ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২০ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

আম্বানির ছেলে-মেয়ের বিয়েসহ ভারতে হাজার কোটি রুপির যত বিয়ে

প্রকাশিত: ১৫:০১, ৬ মার্চ ২০২৪

আম্বানির ছেলে-মেয়ের বিয়েসহ ভারতে হাজার কোটি রুপির যত বিয়ে

অনন্ত আম্বানি ও রাধিকা মার্চেন্ট

ভারতীয় ধনকুবের মুকেশ আম্বানির ছেলের বিয়ে উপলক্ষে চোখধাঁধানো আয়োজনে চলচ্চিত্র ও ক্রীড়াজগতের তারকা, ধনী ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে নানা শ্রেণি-পেশার প্রভাবশালী মানুষের ভিড় জমেছিল জামনগরে।

শুধু কি তা-ই। বিল গেটস, ইভাঙ্কা ট্রাম্প, মার্ক জাকারবার্গ ও তাঁর স্ত্রী প্রিসিলা চ্যান, রিয়ানা—কে ছিলেন না জামনগরের এ আয়োজনে। নেচে-গেয়ে-উৎসবে-আতশবাজিতে মেতেছিলেন সবাই।কত খরচ হলো জমকালো এ আয়োজনে, দেশে-বিদেশে অনেকের মনে এমন প্রশ্ন উঁকি দিয়েছে। ইন্ডিয়া টাইমসের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ছেলের বিয়ের প্রাক্‌-আয়োজনে ১ হাজার ২০০ কোটি রুপির বেশি খরচ করেছেন মুকেশ-নীতা আম্বানি।

সংখ্যাটি শুনে অনেকের চোখ কপালে উঠেছে। অনেকে বলছেন, প্রাক্‌-বিয়েতে খরচের এই বহর! তাহলে আসছে জুলাইয়ে অনন্ত-রাধিকার বিয়ের আয়োজনে কত খরচ করবে আম্বানি পরিবার?

তবে এবারই প্রথম নয়, এর আগেও বেশ কয়েকটি বিয়ের জমকালো আয়োজনে শতকোটি রুপি খরচের বহর দেখেছে ভারতবাসী। আসুন একঝলকে এমন কয়েকটি আয়োজন সম্পর্কে জেনে নিই।

মুকেশ ও নীতা আম্বানির মেয়ে ইশা। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে ইশা বিয়ে করেন আনন্দ পিরামলকে। এ উপলক্ষে আম্বানিদের মুম্বাইয়ের বাড়ি, ইতালির লেক কোমো আর ভারতের রাজস্থানের উদয়পুরে বিভিন্ন আয়োজন করা হয়। প্রতিটি আয়োজনে তারকাদের মেলা বসেছিল।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর, মেয়ের বিয়ের আয়োজনে মুকেশ ও নীতা আম্বানি কার্পণ্য করেননি। খরচ করেছেন ৭০০ কোটি রুপি।

ইশার বিয়েতে পপ তারকা বিয়ন্সে এসেছিলেন। গুঞ্জন রয়েছে, ৪৫ মিনিটের একটি আয়োজনে অংশ নিতে বিয়ন্সে ১ কোটি ৫০ লাখ ডলার নিয়েছেন।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, নিক জোনাস, অমিতাভ বচ্চন, সালমান খান, শাহরুখ খান, রণবীর সিং, দীপিকা পাড়ুকোন থেকে শুরু করে হিলারি ক্লিনটন হাজির ছিলেন বিয়ের এ আসরে। ২০২২ সালের নভেম্বরে যমজ সন্তানের মা হয়েছেন ইশা।

ভারতের শিল্পগোষ্ঠী সাহারা ইন্ডিয়ার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সুব্রত রায়। তাঁর দুই ছেলে সুশান্ত রায় ও সীমান্ত রায়। ২০০৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন দুই ভাই।

ওই বছরের ১০ ফেব্রুয়ারি রিচা আহুজাকে বিয়ে করেন সুশান্ত। ১৪ ফেব্রুয়ারি বিয়ে করেন সীমান্ত। কনের নাম চান্দিনি তুর। দুই ছেলের বিয়েতে খরচ করতে হাত টান করেননি ধনকুবের সুব্রত।

লক্ষ্ণৌতে সপ্তাহজুড়ে বসেছিল রায় ভাইদের বিয়ের জমকালো আসর। অতিথির সংখ্যা ছিল ১১ হাজারের বেশি। তারার মেলা বসেছিল এসব আয়োজনে। এসেছিলেন ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারি বাজপেয়ী। জোড়া বিয়েতে খরচ হয়েছিল ৫৫৪ কোটি রুপি।

ভারতের খনিজ শিল্প খাতের পুঁজিপতি ও সাবেক রাজনীতিক গ্যালি জনার্দন রেড্ডির মেয়ে ব্রাহ্মনি। ২০১৬ সালে ব্রাহ্মনি ও রাজিবের বিয়ের জমকালো আসর বসেছিল। ওই সময় নগদ অর্থের প্রবাহ নিয়ে সংকটে ভুগছিল ভারত। এর মধ্যে জমকালো এ আয়োজন সমালোচনার মুখে পড়ে।বেঙ্গালুরু প্রাসাদে পাঁচ দিনের ওই আয়োজনে তারকারা ভিড় করেছিলেন। অতিথি ছিলেন ৫০ হাজার জনের বেশি। বিয়ের কার্ডটিও ছিল সোনায় মোড়ানো। এ আয়োজনে খরচ হয়েছিল ৫০০ কোটি রুপি।

ভারতের ইস্পাতশিল্পের ধনকুবের লক্ষ্মী মিত্তালের ভাই প্রমোদ মিত্তালের মেয়ে সৃষ্টি ২০১৩ সালে বিনিয়োগ ব্যাংকার গুলরাজ বহেলকে বিয়ে করেন। স্পেনের বার্সেলোনায় বসেছিল জমকালো আসর। ৫০০ অতিথি অংশ নেন সৃষ্টি-গুলরাজের বিয়েতে। ৬০ কেজি ওজনের কেক ছিল এ আয়োজনে।

ন্যাশনাল মিউজিয়াম অব কাতালান আর্টে বসেছিল মূল আয়োজন। পাহাড়ের ওপরের এ আয়োজনের ছবি-ভিডিও করতে হেলিকপ্টার আনা হয়েছিল। পুরো আয়োজনে খরচ হয়েছিল ৫০০ কোটি রুপি। ২০২০ সালের জুনে প্রমোদ মিত্তালকে দেউলিয়া ঘোষণা করা হয়।

ধনকুবের লক্ষ্মী মিত্তালের একমাত্র মেয়ে ভানিশা মিত্তাল। ২০০৪ সালে লন্ডনের ব্যাংকার অমিত ভাটিয়াকে বিয়ে করেন তিনি। ছয় দিনের জমকালো বিয়ের আসর বসেছিল ফ্রান্সের প্যারিসে।

শাহরুখ খান, ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন থেকে শুরু করে বলিউডের অনেক তারকা এ বিয়েতে হাজির হয়েছিলেন। বিয়ে উপলক্ষে আইফেল টাওয়ারে আতশবাজি করা হয়। ভানিশা-অমিতের বিয়েতে খরচ হয়েছিল ২৪০ কোটি রুপি।

তথ্যসূত্র: দ্য ন্যাশনাল নিউজ ও ইন্ডিয়া টাইমস

তাসমিম

সম্পর্কিত বিষয়:

×