ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

হিন্দি ছবি এলে আমার আপত্তি নেই ॥ তথ্যমন্ত্রী

সংস্কৃতি ডেস্ক

প্রকাশিত: ২১:৪৩, ৩ ডিসেম্বর ২০২২

হিন্দি ছবি এলে আমার আপত্তি নেই ॥ তথ্যমন্ত্রী

ড. হাছান মাহমুদ

‘বছরে ১০-১২টা হিন্দি ছবি আসার ক্ষেত্রে আমার ব্যক্তিগত আপত্তি নেই। তবে দেশের সিনেমা সংশ্লিষ্ট সব মানুষ ও সংগঠনকে একমত হতে হবে। না হলে কিছুই সম্ভব হবে না’- শুক্রবার চট্টগ্রামের অভিজাত মাল্টিপ্লেক্স স্টার সিনেপ্লেক্সের নতুন শাখা উদ্বোধনের সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।
দেশের প্রেক্ষাগৃহে বিদেশী ছবি নিয়মিত আমদানির বিষয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া রয়েছে নানা মহলে। নেতিবাচক প্রতিক্রিয়াই বেশি। বিশেষ করে বলিউডের ছবি নিয়মিত আমদানির বিষয়ে ঘোর আপত্তি রয়েছে অনেকের। তাদের ধারণা, হিন্দি ছবি এই বাজারে ঢুকলে ঢালিউড যেটুকু টিকে আছে- সেটুকুও ভেস্তে যাবে। এমন আলোচনা-সমালোচনার মধ্যেও পজিটিভ মতামত দিলেন মন্ত্রী।
হিন্দি ছবির বিষয়ে মন্ত্রীর অনাপত্তিপত্র মিললেও মুগ্ধতা রয়েছে দেশের ছবি ও প্রযোজকদের নিয়েও। ড. হাছান মাহমুদ বলেন, রুহেলকে (স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তা) ধন্যবাদ জানাই, সে শুধু সিনেমা হল বানায়নি, সিনেমাও বানিয়েছে। তার প্রযোজিত ‘ন ডরাই’ আমি দেখেছিলাম। মুগ্ধ হয়েছি। আমি আশা করি, রুহেলের হাত ধরে চট্টগ্রাম ও সারাদেশে আরও অনেক সিনেমা হল চালু হবে। কদিন আগে কলকাতায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসবে ‘হাওয়া’ দেখার জন্য এক কিলোমিটার দীর্ঘ লাইন হয়েছে। আমি অবাক হয়েছি। ফলে আমাদের সিনেমা শিল্প কিন্তু থেমে নেই। এগিয়ে চলছে। এই অগ্রগতি ধরে রাখতে হবে আমাদের।
শুক্রবার সন্ধ্যায় স্টার সিনেপ্লেক্স পতাকা ওড়ালো বন্দরনগরী চট্টগ্রামে। বাংলাদেশের সিনেমা হলের অন্ধকার দূর করে আলো ছড়ানো এই অভিজাত মাল্টিপ্লেক্সটি প্রথমবার ঢাকার বাইরে নিজেদের শাখা চালু করল। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন তারকা দম্পতি রাজ-পরী। আরও ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও বালি আর্কিডের মালিক সোলায়মান শেঠ।

monarchmart
monarchmart