইরফান ১১, অঙ্কন ২১, আমিনুল ৫, সুমন ০, তাসকিন ১২*, কামরুল ২*; শহিদুল ৪/১৭)। খুলনা ১৫৫/৬; ১৯.৫ ওভার (বিজয় ৪, ইমরুল ০, সাাকিব ১৫, মাহমুদুল্লাহ ১৭, জহুরুল ৩১, আরিফুল ৪৮*, শামিম ২৬, শহিদুল ৮*; সুমন ২/২১)। ফল ॥ খুলনা ৪ উইকেটে জয়ী। ম্যাচ সেরা ॥ আরিফুল হক (খুলনা)।
monarchmart
monarchmart