ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

পানি নেই সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে

এক বালতি পানির দাম ৩০ টাকা, রোগীদের হাহাকার

প্রকাশিত: ২০:৪৬, ৮ জুন ২০২৪

এক বালতি পানির দাম ৩০ টাকা, রোগীদের হাহাকার

পানি নিয়ে যাচ্ছে রোগীর স্বজনরা

পাম্প বিকল হয়ে যাওয়ায় চারদিন ধরে পানি নেই রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে। এতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে রোগী ও স্বজনদের। ব্যাহত হচ্ছে চিকিৎসা কার্যক্রমও। হাসপাতালের বাইরে থেকে ৩০ টাকায় কিনতে হচ্ছে প্রতি বালতি পানি। সমাধান না হওয়ায় হাসপাতাল ছাড়তে বাধ্য হচ্ছেন রোগীরা।

স্ত্রীর উন্নত চিকিৎসার জন্য ৬ দিন আগে ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে এসেছিলেন ষাটোর্ধ্ব আবুল হোসেন। তবে পানির সংকটে তার উন্নত চিকিৎসার স্বপ্ন পরিণত হয়েছে দুঃস্বপ্নে।

আবুল হোসেন জানান, দিনে তিন বেলা পানি নিয়ে ছয়তলায় ওঠানামা করতে হচ্ছে তাকে। একই অবস্থা ভর্তি থাকা সব রোগীর স্বজনদের। ভুক্তভোগীদের দাবি, বাধ্য হয়েই হাসপাতালের বাইরে থেকে কিনতে হচ্ছে পানি। সেই সুযোগে পানির দামও বাড়িয়েছে অসাধু ব্যবসায়ীরা। এমনকি বালতিভর্তি দূষিত পানিও বিক্রি হচ্ছে চড়া মূল্যে।

রোগীদের স্বজনরা জানান, দূষিত ময়লা পানি প্রতি বালতির দাম নেয়া হচ্ছে ৩০ টাকা। আর বিশুদ্ধ পানির ছোট বোতলের দামও হয়ে গেছে ৪০ টাকা। বাধ্য হয়ে কোনো কোনো রোগী এই ময়লা পানি পান করছেন।

সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের পরিচালক বলছেন, একমাত্র পানির পাম্প নষ্ট হয়ে যাওয়ায় এ সমস্যা। আর পাম্পটি অনেক বড়। যে কারণে এটি মাটির নিচ থেকে তুলতেও কষ্ট হয়েছে, দূর থেকে মেশিন আনতে হয়েছে। এর প্রভাব পড়েছে প্রশাসনিক কার্যক্রমে। কবে পাম্প ঠিক হবে তা নিশ্চিতভাবে বলা যাচ্ছে না। তবে শিগগিরই এ সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চলছে।

 

শহিদ

×