ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১

ক্যান্সার চিকিৎসার নতুন থেরাপিতে সাফল্য

প্রকাশিত: ২০:৫৫, ১২ ডিসেম্বর ২০২২

ক্যান্সার চিকিৎসার নতুন থেরাপিতে সাফল্য

ক্যান্সার চিকিৎসা

বিশ্বে প্রথমবারের মতো ব্লাড ক্যানসার রোগ সারিয়ে তুলতে সক্ষম হয়েছেন যুক্তরাজ্যের একদল চিকিৎসক। ব্যবহার করা হয়েছে সেল ইঞ্জিনিয়ারিং নামের অত্যাধুনিক এক পদ্ধতি। অ্যালিসা নামের এক কিশোরীর দেহে এই পদ্ধতি ব্যবহার করে সাফল্য পেয়েছেন চিকিৎসকরা। এর আগে তার চিকিৎসায় যেসব থেরাপি ও পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়েছিল তার সবই ব্যর্থ হয়েছিল। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ক্যান্সারের চিকিৎসায় এই নতুন সাফল্য চিকিৎসা জগতে নয়া সম্ভাবনার দুয়ার খুলবে। 

‘ব্লাড ক্যানসার’ নামে পরিচিত রোগ লিউকেমিয়ায় আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে প্রতিবছর মৃত্যু হয় ৩ লাখেরও বেশি মানুষের। অন্যান্য ক্যানসারের মতো লিউকেমিয়ার চিকিৎসাও জটিল ও ব্যয়বহুল। বিশ্বে এতদিন এই রোগ সম্পূর্ণ নিরাময়ের লক্ষ্যে কোনো ওষুধ বা চিকিৎসা আবিস্কৃত হয়নি। এবার যুক্তরাজ্যের চিকিৎসা বিজ্ঞানীদের উদ্ভাবিত নতুন থেরাপিতে সেরে ওঠেছেন ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্তএক কিশোরী, নাম এলিসা। 

ব্লাড ক্যান্সার নিরাময়ে যুক্তরাজ্যের গ্রেট অরমন্ড স্ট্রিট হাসপাতালের চিকিৎসকরা 'বেস ইডিটিং' নামের এক পদ্ধতি ব্যবহার করেন। যা ছয় বছর আগে আবিষ্কার করা হয়। এতে কোষের জিনগত পরিবর্তন ঘটিয়ে রোগীর দেহের ক্যান্সার কোষগুলোকে ধ্বংস এবং ভালো কোষগুলোকে সুরক্ষিত রাখা হয়। এলিসাই বিশ্বে প্রথম মানুষ, যাকে এ পদ্ধতিতে চিকিৎসা করা হয়েছে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, গত বছর টি-সেল অ্যাকিউট লাইমফোব্লাস্টিক নামের অতি গুরুতর ব্লাড ক্যান্সার ধরা পড়ে ১৩ বছর বয়সী এলিসার দেহে। ক্যান্সারের কোষগুলো দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে কেমোথেরাপি ও নানান চিকিৎসা দেয়া হয় তাকে। তবুও কোনো ফল না পাওয়ায় এলিসা ও তার পরিবারের সম্মতিতে প্রয়োগ করা হয় 'বেস ইডিটিং' থেরাপি। বিস্ময়কর হলেও সত্যি, ছয় মাস পর ক্যান্সারের কোনো কোষ পাওয়া যায়নি এলিসার দেহে। তবে রোগটি আবারও ফিরে আসে কি না, সেই আশঙ্কায় তাকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।
 

 

এমএস

×